সর্বশেষ আপডেট : ৭ ঘন্টা আগে
শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪ খ্রীষ্টাব্দ | ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

জলাবদ্ধতাই ২১ নম্বর ওয়ার্ডের প্রধান সমস্যা

ডেইলি সিলেট ডেস্ক ::

বরিশাল নগরীর প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত । সিটি করপোরেশন প্রতিষ্ঠার প্রায় ২০ বছর পরও ওয়ার্ডটির ভাঙাচোরা সড়ক ও জলাবদ্ধতা দূর করতে পারেনি কর্তৃপক্ষ। প্রতি বর্ষা মৌসুমে হাঁটু সমান পানিতে ডুবে থাকে ওয়ার্ডটির প্রধান প্রধান সড়ক। প্রতিনিয়ত দুর্ভোগ পোহাতে রয়েছে ভাঙাচোরা সড়কে।

বুধবার (৩১ মে) নগরীর মুসলিম গোরস্থান রোডস্থ ২১ নম্বর ওয়ার্ড ঘুরে দেখা গেছে ভাঙাচোরা সড়ক ও ড্রেনেজ ব্যবস্থার বেহাল দশার দৃশ্য।

ওয়ার্ডবাসী জানান, প্রধান প্রধান সড়ক ছাড়া ওয়ার্ডের অধিকাংশ রাস্তা ভাঙা। এছাড়া হালকা বর্ষায় শাখা সড়ক থেকে শুরু করে প্রধান সড়কগুলো হাঁটু পানিতে তলিয়ে যায়।

২১ নম্বর ওয়ার্ড মুসলিম গোরস্থান রোড এলাকার হোটেল ব্যবসায়ী মো. আনোয়ার খান বলেন, মুসলিম গোরস্থানে প্রবেশের মূল সড়কটি দীর্ঘদিন ধরে ভাঙাচোরা। শুধু মেরামতের প্রতিশ্রুতি শুনে আসছি। আদৌ সড়কটি মেরামতের কোনো লক্ষণ দেখছি না। এছাড়া বর্ষায় সড়কটি পুরাই চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়ে। ভারি বৃষ্টি হলে দোকানের মধ্যে পানি ঢুকে যায়।

ওই এলাকার আরেক ব্যবসায়ী মো. মোতালেব হাওলাদার বলেন, কিছু দিন আগে এক ঘণ্টা বৃষ্টি হয়েছে। সেই বৃষ্টিতে আমার দোকানে চার আঙ্গুল পানি উঠে যায়। পরদিন সেই পানি নেমেছে।

এ ব্যবসায়ী আরও বলেন, রাস্তার পাশের ড্রেনগুলো দীর্ঘদিন ধরে পরিষ্কার করতে দেখিনি। ময়লার স্তূপ জমে ড্রেনগুলো বন্ধ হয়ে আছে। এ কারণেই বৃষ্টির পানি ড্রেনে না নেমে রাস্তায় জমে থাকে। স্থানীয় কাউন্সিলরের কাছে বিষয়টি দীর্ঘদিন জানিয়েও কোনো প্রতিকার পাইনি। আমার চাই যেই নতুন জনপ্রতিনিধি হোক তিনি রাস্তাঘাট ও ড্রেনেজ ব্যবস্থার উন্নয়ন করবেন।

একই অভিযোগ ওয়ার্ডটির মুসলিম গোরস্থান থেকে করিম কুটির লেন পর্যন্ত বাসিন্দাদের। তারা বলেন, দীর্ঘদিন ধরেই সড়কটি পানির নিচে তলিয়ে থাকতো। নির্বাচনের আগে আগে সড়ক কাজ ধরায় কিছুটা ভোগান্তি কমেছে। তবে কাজ এখন পর্যন্ত সম্পন্ন করতে পারেনি কর্তৃপক্ষ।

করিম কুটির লেন এলাকার বাসিন্দা দেলোয়ার হোসেন বলেন, শুকনো মৌসুমেও এ সড়ক পানির নিচে থাকতো। এর মধ্যে সড়কটি খানাখন্দে ভরা ছিল। নির্বাচন আসার আগ মুহূর্তে সড়কটির কাজ ধরেছে, কিন্তু এ কাজ কবে শেষ হবে আল্লাহ জানে।

নগরীর ২১ নম্বর ওয়ার্ড ঘুরে স্থানীয় লোকজনের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, পুরো ওয়ার্ডের প্রধান সড়কসহ শাখা সড়কগুলো বর্ষা মৌসুমে পানিতে তলিয়ে যায়। তাছাড়া ভাঙাচোরা সড়ক, ড্রেনেজ ব্যবস্থা মশার দুর্ভোগের কথা জানান ওয়ার্ডবাসী।

২১ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদপ্রার্থী আবু মোহাম্মদ মুসা বলেন, দীর্ঘদিন ধরে জলাবদ্ধতা, ড্রেনেজ ব্যবস্থা অনুন্নত, মশার উপদ্রবসহ নানা ধরনের সমস্যায় ভুগছে ওয়ার্ডবাসী। রাস্তাঘাট ভাঙাচোরা আছে দীর্ঘদিন ধরে। ওয়ার্ডের লোকজন সব ধরনের সিটি কর পরিশোধ করেও ন্যূনতম নাগরিক সেবা পাচ্ছে না।

এ বিষয়ে ওয়ার্ড কাউন্সিলর শেখ সাঈদ আহমেদ জাগো নিউজকে বলেন, ওয়ার্ডবাসীর সাধ্যমত সেবার চেষ্টা করেছি। কতটুকু করতে পারছি তা ওয়ার্ডবাসী ভালো জানেন। এছাড়া ভাঙাচোরা সড়কগুলোর টেন্ডার হয়ে গেছে। যদি পুনরায় নির্বাচিত হতে পারি তাহলে বাকি কাজ শেষ করবো।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Comments are closed.

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: