সর্বশেষ আপডেট : ৪১ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ১৭ অক্টোবর ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ২ কার্তিক ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

ওমানেও এটিএম বুথ ডাকাতির ঘটনায় ৮ বছর কারাবাস করেছিল শামীম: পুলিশ সুপার

দেশের ইতহাসে প্রথম কোনো ব্যাংকে এটিএম বুথে ডা’কাতির ঘটনা ঘটেছে সিলেটের ওসমানীনগরে। চলতি মাসের গত ১২ সেপ্টেম্বর দিবাগত রাতে উপজে’লার শেরপুরে ইউনাইটেড কমা’র্শিয়াল ব্যাংকের (ইউসিবি) এটিএম বুথে লুট করে ডা’কাত দল। এরপর থেকে ঘা ঢাকা দেয় ঘটনার অন্যতম পরিকল্পনাকারী শামীম আহম’দ ও সাফি উদ্দিন জাহির। আর এই ঘটনার মূল পরিকল্পনাকারী শামীম এক সময় ওমানে থাকাব্স্থায় স্থানীয় একটি ব্যাংকের এটিএম বুথ ডা’কাতি করে দীর্ঘদিন কারাবাস করে।

বৃহস্পতিবার (২৩সেপ্টেম্বর) দুপুরে জে’লা পু’লিশ সুপারের কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এমন তথ্য জানিয়েছেন জে’লা পু’লিশ সুপার মোহাম্ম’দ ফরিদ উদ্দিন।

পু’লিশ সুপার জানান, ‘ডিএমপি ডিবি কর্তৃক গ্রে’প্তারকৃত শামীম আহমেদ ও সিলেট জে’লা ডিবি কর্তৃক গ্রে’প্তারকৃত সাফি উদ্দিন জাহির দীর্ঘদিন দুবাইয়ে থাকা অবস্থায় তাদের মধ্যে সখ্যতা গড়ে ওঠে। একসময় দুজনই দেশে ফিরে চু’রি, ডা’কাতিসহ বিভিন্ন অ’পকর্মে জড়িয়ে যায়। শেরপুরে এটিএম বুথ লুটের ঘটনাটিও শামীম ও জাহিরের পরিকল্পনাতেই বাস্তবায়িত হয়।

গ্রে’প্তারকৃত শামীম এক সময় ওমানে থাকা অবস্থায় সেখানকার স্থানীয় ব্যাংকের এটিএম বুথ ডা’কাতির ঘটনায় ৮ বছর কারাবাস করে। শেরপুরের ঘটনার পরেও সে বিদেশে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। জে’লা গােয়েন্দা পু’লিশের অ’ভিযানে শামীমের বাসা তল্লা’শি করে ঘটনায় ব্যবহৃত তার পালসার মোটরসাইকেল এবং পাসপোর্ট জ’ব্দ করা হয়েছে।’

লিখিত বক্তব্যে পু’লিশ সুপার বলেন, গত ১২ সেপ্টেম্বর রাত ৩টার দিকে ওসমানীনগর উপজে’লার শেরপুর নতুন বাজারস্থ ইউনুছ ম্যানশনের নিচতলায় থাকায় ইউনাইটেড কমা’র্শিয়াল ব্যাংকের এটিএমে হানা দেয় চার অ’স্ত্রধারী। তারা বুথের নিরাপত্তা প্রহরীকে জি’ম্মি করে বেঁধে ফেলে। পরে বিভিন্ন ধরনের যন্ত্রপাতি ব্যবহার করে তারা বুথে থাকা মেশিন ভেঙে ২৪ লাখ সাড়ে ৫ হাজার টাকা লুট করে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় ব্যাংক কর্তৃপক্ষ ওসমানীনগর থা’নায় অ’জ্ঞাত ৪ জনকে আ’সামি করে মা’মলা করেন।

ঘটনার ত’দন্তে সিলেট জে’লা গোয়েন্দা পু’লিশের একাধিক টিম মাঠে নামে। ছায়া ত’দন্ত শুরু করে ঢাকা মেট্রোপলিটন পু’লিশের (ডিএমপি) গোয়েন্দা শাখার একটি দলও।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, পু’লিশ সুপার ফরিদ উদ্দিনের তত্ত্বাবধানে জে’লা গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) অফিসার ইনচার্জ (উত্তর) সাইফুল আলম ও অফিসার ইনচার্জ (দক্ষিণ) ইকতিয়ার উদ্দিনের সমন্বয়ে একটি বিশেষ টিম সিলেটের বিভিন্ন স্থানে অ’ভিযানে নামে। ২০ থেকে ২২ সেপ্টেম্বর টানা তিনদিন হবিগঞ্জ শহরের একাধিক স্থানে অ’ভিযান চালানো হয়।

গতকাল বুধবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে হবিগঞ্জ জে’লার সদর থা’নাধীন পাঁচপাড়িয়া গ্রাম থেকে সাফি উদ্দিন জাহিরকে (৩৮) গ্রে’প্তার করা হয়। জাহির পাঁচপাড়িয়া গ্রামের মমতাজ উদ্দিন মাস্টারের ছে’লে। তার দেওয়া তথ্য অনুসারে ঘটনায় ব্যবহৃত একটি পালসার মোটরসাইকেল জ’ব্দ করা হয়। এছাড়া ঘটনাস্থলের পাশ থেকে বুথের মেশিন ভাঙার শাবল উ’দ্ধার করে জ’ব্দ করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে জে’লা পু’লিশের ঊর্ধ্বতন কর্মক’র্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  • 53
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    53
    Shares
নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: