সর্বশেষ আপডেট : ৪ ঘন্টা আগে
মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ১৩ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

ভারতে তিন তালাকের বিরুদ্ধে জয়ী হওয়া সেই ‌আইনজীবীই ভুয়া!

ভা’রতে ব্যাপক আ’লোচিত-সমালোচিত তিন তালাক প্রথার বি’রুদ্ধে আইনি ল’ড়াই করা বিজেপি নেত্রী নাজিয়া এলাহিকে গ্রে’প্তার করেছে পু’লিশ। তার বি’রুদ্ধে অ’ভিযোগ তিনি আইনজীবীই নন!

আনন্দবাজার পত্রিকার খবরে বলা হয়, মিথ্যা আইনজীবী পরিচয় দিয়ে বিভিন্ন ব্যক্তির থেকে মা’মলা লড়ার জন্য টাকা নিয়েছেন নাজিয়া। কিন্তু সেই মা’মলা আর লড়েননি। বৃহস্পতিবার নাজিয়াকে গ্রে’প্তার করে গিরিশ পার্ক থা’নার পু’লিশ।

খবরে বলা হয়, নাজিয়া নিজেকে আইনজীবী হিসেবে দাবি করলেও তার কাছে এমন কোনও প্রমাণ মেলেনি। নাজিয়ার যোগদানের সময় বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ এবং প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরীও হাজির ছিলেন। তবে এই গ্রে’প্তার নিয়ে আপাতত চুপ থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিজেপি।

পু’লিশের বরাত দিয়ে আনন্দবাজারের খবরে বলা হয়, সঞ্জীব আগরওয়াল নামে এক ব্যক্তি অ’ভিযোগে জানান, বিবাহ বিচ্ছেদের মা’মলা লড়ার জন্য তার থেকে ৬ লক্ষ টাকা নিয়েছিলেন নাজিয়া। কিন্তু মা’মলা লড়েননি। এরপর ২০২০ সালে গিরিশ পার্ক থা’নায় অ’ভিযোগ দায়ের করেন ওই ব্যক্তি। ত’দন্তে নেমে বার কাউন্সিল, বার অ্যাসোসিয়েশনকে চিঠি পাঠায় পু’লিশ। সেখান থেকেই পু’লিশ নিশ্চিত হয় যে, নাজিয়ার আইনজীবী পরিচয় সঠিক নয়।

ভা’রতীয় সংবাদমাধ্যম নিউজ এইটিন জানায়, তিন তালাক প্রথাকে অ’বৈধ ঘোষণা করার ভা’রতজুড়ে আ’ন্দোলনের অন্যতম মুখ ছিলেন ইশরাত জাহান ও তার ‘আইনজীবী’ নাজিয়া এলাহি। তিন তালাক প্রথার বি’রুদ্ধে রাজপথে আ’ন্দোলনের পাশাপাশি আইনজীবী হিসেবেও ল’ড়াই করেন নাজিয়া। এক্ষেত্রে তিনি সফলতাও পান। তার পক্ষেই রায় দেয় ভা’রতীয় আ’দালত। আ’দালতের মাধ্যমে ভা’রতে তিন তালাক অ’বৈধ ঘোষণা করা হয়।

পরে ইশরাত ও নাজিয়া দুজনই বিজেপিতে যোগ দেন। বিজেপির দলীয় পতাকা তুলে দেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তাদের সঙ্গে বিজেপিতে যোগ দেন আরও দেড়শতাধিক মু’সলিম নারী।

নাজিয়া ইস্যুতে নীরব বিজেপি

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস জানায়, ২০১৮ সালে বিজেপির পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ ও দেবশ্রী চৌধুরীর হাত ধরে বিজেপিতে যোগ দেন নাজিয়া। কিন্তু নাজিয়া গ্রে’প্তারের খবরে নীরবতা বজায় রেখেছে বিজেপি।

বিজেপির মুখপাত্র শমীক ভট্টাচার্য সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, ‌অনেকেই বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। সবাইকে আমি চিনি না।’

নাজিয়াকে তিনি না চিনতে পারলেও বিজেপির লিগ্যাল ও মজদুর সেলের নেত্রী হিসাবে পরিচিত নাজিয়া। বিভিন্ন কর্মসূচিতে দলের সদর দফতরে তাকে দেখা গিয়েছে। তার ফেসবুক পেজে একাধিক নেতা-নেত্রীর সঙ্গে ছবি রয়েছে।

যে কারণে তিন তালাক অ’বৈধ ঘোষণা করা হয়

ভা’রতীয় সংবাদমাধ্যম নিউজ এইটিনের খবরে বলা হয়, ২০১৫ সালে হঠাৎ দুবাই থেকে ফোন করে পনের বছরের বিবাহিত জীবনে ইতি টানেন ইশরাতের স্বামী মোহম্ম’দ মোর্তা’জা আনসারি। ফোনে তিন তালাক বলে জানিয়ে দেন, তিনি অন্য একজনকে বিয়ে করতে চলেছেন। পর পর তিন মে’য়ে জন্মানোয় দুবাইয়ে কর্ম’রত মোর্তা’জা আস্তে আস্তে ইশোতের থেকে দূরে সরে যাচ্ছিলেন। ১৫ বছরের দাম্পত্য জীবনে ফাটল বড় হতে শুরু করেছিল। মাঝে মধ্যেই ফোনে ঝগড়া হত। ছে’লে জায়েদ জন্মানোর পরপরেও সে ফাটল জোড়া লাগেনি। মোর্তা’জা হু’মকি দিতেন ফের বিয়ে করার।

একদিন ফোনে এ রকম ঝগড়ার মাঝেই পর পর তিনবার তালাক বলে ইশরতকে বর্তমান থেকে প্রাক্তন স্ত্রী’ করে দেন মোর্তা’জা। শুধু তিন তালাক বলেই থেমে থাকেননি মোর্তা’জা। ইশরাত পরে অ’ভিযোগ করেছিলেন, মোর্তা’জা দুবাই থেকে ফিরে তাদের চার সন্তানকে ইশরাতের থেকে কেড়ে নেন। তাদের নিয়ে বিহারের গ্রামে গিয়ে আবার একটা বিয়ে করেন।

এক পর্যায়ে ‘আইনজীবী’ নাজিয়া ইলাহির শরণাপন্ন হন ইশরাত। শুরু হয় আইনি লড়াই।

একদিকে আইনি লড়াই ও অন্যদিকে রাজপথে আ’ন্দোলন দুটো করেছেন তারা সমানতা’লে। এ সময় বিজেপি তাদের সম’র্থন জানায়। এক পর্যায়ে ভা’রতের আ’দালতে তিন তালাক অ’বৈধ ঘোষণা করা হয়।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  • 227
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    227
    Shares

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: