সর্বশেষ আপডেট : ১৪ ঘন্টা আগে
মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪ খ্রীষ্টাব্দ | ৩ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

বিদেশিদের আকৃষ্ট করতে শর্ত শিথিল করল মালয়েশিয়া

ডেইলি সিলেট ডেস্ক ::

মালয়েশিয়ার মাই সেকেন্ড হোমে বিদেশি আবেদনকারীদের আকৃষ্ট করতে শর্ত সহজ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। ১৪ মার্চ দেশটির উপপ্রধানমন্ত্রী দাতুক সেরি ডা. আহমদ জাহিদ হামিদি এক বিবৃতিতে মাই সেকেন্ড হোমের শর্ত সহজের সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন। তবে শর্তের সংশোধন জাতীয় নিরাপত্তার সঙ্গে আপস করবে না বলেও জানান তিনি।

বিবৃতির দুদিন আগে, উপ-প্রধানমন্ত্রীর সভাপতিত্বে পর্যটন ও সংস্কৃতি মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠকে বিষয়টি সিদ্ধান্ত হয়।

মাই সেকেন্ড হোমে বিদেশি নাগরিকদের আবেদনের প্রধান শর্তগুলোর মধ্যে যা সংশোধন করা হবে তা হলো ফিক্সড ডিপোজিটের পরিমাণ যা আবেদনকারীদের অবশ্যই থাকতে হবে, যা রূপা, সোনা এবং প্ল্যাটিনামের তিনটি স্তর অনুসারে পরিবর্তিত হবে।

আবেদন প্রক্রিয়া সহজ করার জন্য অভিবাসন বিভাগের সাথেও কাজ করবে সংশ্লিষ্ট বিভাগ, যেখানে সমস্ত ফর্ম পূরণ করার পর, তারা নিরাপত্তা অনুসারে যোগ্য কিনা তা নিশ্চিত করার জন্য আবেদনটি তিন কার্যদিবসের মধ্যে যাচাই করা হবে।

সংশোধিত শর্তের অধীনে, আবেদনকারীরা ১০ বছরের আগে তাদের সম্পত্তি পুনরায় বিক্রি করতে পারবেন না এবং তাদের ভিসা প্রতি পাঁচ বছর পর পর নবায়ন করতে হবে। সরকার আবেদনকারীদের, সন্তানদের জন্য তাদের পছন্দের স্কুল বেছে নেওয়ার সুবিধা দেবে। সরকার যা করছে তা হল জাতীয় নিরাপত্তার সাথে আপস না করে বিদ্যমান ব্যবস্থার উন্নতি করা।

এ ছাড়া যারা ফরেস্ট সিটির জন্য (সম্পত্তি) আবেদন করছেন তাদের ক্ষেত্রেও একই নিয়মে শর্তগুলো সহজ করা হবে। উপপ্রধানমন্ত্রী আহমদ জাহিদ আশা প্রকাশ করেন, পর্যটন, শিল্প ও সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় এবং স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় অবিলম্বে আরও মাই সেকেন্ড হোমে আবেদনকারীদের আকৃষ্ট করার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেবে বলে আহমদ জাহিদ যোগ করেন।

১২ মার্চ, পর্যটন, শিল্প ও সংস্কৃতিমন্ত্রী দাতুক সেরি টিয়ং কিং সিং সংসদে বলেছিলেন, আরও বিদেশি নাগরিক মাই সেকেন্ড হোম প্রোগ্রামে যোগ দেবেন বলে আশা করা হচ্ছে। কারণ সরকার কিছু প্রয়োজনীয়তা শিথিল করার দিকে নজর দিয়েছে।

গত বছরের বাজেট ২০২৪ ঘোষণার সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ যেখানে পুত্রজায়া (সরকার) প্রোগ্রামটিকে আরও আকর্ষণীয় এবং প্রতিযোগিতামূলক করতে চায়। জাতীয় নিরাপত্তা বজায় রাখার জন্য, আবেদনকারীদের নিজেদের এবং তাদের নির্ভরশীলদের, তাদের জন্মস্থান বা বর্তমান বসবাসের দেশের কর্তৃপক্ষ দ্বারা জারি করা এবং যাচাই করা ভাল আচরণের একটি শংসাপত্র জমা দিতে হবে বলেও যোগ করেন টিওং।

টিওং বলেছেন, এই বছরের ৩১ জানুয়ারী পর্যন্ত, ৫৬,০৬৬ সক্রিয় মাই সেকেন্ড হোম পাস হোল্ডার রয়েছে। যার মধ্যে পার্টিসিপেন্ট পাস হোল্ডার ২৭,৭৫৯ এবং নির্ভরশীল ২৮,৩০৭ রয়েছে।

এর মধ্যে চীন মোট ২৪,৭৬৫ ধারক নিয়ে তালিকার শীর্ষে রয়েছে। এর পরে দক্ষিণ কোরিয়া ৪,৯৪০, জাপান ৪,৭৩৩, বাংলাদেশ ৩,৬০৪, যুক্তরাজ্য ২,২৩৪, তাইওয়ান ১,৬১১, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ১,৩৪০ রয়েছে। সিঙ্গাপুর ১,২৮২, ভারত ১,২২৩ এবং অস্ট্রেলিয়া ১,০৬৯।

মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, মাই সেকেন্ড হোম প্রোগ্রামটি ২০০২ সালে চালু করেছিল মালয়েশিয়া সরকার। যার মাধ্যমে বিদেশিদের সম্পত্তি কিনতে এবং মালয়েশিয়ায় একটি বর্ধিত সময়ের জন্য বসবাস করার অনুমতি দেয়।

মালয়েশিয়া মাই সেকেন্ড হোম (এমএমটুএইচ) প্রোগ্রামে ২০১৮ সালে ৫ হাজার ৬১০টি এবং ২০১৯ সালে ৩ হাজার ৯২৯টি আবেদন অনুমোদিত হয়। যদিও এই প্রোগ্রামটি ২০২০ সালের আগস্টে সাময়িক বন্ধ করা হয়েছিল। এর পর ২০২১ সালের অক্টোবর থেকে প্রায় ১ হাজার ৪৬৮টি আবেদন অনুমোদন দেওয়া হয়েছিল।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Comments are closed.

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: