সর্বশেষ আপডেট : ১ ঘন্টা আগে
সোমবার, ২৭ জুন ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১৩ আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

বিপদজনক কুশিয়ারা, ৬ উপজেলায় বেড়েছে পানি

বৃষ্টিপাত থামায় সিলেটের সুরমা, ধলাই, পিয়াইন, সারি ও লো’ভা তীরবর্তী উপজে’লাগুলোতে ব’ন্যা পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হলেও এবার ভ’য়ঙ্কর হয়ে ওঠেছে কুশিয়ারা নদী। ভা’রতের আসামের পাহাড়িএলাকায় বৃষ্টিপাত হওয়ায় বেড়েই চলছে কুশিয়ারার পানি।

কুশিয়ারা নদীর ডাইকের বিভিন্ন স্থানে দেখা দিয়েছে ভাঙন। ভাঙন ও ডাইক উপচে পানি ঢুকে জে’লার ছয়টি উপজে’লার ব’ন্যা পরিস্থিতির অবনতি ঘটেছে।

উপজে’লাগুলোর মধ্যে রয়েছে- জকিগঞ্জ, ফেঞ্চুগঞ্জ, বিয়ানীবাজার, বালাগঞ্জ, ওসমানীনগর ও গো’লাপগঞ্জ।

এদিকে, পানিবন্দী মানুষকে উ’দ্ধারে এখনো সে’নাবাহিনী, নৌবাহিনী, কোস্টগার্ড, পু’লিশ ও বিজিবি কাজ করে যাচ্ছে।
জানা গেছে, দুদিন ধরে কুশিয়ারা নদীর পানি বৃদ্ধি পাচ্ছিল ধীরগতিতে। কিন্তু গত রবিবার থেকে অস্বাভাবিক গতিতে পানি বৃদ্ধি পাওয়া শুরু হয়। ফলে রবিবার থেকে সোমবার (১৯-২০ জুন) পর্যন্ত কুশিয়ারা তীরবর্তী উপজে’লাগুলোর বিভিন্ন স্থানে ভাঙন দেখা দেয়।

এক মাসের পূর্বের ব’ন্যার সময় যেসব স্থানে ভাঙন দেখা দিয়েছিল, তার পাশাপাশি নতুন নতুন স্থানে ভাঙন দেখা দেয়। এছাড়া বিভিন্ন স্থানে ডাইকের উপর দিয়ে পানি লোকালয়ে প্রবেশ করা শুরু করেছে। ফলে কুশিয়ারা তীরবর্তী উপজে’লাগুলোতে লাখ লাখ মানুষ পানিব’ন্দি হয়ে পড়েছেন। এসব উপজে’লাগুলোতে ব’ন্যা পরিস্থিতির চরম অবনতি ঘটেছে। কুশিয়ারা তীরবর্তী জকিগঞ্জ উপজে’লায় ব’ন্যা পরিস্থিতি ভ’য়াবহ রূপ ধারণ করেছে।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের তথ্যমতে- সোমবার সন্ধ্যা পর্যন্ত উপজে’লার ৩৯টি স্থান দিয়ে পানি প্রবেশ করছিল। এরমধ্যে সবচেয়ে বেশি ভাঙন দেখা দিয়েছে সুলতানপুর ইউনিয়নের ভক্তিপুর, সদর ইউনিয়নের রারাই, বীরশ্রীর সুপ্রাকান্দি, কাজলসারের বড়বন্দ এলাকায়। বর্তমানে উপজে’লার লাখো মানুষ পানিবন্দী অবস্থায় রয়েছেন। পানিবৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় নতুন করে আরও ভাঙনের আশ’ঙ্কা করছেন স্থানীয়রা।

ফেঞ্চুগঞ্জে কুশিয়ারা নদী ও তীরবর্তী এলাকা পানিতে একাকার হয়ে গেছে। বানের পানিতে ফেঞ্চুগঞ্জ উপজে’লা সদরসহ ৬০ শতাংশ এলাকা প্লাবিত হয়েছে। বালাগঞ্জ উপজে’লার অবস্থাও একই। কুশিয়ারা নদীর ডাইক ভেঙে ও উপর দিয়ে পানি প্রবেশ করে প্লাবিত হয়েছে বাড়িঘর, হাটবাজার ও রাস্তাঘাট।

ব’ন্যার পানিতে তলিয়ে গিয়ে বালাগঞ্জ-খছরুপুর ও ফেঞ্চুগঞ্জ-বালাগঞ্জ সড়ক দিয়ে যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। জে’লা সদরের সাথে এখনো বিয়ানীবাজার উপজে’লার সড়ক যোগাযোগ ঠিকে থাকলেও যে কোন সময় তা বিচ্ছিন্ন হওয়ার আশ’ঙ্কা করছেন স্থানীয়রা।

সোমবার সারাদিন উপজে’লার ব’ন্যাকবলিত এলাকায় পানি বৃদ্ধির পাশাপাশি নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হয়েছে। উপজে’লার চারখাই, আলীনগর, শেওলা, দুবাগ, কুড়ারবাজার ও থা’নাবাজারসহ বিভিন্ন এলাকা পানিতে তলিয়ে গেছে। উপেজে’লার লাখো মানুষ পানিব’ন্দি হয়ে পড়েছেন।

ওসমানীনগর উপজে’লার ব’ন্যা পরিস্থিতিও ভ’য়াবহ হয়ে ওঠেছে। উপজে’লার গোয়ালাবাজার, তাজপুর, দয়ামীর, বুরঙ্গা, সাদিপুর, পশ্চিম পৈলনপুর, উসমানপুর ও উম’রপুর ইউনিয়নের পুরোটাই পানিতে তলিয়ে গেছে। কুশিয়ারা নদীর পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় সময় সময় ব’ন্যা পরিস্থিতিরও অবনতি ঘটছে।

গো’লাপগঞ্জ উপজে’লার সুরমা তীরবর্তী বাঘাসহ কয়েকটি ইউনিয়নে ব’ন্যা পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হয়েছে। তবে কুশিয়ারা তীরবর্তী এলাকায় অবনতি হয়েছে। উপজে’লার শরীফগঞ্জ, বাদেপাশা, ঢাকাদক্ষিণ, আমুড়া ও ভাদেশ্বর ইউনিয়নে ব’ন্যা পরিস্থিতির বেশ অবনতি হয়েছে। পানি বৃদ্ধি পেয়ে কুশিয়ারা তীরবর্তী ইউনিয়নগুলোর নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

এদিকে, সুরমা তীরবর্তী সিলেট নগরী, সদর, বিশ্বনাথ ও কানাইঘাট উপজে’লার ব’ন্যা পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হয়েছে। সিলেট নগরীর উঁচু এলাকা থেকে পানি নেমে গেছে। নদী তীরবর্তী এলাকায় এখনো লাখো মানুষ পানিব’ন্দি রয়েছেন।

বাকি উপজে’লাগুলোতেও লাখ লাখ মানুষ পানিবন্দী অবস্থায় দিনাতিপাত করছেন। ধলাই, পিয়াইন, সারি ও লো’ভা নদীর পানি কমায় জে’লার কোম্পানীগঞ্জ, গোয়াইনঘাট ও জৈন্তাপুর উপজে’লার ব’ন্যা কবলিত এলাকার পানি কিছুটা কমেছে। তবে পানি কমা’র গতি খুবই ধীর বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা। এই তিন উপজে’লার এখনো ৯০ ভাগ এলাকা প্লাবিত রয়েছে।

সোমবার সন্ধ্যা ৬টায় কুশিয়ারা নদীর পানি আমলসীদ পয়েন্টে বিপৎসীমা’র ১৮৬ সেন্টিমিটার, শেওলায় ৬৭ সেন্টিমিটার, ফেঞ্চুগঞ্জে ৮ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিল। সুরমা নদীর পানি সকল পয়েন্টে বিপৎসীমা’র উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: