সর্বশেষ আপডেট : ৪ মিনিট ৮ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ১১ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

ডেল্টার পর কি এবার ডেল্টা প্লাস? পশ্চিমবঙ্গে একজনের শনাক্ত

করোনার ভারতীয় ধরন বিশ্বব্যাপী ‘ডেল্টা’ হিসেবে পরিচিত। এ ডেল্টা করোনার সবচেয়ে ভয়াবহ ও সংক্রমণ ক্ষমতাসম্পন্ন ধরন হিসেবে ইতোমধ্যে বিশ্বব্যাপী স্বীকৃতি পেয়েছে। এবার কি নতুন আতঙ্ক হয়ে আসছে ‘ডেল্টা প্লাস’? ইতোমধ্যে পশ্চিমবঙ্গে একজনের দেহে ডেল্টা প্লাস ধরন শনাক্ত হয়েছে। খবর আনন্দবাজার অনলাইনের।

ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের এক প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছিল, পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যে ডেল্টা প্লাস-এ আক্রান্ত হয়েছেন তিনজন। তবে রাজ্য সরকার বলছে, তিনজন নয়, একজন ডেল্টা প্লাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের স্বাস্থ্য বিষয়ক এক কর্মকর্তা বলেন, ‘করোনার ডেল্টা রূপের একটি তাৎপর্য্যহীন প্রকারভেদ হল এওয়াই ডট থ্রি। একে তথাকথিত ডেল্টা প্লাস গ্রুপের অন্তর্গত করা হয়েছে। রাজ্যে এ যাবৎ ওই প্রকারভেদের একটি মাত্র সংক্রমণের ঘটনাই ধরা পড়েছে।’

ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের দেয়া তথ্যে জানা যায়, দেশটিতে গত ৯ আগস্ট পর্যন্ত সব মিলিয়ে ৮৬ জন সংক্রমিত হয়েছেন ডেল্টা প্লাস-এ। এর মধ্যে মহারাষ্ট্রে সংক্রমণের সংখ্যা সব চেয়ে বেশি। সেখানে ৩৪ জন ডেল্টা প্লাস-এ আক্রান্ত হয়েছেন।

এ ছাড়া মধ্যপ্রদেশে ১১, তামিলনাড়ুতে ১০, চণ্ডীগড়ে ৪ এবং পশ্চিমবঙ্গে ৩ জন ডেল্টা প্লাসে আক্রান্ত বলে জানানো হয় ভারতের কেন্দ্রের এক প্রতিবেদনে। এর প্রতিক্রিয়ায় পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের তরফে দাবি করা হয়েছে, তিন জনের ডেল্টা প্লাস সংক্রমণ ধরা পড়েছে বলে একটি রিপোর্টে ‘বিভ্রান্তি’ ছড়িয়েছে। ১৭ জুলাই পর্যন্ত পাওয়া রিপোর্ট বলছে রাজ্যে এ রূপের একটি মাত্র ঘটনাই ধরা পড়েছে। সূত্র: বাংলাদেশ জার্নাল

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  • 2
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    2
    Shares

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: