সর্বশেষ আপডেট : ৩ ঘন্টা আগে
শনিবার, ২ মার্চ ২০২৪ খ্রীষ্টাব্দ | ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

একমঞ্চে আইভী-শামীম, ঐক্যবদ্ধভাবে কাজের আশ্বাস

ডেইলি সিলেট ডেস্ক ::

নারায়ণগঞ্জবাসীর বিভিন্ন নাগরিক সমস্যা নিরসনের লক্ষ্যে নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান ও সিটি করপোরেশনের মেয়র সেলিনা হায়াত আইভী এক গোলটেবিল বৈঠক করেছেন। এ সময় তারা দু’জনই উপস্থিত জনসাধারণকে একসঙ্গে কাজ করার আশ্বাস দেন। ফলে নারায়ণগঞ্জে অর্ধশত বছরের দুই মেরুর বিরোধ মিটছে বলে সংশ্লিষ্টরা মনে করছেন।

শনিবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের উদ্যোগে এ গোলটেবিল বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এই আয়োজনে নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য সেলিম ওসমান অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছেন।

নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সভাপতি আরিফ আলম দিপুর সভাপতিত্বে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক মাহমুদুল হক, ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার আমির খসরু, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান চন্দন শীল, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ট্রাফিক রুহুল আমিন সাগর ও বিআরটিএ’র সহকারী পরিচালক সামসুল কবির। স্বাগত বক্তব্য রাখেন প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম জীবন।

এসময় বিরোধ অবসানের ঘোষণা দিয়ে শামীম ওসমান বলেন, দুই ভাই-বোন এক টেবিলে বসে অতীতের সব বিভেদ ভুলে ঐক্যবদ্ধ হয়ে স্মার্ট নারায়ণগঞ্জ গড়তে চাই। আমাদের পুরো নারায়ণগঞ্জে সমস্যা। এই নারায়ণগঞ্জ আমাদের, বাংলাদেশ আমাদের। আমরা সব জায়গা নিয়েই কথা বলব। ছোট বোন মেয়র আইভীর সব ভালো কাজের সহযোগিতা করব। যানজট, হকারমুক্ত শহর গড়তে আমরা কোনো আর বিভেদ চাই না।

তিনি বলেন, শহরে সিএনজি ও অটোরিকশা চলছে। কিন্তু এই অটোরিকশার ব্যাটারি চার্জের কারণে ৫ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ নষ্ট হয়। এরা কিন্তু বিদ্যুৎ বিল দিচ্ছে না। তারা বিল না দিয়ে চলছে, গাড়ি চালাচ্ছে। ওরা দয়ায় চলছে না, কেউ না কেউ টাকা খাচ্ছে তাদের কাছ থেকে। বিআরটিএ’র পারমিশন ছাড়া কোনো গাড়ি চলতে দেয়া উচিত না।

অপরদিকে, মেয়র আইভী বলেন, মনে অনেক দুঃখ-কষ্ট থাকলেও পজিটিভ নারায়ণগঞ্জ গড়তে নাগরিকদের স্বার্থে অতীতের সব কিছু ভুলে আমি একসঙ্গে কাজ করতে চাই। একটি মহল আমাদের মধ্যে ভুল বুঝাবুঝির সৃষ্টি করে ফায়দা লুটেছে। এ অবস্থার অবসানের জন্য সবকিছু ভুলে দুই এমপির সহায়তা নিয়ে পজিটিভ নারায়ণগঞ্জ সিটি গড়ে তুলতে চাই।

নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য সেলিম ওসমান বলেন, নারায়ণগঞ্জের সমস্যার শেষ নেই। আজকে আমরা উঠে গেলাম আর সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে এমনটা নয়। প্রশাসনকে প্রশাসনের মতো কাজ করতে হবে। এখানে কোনো রাজনীতি থাকবে না। রাজনীতি একটাই, নারায়ণগঞ্জের মানুষকে শান্তিতে চলাচল করতে দিতে হবে। আমরা মেয়রকে অবশ্যই সহযোগিতা করব। আমরা করোনার সময়ও করেছি। আমরা স্কুল করেছি, কিন্তু বাচ্চারা স্কুলে যায় কিনা খবর রাখতে পারি না।

নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক মাহমুদুল হক বলেন, আমি এতদিন সিদ্ধান্ত নিতে দ্বিধায় ছিলাম। জনপ্রতিনিধিরা আমাকে সাহস যুগিয়েছে। আগামীকাল থেকে প্রশাসন তার কাজ শুরু করবে। আগামী ১৫ ফেব্রুয়ারির মধ্যে নারায়ণগঞ্জের দৃশ্যমান কিছু সমস্যার সমাধান আমরা অবশ্যই করব। আমাদের সংসদ সদস্যরা সবাই সুন্দর নারায়ণগঞ্জ চাচ্ছেন। আমি প্রকাশ্যে ঘোষণা করছি, আগামীকাল থেকে রুট পারমিট ছাড়া গাড়ি দেখলেই ডাম্পিংয়ে দিয়ে দেব। রুট পারমিট ছাড়া কোনো গাড়ি নারায়ণগঞ্জে ঢুকবে না।

তিনি বলেন, আমাদের কঠোর হওয়া ছাড়া উপায় নেই। আমরা অটোরিকশা তৈরির কারখানাগুলোই বন্ধ করে দেব। নারায়ণগঞ্জের কতজন হকার আছে এটা আমাদের দেখতে হবে। নারায়ণগঞ্জ শহরসহ সব ফুটপাত থেকে অবৈধ হকারদের উচ্ছেদের কাজ রোববার থেকেই প্রশাসন শুরু করবে। তবে বাইরের জেলার লোক এসে রাস্তা দখল করে বিজনেস করবে এটা হতে দেয়া যাবে না।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Comments are closed.

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: