সর্বশেষ আপডেট : ৩ ঘন্টা আগে
শনিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

আজ বিজয়া দশমী : মণ্ডপে মণ্ডপে বিদায়ের সুর

স্টাফ রিপোর্টার ::

শারদীয় দুর্গোৎসবের বিজয়া দশমী আজ। হিন্দু সম্প্রদায়ের পাঁচ দিনের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে আজ শেষ হবে । বিজয়া দশমী উপলক্ষে আজ সরকারি ছুটি।

বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনায় হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা গতকাল মঙ্গলবার উদযাপন করেছেন মহানবমী পূজা। দিনভর সিলেট নগরের পূজা মণ্ডপগুলোয় ছিল ভক্ত-দর্শনার্থীদের ঢল। মণ্ডপে মণ্ডপে ভক্তরা দিয়েছেন অঞ্জলি ও ভোগ। নবমী পূজা ও সন্ধ্যা আরতি শেষে বাজতে শুরু করেছে বিদায়ের সুর।

আজ বুধবার বিজয়া দশমীতে বিদায় নেবেন দুর্গা। প্রতিমা বিসর্জনের মাধ্যমে শেষ হবে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের পাঁচ দিনের দুর্গাপূজার আনুষ্ঠানিকতা।

হিন্দু সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা শুরু হয় গত রোববার। টানা পাঁচ দিনের আনন্দ উৎসবের পর আজ বিজয়া দশমীর দিন দেবী বিসর্জনের মাধ্যমে শেষ হবে এই আয়োজন।

গতকাল মহানবমীর সন্ধ্যায় আরতি শেষে দেবীর বন্দনায় প্রতিটি পূজামণ্ডপে বিষাদের সুর বাজতে শুরু করে। তার আগে সকালে কল্পারম্ভ ও বিহিতপূজার মাধ্যমে শুরু হয় নবমীর আনুষ্ঠানিকতা। পূজা শেষে ভক্তরা দেবীর চরণে পুষ্পাঞ্জলি নিবেদন করেন। দিনভর চলে চণ্ডীপাঠ আর ভক্তদের কীর্তন-বন্দনা।

হিন্দুশাস্ত্র মতে, নবমী তিথিতে রাবণবধের পর শ্রী রামচন্দ্র এই পূজা করেছিলেন। নীলকণ্ঠ ফুল যজ্ঞের মাধ্যমে অনুষ্ঠিত হয় নবমী বিহিতপূজা। নবমী পূজার মাধ্যমে সম্পদ লাভ হয় মানবকুলে। তাই শাপলা, শালুক ও বলিদানের মাধ্যমে পূজা হয়েছে দশভুজা দেবীর। নীল অপরাজিতা ফুল নবমী পূজার বিশেষ অনুষঙ্গ। নবমী পূজায় যজ্ঞের মাধ্যমে দেবী দুর্গার কাছে আহুতি দেওয়া হয়। ১০৮টি বেলপাতা, আম কাঠ ও ঘি দিয়ে এই যজ্ঞ করা হয়।

গতকাল সিলেট নগরের বিভিন্ন মণ্ডপে পূজা শেষে অনুষ্ঠিত হয় অঞ্জলি ও প্রসাদ বিতরণ। সবকটি মণ্ডপে দেওয়া হয় কয়েক দফা পুষ্পাঞ্জলি। বিদায় বেলায়ও চলেছে ঢাক আর শঙ্খধ্বনি, টানা মন্ত্রপাঠ, উলুধ্বনি, অঞ্জলি, সঙ্গে ধুনচি নৃত্য। সন্ধ্যায় আরতির পাশাপাশি মণ্ডপগুলোতে অনুষ্ঠিত হয়েছে আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এসব অনুষ্ঠান উপভোগ করতে মন্দির ও মণ্ডপে ছিল ভক্ত-দর্শনার্থীর উপচে পড়া ভিড়।

এদিকে নগরীসহ সিলেটের সবকটি পূজা মণ্ডপের নিরাপত্তায় পুলিশ, আনসার, র‌্যাবসহ অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা দায়িত্ব পালন করছে। প্রতিটি পূজামন্ডপে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা বেষ্টনী নির্মাণসহ ম-পে কার্ডধারী নিজস্ব স্বেচ্ছাসেবক দিয়ে ২৪ ঘণ্টা তদারকি ও পাহারার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

বিজয়া দশমীতে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের মধ্যে অন্যরকম আবেগ ও মন খারাপ করা এক অনুভূতির সৃষ্টি হয়। কারণ, দশমী মানেই দুর্গা মায়ের ফিরে যাওয়া। অপেক্ষায় থাকতে হবে আরো একটি বছর।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: