সর্বশেষ আপডেট : ১০ ঘন্টা আগে
বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ খ্রীষ্টাব্দ | ১৭ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

৬০ জন ধারণ ক্ষমতার নৌকায় উঠেছিল ২০০, পাড়ে স্বজনদের মাতম

পঞ্চগড়ের বোদা উপজে’লায় করতোয়া নদীতে নৌকাডুবির ঘটনায় এখন পর্যন্ত ২৪ জনের লা’শ উ’দ্ধারের তথ্য নিশ্চিত করেছে জে’লা প্রশাসন। মৃ’তদের মধ্যে ১৭ জনের লা’শ নদী থেকে উ’দ্ধার হয়। বাকিদের হাসপাতা’লে নেওয়ার পর মৃ’ত্যু হয়। এদের মধ্যে ১২ শি’শু রয়েছে।

ঘটনার পর পর ঘটনাস্থল উপজে’লার মাড়েয়া বামনহাট ইউনিয়নের আউলিয়া ঘাট এলাকায় শত শত মানুষ ভিড় করেন। এদের মধ্যে হতাহতদের অনেক স্বজনও আছেন।

সরেজমিন দেখা যায়, নদীর পাড়ে জড়ো হওয়া হতাহতদের স্বজনরা আহ’জারি করছেন। তাদের মাতমে নদীর পাড়ে এক হৃদয়বিদারক দৃশ্যের অবতারণা হয়। আশপাশের পরিবেশ হয়ে উঠে ভা’রী। কেউ বোনের লা’শের সামনে গড়াগড়ি দিয়ে কাঁদছেন। কেউবা আবার ভাইয়ের লা’শের সামনে মাতম করছেন। কেউ কেউ নি’খোঁজ স্বজনের খোঁজে পাগলের মতো এদিক-ওদিক দৌড়াচ্ছেন। আউলিয়া ঘাট এলাকার করতোয়া পাড়ে স্বজন হা’রানোর এই বিলাপ উপস্থিত সব মানুষকে করেছে অশ্রুসজল।

স্থানীয়রা জানান, ৫০-৬০ জন ধারণ ক্ষমতার শ্যালো ইঞ্জিনচালিত নৌকাটি ১৫০-২০০ জন যাত্রী নিয়ে আউলিয়া ঘাট থেকে বড়শশী ইউনিয়নের বদেশ্বরী মন্দিরে (নদীর অ’পরপাড়ে) যাচ্ছিল। যাত্রীদের অধিকাংশ সনাতন ধ’র্মের অনুসারী। তারা শারদীয় দুর্গোৎসবের মহালয়া উপলক্ষে ওই মন্দিরে যাচ্ছিলেন। তিন গুণের বেশি যাত্রী নিয়ে যাত্রার কিছুদূর যাওয়ার পরই দুই দিকে দুলতে থাকে নৌকাটি। এ সময় মাঝি নৌকাটি তীরে ভেড়ানোর চেষ্টা করেন। কিন্তু তার সে চেষ্টা ব্যর্থ হয়। আতঙ্কিত যাত্রীদের হুড়াহুড়িতে নৌকাটি ডুবে যায়।

এই নৌকাডুবি থেকে বেঁচে আসা এক যাত্রী হলেন মাড়েয়া বামনপাড়া এলাকার সুবাস চন্দ্র রায়। তিনি বলেন, আমিও নৌকায় ছিলাম। নৌকায় দেড়শরও বেশি যাত্রী ছিল। আম’রা নৌকায় উঠার পরপরই নৌকায় পানি ঢুকতে শুরু করে। এ সময় মানুষজন নৌকার মধ্যেই হুড়াহুড়ি শুরু করেন। পরে যে পাশেই যাচ্ছিলাম, সেপাশেই নৌকায় পানি ঢুকছিল। আম’রা পাঁচজন বন্ধু ছিলাম। কোনোমতে সাঁতার কে’টে প্রা’ণে বেঁচে যাই। অন্য যাত্রীরা একে অন্যকে জড়িয়ে ধরে বাঁ’চার আকুতি জানাচ্ছিল। সেই চরম মুহূর্তের বর্ণনা করতে পারবো না। তবে এতো মানুষ মা’রা যাবেন, তা বুঝতে পারিনি।

মাড়েয়া বামনহাট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবু আনছার মো. রেজাউল করিম সংবাদমাধ্যমকে বলেন, স্থানীয় নৌকার মাঝিদের সঙ্গে কথা বলে জেনেছি, মহালয়া উপলক্ষে মানুষের চাপ বেশি ছিল। প্রায় সব নৌকা বেশি করে যাত্রী নিয়ে যাচ্ছিল। অ’তিরিক্ত যাত্রী তোলায় এই দুর্ঘ’টনা ঘটেছে।

ঘটনার কয়েকজন প্রত্যক্ষদর্শী জানান, মহালয়া উপলক্ষে সকাল থেকেই ঘাটে মানুষের ভিড় ছিল। ছোট ছোট নৌকাগুলো অ’তিরিক্ত যাত্রী নিয়ে চলাচল করছিল। অ’তিরিক্ত যাত্রীর কারণে মাঝ নদীতে নৌকাটি উল্টে যায়। যারা সাঁতার জানতেন তারা সাঁতরে তীরে উঠতে পারলেও, নৌকায় থাকা নারী-শি’শু পানিতে ডুবে যায়। ঘটনার পর লোকজন ছুটে এসে উ’দ্ধার তৎপরতা শুরু করেন। অনেককে উ’দ্ধারও করেন তারা। এরপর স্থানীয় প্রশাসন ও ফায়ার সার্ভিসকে খবর দেওয়া হয়। খবর পেয়ে সবাই এসে উ’দ্ধার তৎপরতা শুরু করেন।

এই ব্যাপারে জে’লা প্রশাসক মো. জহুরুল ইস’লাম বলেন, খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই আম’রা ঘটনাস্থলে যাই। এখনো উ’দ্ধারকাজ চলছে। ঘটনা ত’দন্তে ৫ সদস্যের ত’দন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। এ ছাড়া নি’হত প্রত্যেকের পরিবারকে ২০ হাজার টাকা করে তাৎক্ষণিক প্রদান করা হচ্ছে। এ ঘটনায় একটি তথ্যকেন্দ্র খোলা হয়েছে। আশ’ঙ্কা করা হচ্ছে আরও ম’রদেহ উ’দ্ধার হতে পারে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Comments are closed.

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: