সর্বশেষ আপডেট : ১ ঘন্টা আগে
মঙ্গলবার, ১৬ অগাস্ট ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১ ভাদ্র ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

এমসি কলেজ ছাত্রী স্মৃতি আত্মহত্যার নেপথ্যে ‘ব্লাকমেইল’

সিলেট এমসি কলেজের ছা’ত্রী স্মৃ’তি রানী দাসের আত্মহ’ত্যার নেপথ্যে ছিলো ব্লাকমেইল।ঘটনার দুই মাস ১২ দিনের মা’থায় তার মৃ’ত্যুর জন্য দায়ী শ্যামল দাস (২১) নামে এক যুবককে গ্রে’প্তার করেছে পু’লিশ।

বৃহস্পতিবার (৪ আগস্ট) দুপুরে সিলেট নগরের জালালাবাদ আবাসিক এলাকা থেকে তাকে গ্রে’প্তার করে বিকালে জবানব’ন্দি রেকর্ডের জন্য আ’দালতে নেয় এসএমপির শাহপরান (র.) থা’নার সদস্যরা।

তিনি হবিগঞ্জ জে’লার বানিয়াচং উপজে’লার সুধাংশু দাসের ছে’লে।

এ ঘটনায় নিজের দায় স্বীকার করে আ’দালতে ১৬৪ ধারায় জবানব’ন্দি দিয়েছেন শ্যামল দাস।

সিলেট মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট ১ম আাদালতের বিচারক সাইফুর রহমান তার জবানব’ন্দি রেকর্ড করেন।

সেই জবানব’ন্দির বরাত দিয়ে আ’দালত সূত্র ও পু’লিশ জানায়,স্মৃ’তি রানী দাসের ফেসবুক ম্যাসেঞ্জার হ্যাক করে আ’পত্তিকর ছবি দিয়ে তাকে ব্লাকমেইল করে মানসিক চাপে ফেলেন শ্যামল দাস। এভাবে তার কাছ থেকে টাকা আদায় করতেন।

তবে, এ ঘটনায় স্মৃ’তিরানী আত্মহ’ত্যা করবেন তা ভাবতে পারেননি। স্মৃ’তির ছবি পাঠিয়ে তিনি বিভিন্ন সময় ম্যাসেঞ্জারে চ্যাটিং (বার্তা) পাঠাতো। সর্বশেষ তাকে বিকাশে ২৫০০ টাকা পাঠিয়েছিলেন স্মৃ’তি।

বিকাশের নম্বরের সূত্র ধরেই পু’লিশ তাকে গ্রে’প্তার করে।

শাহপরান (র.) থা’নার ভা’রপ্রাপ্ত কর্মক’র্তা (ওসি) সৈয়দ আনিসুল হক জানান, স্মৃ’তির বাবাকে বাদী করে আম’রা আত্মহ’ত্যার প্র’রোচনার মা’মলা নিয়েছি। ওই মা’মলায় শ্যামল দাসকে গ্রে’প্তার দেখিয়ে আ’দালতে তোলা হলে সে ঘটনার বিস্তারিত বর্ণনা দেয়।জবানব’ন্দি রেকর্ড শেষে বিজ্ঞ ম্যাজিস্ট্রেট তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

তিনি জানান, ম্যাসেঞ্জার হ্যাক করে স্মৃ’তি রানী দাসের ব্যক্তিগত ছবি নিজের নিয়ন্ত্রণে নেন শ্যামল দাস। এরপর স্মৃ’তি রানীকে মানসিক চাপে ফেলে টাকা আদায় করতেন। আত্মসম্মানের ভ’য়ে মে’য়েটি আত্মহ’ত্যা করেছে এমনটি ধারণা করা হচ্ছে।

তিনি আরও জানান, স্মৃ’তির মোবাইল ফোনের লক খুলতে পারলে আরও তথ্য জানা যাবে। সেটি সিআইডির মাধ্যমে এক্সপার্টদের কাছে পাঠানো হয়েছে।আপাতত ৫ দিনের ক্ষুদে বার্তা আদান-প্রদানের তথ্য ত’দন্তকারী কর্মক’র্তার সংগ্রহে রয়েছে।

প্রসঙ্গত গত ২৫ মে দুপুরে এমসি কলেজ ছা’ত্রী হোস্টেলের চার তলার ৪০৩ নং কক্ষে সিলিং ফ্যানের সঙ্গে স্মৃ’তি রানীর ঝুলন্ত ম’রদেহ উ’দ্ধার করে পু’লিশ।

তিনি হোস্টেলের ৩য় তলার ৩০৭ নং কক্ষে থাকতেন। বাড়ি কি’শোরগঞ্জ জে’লার অষ্টগ্রামে। বাবার নাম যুগল কি’শোর দাস। তিনি এমসি কলেজের ইংরেজি বিভাগের অনার্স ১ম বর্ষের ছা’ত্রী ছিলেন।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: