সর্বশেষ আপডেট : ২৫ মিনিট ৩৩ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ১৭ ফাল্গুন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

অনলাইন শপিং ও ১৪শ বছর আগের রাসুলের (সাঃ) ভবিষ্যত বাণী

তাইসির মাহমুদ:: শপিংয়ের জন্য এখন আর খুব একটা মার্কেট বা বাজারে যেতে হয়না। ঘরে বসেই সব করা যায়। গত কয়েক বছর ধরে আসদা, সেইন্সবারী, টেসকোর বাজারগুলো অনলাইনে অর্ডার করি। আজ অর্ডার করলে পরেরদিনই ঘরে ডেলিভারী চলে আসে।

তবে কিছু বাজার যেমন- মাছ, মাংস, শাক-শবজি কিনতে গ্রোসারী বা মুদি দোকানে যেতে হতো। গত ক’মাস যাবত এ জন্যও আর যেতে হচ্ছেনা । লোকাল গ্রোসারী শপে টেলিফোনে অর্ডার করলে কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই তারা ঘরে পৌছে দেন । আর পিজিক্যালী শপিং করার চেয়ে অনলাইনে অর্ডার করলে তা হয় আরো সস্তা।

এই অনলাইন শপিংয়ের বিষয়টি আজ আমাকে খানিকটা ভাবিয়ে তুললো । আজ থেকে ১৪শ বছর আগে আরবে যখন মুদ্রার প্রচলন ছিলো না, তখন একটি পণ্যের বিনিময়ে অন্য একটি পণ্য কিনে নেয়া হতো। যেমন- কেউ এক কেজি চাল দিয়ে এক লিটার দুধ কিনে নিতেন। কিংবা কারো এক লিটার দুধ আছে তিনি এই দুধের বিনিময়ে এক কেজি চাল কিনে নিতেন।

সেই সময়টাতেই আমাদের প্রফেট হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) আজকের অনলাইন শপিংয়ের কথা বলে গেছেন। তিনি বলেছেন, “ক্বেয়ামত ততক্ষন পর্যন্ত সংঘটিত হবেনা, যতক্ষন পর্যন্তনা বাজারগুলো একেবারেই (মানুষের) কাছাকাছি চলে আসবে”। (মুসনাদে আহমদ)।

আমরা যখন কোনো বড় শপিংমলে বাজার করতে যাই তখন একসাথে সবকিছুই পেয়ে যাই । যেমন স্টার্টফোর্ডের ওয়েস্টফিল্ড শপিংমলের কথাই যদি বলি। কী নাই সেখানে? শতশত সুপার মার্কেট, দোকান ঘর। আমাদের যা প্রয়োজন, যা ইচ্ছে তা-ই কিনে নিয়ে আসতে পারি। দোকানগুলো সব একই জায়গায়। এক দোকানের পাশেই আরো একটি । একটিতে শপিং শেষ করে আরো একটিতে ঢুকছি ।

ঠিক একইভাবে যেকোনো ধরনের খাবারের জন্যও আমরা অনলাইনে অর্ডার করে থাকি । সরাসরি রেস্টুরেন্টে ফোন করলে তারা আধঘণ্টার মধ্যে ঘরে পৌছে দিচ্ছেন। ‘উবার ইট’ অ্যাপস ব্যবহার করে অর্ডার দিলে ১৫ থেকে ২০ মিনিটের মধ্যে গরম গরম খাবার ঘরে পৌছে যাচ্ছে। ঘরে বসেই সবকিছু। কোনো কিছুর জন্যই আর বাজারে যেতে হয়না। বাজার এখন খুব কাছে । একেবারে হাতের মুঠোয়। তাহলে রাসুলের (সাঃ) ভবিষ্যতবাণী অনুযায়ী বাজারগুলো কি একেবারে কাছাকাছি চলে আসেনি?

১৪শ বছর আগে দেয়া রাসুল (সাঃ) এর ভবিষ্যতবাণীর কী বাস্তবতা? তাহলে বুঝতে হবে আমরা ক্বেয়ামত বা শেষদিনের খুব কাছাকাছি চলে আসছি । রাসুলের (সাঃ) ভবিষ্যতবানীগুলো একটি-একটি করে বাস্তব হতে শুরু করেছে।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: