সর্বশেষ আপডেট : ২ ঘন্টা আগে
রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪ খ্রীষ্টাব্দ | ১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

ইসরায়েলি দখলদারিত্বের বিরুদ্ধে ঐতিহাসিক শুনানি শুরু

ডেইলি সিলেট ডেস্ক ::

ফিলিস্তিনি ভূখণ্ডে বিগত ৫৭ বছর বা প্রায় ছয় দশক ধরে ইসরায়েল দখলদারিত্ব চালিয়ে আসছে। ইহুদিবাদী দেশটির আগ্রাসনের মধ্যেই এ দখলদারিত্বের বৈধতা নিয়ে জাতিসংঘের আন্তর্জাতিক ন্যায়বিচার আদালতে (আইসিজে) ঐতিহাসিক শুনানি শুরু হতে যাচ্ছে আজ। সোমবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) আন্তর্জাতিক আদালতে সপ্তাব্যাপী শুনানি শুরু হবে।

মানবাধিকার সংস্থা হিউম্যান রাইটস ওয়াচ এক বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, নেদারল্যান্ডসের দ্য হেগের আন্তর্জাতিক বিচার আদালতে (আইসিজে) টানা ছয় দিন শুনানির জন্য নির্ধারণ করা হয়েছে। এতে নজিরবিহীন সংখ্যক দেশ অংশগ্রহণ করবে। যদিও মামলাটি ইসরায়েল ও হামাস যুদ্ধের পটভূমিতে করা হয়েছে। তবে এটি পশ্চিম তীর, গাজা এবং পূর্ব জেরুজালেমে ইসরায়েলের উন্মুক্ত দখলদারিত্বের ওপর আলো ফেলবে।

এর মধ্যে ফিলিস্তিনের প্রতিনিধিরা আজ প্রথমে কথা বলবেন। তারা যুক্তি দেবেন, ইসরায়েলি দখল অবৈধ। কারণ, এটি আন্তর্জাতিক আইনের তিনটি মূলনীতি লঙ্ঘন করেছে। ফিলিস্তিনি আইনি দল বুধবার সাংবাদিকদের এ কথা জানিয়েছে।

তারা জানান, ফিলিস্তিনিদের ভূমির বিশাল অংশ দখল করে ইসরায়েল তাদের আত্মনিয়ন্ত্রণের অধিকার লঙ্ঘন করেছে এবং জাতিগত বৈষম্য ও বর্ণবাদী ব্যবস্থা আরোপ করেছে।

ফিলিস্তিনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে জাতিসংঘের সংস্থা বিভাগের প্রধান ওমর আওয়াদাল্লাহ বলেছেন, আমরা আদালত থেকে নতুন কিছু শুনতে চাই। আমরা চাই, আদালত বর্ণবাদের বিষয়টি বিবেচনা করুক। আওয়াদাল্লাহ বলেছেন, আদালতের পরামর্শমূলক মতামতও শান্তিপূর্ণ আন্তর্জাতিক আইনের ব্যবহারের মাধ্যমে অবৈধ দখলদারিত্ব মোকাবিলা করতে আমাদের বড় হাতিয়ার হবে। জাতিসংঘের মানবাধিকার কর্মকর্তা ফ্রান্সেসকা আলবানিজ বলেছেন, দশকের পর দশকের অন্যায় শেষ পর্যন্ত তদন্তের মুখোমুখি হবে।

আদালতের রায় পেতে কয়েক মাস সময় লাগবে। তবে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এ সিদ্ধান্ত আইনগতভাবে বাধ্যতামূলক না হলেও আন্তর্জাতিক আইন শাস্ত্র, ইসরায়েলকে আন্তর্জাতিক সহায়তা এবং জনমতকে গভীরভাবে প্রভাবিত করতে পারে।

এদিকে ইসরায়েলের হিব্রু ইউনিভার্সিটির আইনের অধ্যাপক এবং ইসরায়েল ডেমোক্রেসি ইনস্টিটিউটের সিনিয়র ফেলো ইউভাল শ্যানি বলেছেন, চলমান যুদ্ধ এবং অত্যন্ত মেরূকৃত আন্তর্জাতিক পরিবেশের পরিপ্রেক্ষিতে মামলাটি সম্ভবত ইসরায়েলের জন্য অস্বস্তিকর এবং বিব্রতকর হতে চলেছে।

সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা এক প্রতিবেদনে জানায়, ফিলিস্তিনে ইসরায়েলের ৫৭ বছরের দখলদারিত্বের বৈধতা সংক্রান্ত মামলাটি দক্ষিণ আফ্রিকার ইসরায়েলের বিরুদ্ধে গাজায় গণহত্যা মামলাটি থেকে আলাদা। এই মামলার প্রধান বিষয় হলো ১৯৬৭ সাল থেকে পশ্চিম তীর, গাজা ও পূর্ব জেরুজালেমে ইসরায়েলের দখলদারিত্ব।

বুধবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) ফিলিস্তিনের প্রতিনিধি দল সাংবাকিদের জানান, শুনানির প্রথম দিনে ইসরায়েলের দখলদারিত্ব যে অবৈধ তার ওপর যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করবেন আদালতে। এ সময় ইসরায়েল আন্তর্জাতিক আইন অমান্য করেছে বলেও জানান তারা।

ইসরায়েল ফিলিস্তিনিদের আত্মনিয়ন্ত্রণের অধিকার লংঘন করেছে এবং জাতিগত বৈষম্য ও বর্ণবাদ তাদের ওপর চাপিয়ে দিয়েছে। এই মামলার রায় হতে মাসখানেক সময় লাগতে পারে বলেও জানান তারা।

২০২২ সালের ডিসেম্বরে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদ (ইউএনজিএ) ১৫-বিচারকের প্যানেলকে ইসরায়েলি দখলের বিষয়ে একটি উপদেশমূলক মতামত জানতে চাইলে তাতে ব্যাপক ভোট পড়ায় মামলাটি আদালতে পৌঁছায়।

ফিলিস্তিনিরা আদালতে তাদের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করার পর ৫১টি দেশ এবং তিনটি সংস্থা- লিগ অফ আরব স্টেটস, অর্গানাইজেশন অফ ইসলামিক কো-অপারেশন এবং আফ্রিকান ইউনিয়ন বিচারকদের সামনে বক্তব্য তুলে ধরবেন।

ইসরায়েল আদালতে উপস্থিত হয়ে যুক্তিতর্ক উপস্থাপনে অংশ নেবে না। তারা এরই মধ্যে তাদের লিখিত পর্যবেক্ষণ পাঠিয়েছে। ইসরায়েল ১৯৬৭ সালে মিসর, জর্ডান ও সিরিয়ার সঙ্গে যুদ্ধের সময় পশ্চিম তীর, গাজা ও পূর্ব জেরুজালেমের নিয়ন্ত্রণ নেয়। ২০০৫ সালে গাজার নিয়ন্ত্রণ ফিরিয়ে দেয় তেল আবিব।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Comments are closed.

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: