সর্বশেষ আপডেট : ৬ ঘন্টা আগে
শনিবার, ১৩ অগাস্ট ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ২৯ শ্রাবণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

১৭ জনের সভায় ২৩টি ফ্যান ও ৪৫টি লাইট জ্বলল!

সিলেটের ওসমানীনগরে বিরাজমান বিদ্যুৎ সংকট মোকাবেলায় মতবিনিময় সভা আহ্বান করে দায়িত্বহীনতার পরিচয় দিয়েছেন পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি সিলেট-১ কাশিকাপন জোনাল অফিসের ডিজিএম মুজিবুর রহমান চৌধুরী।

বৃহস্পতিবার (২১ জুলাই) বিকেল ৩টায় উপজেলা মিলনায়তনে সভা আহ্বান করে বিকেল ৫টা পর্যন্ত ডিজিএম নিজেই অনুপস্থিত ছিলেন। তার এমন দায়িত্বহীনতার কারণে ক্ষোভ ব্যক্ত করে অনেকেই সভাস্থল ত্যাগ করেন।

জানা যায়, ওসমানীনগরে বিদ্যুৎ ভোগান্তি চরম আকার ধারণ করেছে। প্রতিদিন লোডশেডিংয়ের শিডিউল দিলেও এর বাইরে ঘন্টার পর ঘন্টা বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন থাকছে এলাকাবাসী। এতে চরম ক্ষুব্দ হয়ে উঠেছেন উপজেলা সর্বস্তরের মানুষ। সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে অসংখ্য মানুষ ক্ষোভ প্রকাশ করছেন। এমনকি গ্রাহকরা সম্প্রতি ২ঘন্টা মহাসড়ক অবরোধ করেও রাখে।

বিদ্যুৎ পরিস্থিতি নিয়ে মতবিনিময় করতে বৃহস্পতিবার বিকাল ৩টায় উপজেলা মিলনায়তনে সভা আহবান করে ডিজিএম। সভায় এলাকার সাংবাদিকসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিদের আমন্ত্রণ জানানো হয়। নির্ধারিত সময়ে সাংবাদিকসহ অনেকেই সভাকক্ষে উপস্থিত হলেও বিকেল ৫টা পর্যন্ত ডিজিএম মুজিবুর রহমান চৌধুরী অনুপস্থিত থাকায় উপস্থিত অনেকেই সভাস্থল ত্যাগ করেন। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত (বিকেল সোয়া ৫টা) তিনি সভায় উপস্থিত হননি।

এদিকে চলমান সংকট নিরসনে বিদ্যুৎ ব্যবহারে সাশ্রয়ী হওয়ার প্রশাসনিক নিদের্শ উপেক্ষা করে বিনা প্রয়োজনে সভাস্থলে ৬০ আসনের বিপরীতে ৪৫ লাইট জ্বলতে এবং ২৩টি ফ্যান ঘুরতে দেখা যায়। অথচ, এ সময় সভাকক্ষে সব মিলিয়ে ১৭জন উপস্থিত ছিলেন।

সভায় উপস্থিত আবদুল মনাফ বলেন, আমাদের ডেকে ডিজিএম নিজেই অনুপস্থিত। এছাড়া বিদ্যুৎ বিভাগ যেখানে বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী হওয়ার কথা বলছে সেখানে প্রয়োজন ছাড়াই অসংখ্য ফ্যান ঘুরছে এবং লাইট জ্বলছে।

পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি সিলেট-১ কাশিকাপন জোনাল অফিসের সাবেক পরিচালক আবদুল মতিন বলেন, আমন্ত্রণ পেয়ে পল্লী বিদ্যুতের সভায় এসেছিলাম কিন্তু প্রায় দেড় ঘন্টা অপেক্ষা ডিজিএম উপস্থিত না হওয়ায় সভা অনুষ্ঠিত হয়নি। ফলে সভাস্থল ত্যাগ করতে বাধ্য হয়েছি।

উপজেলা প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি আব্দুল মতিন বলেন, বিকেল ৩টায় সভায় আসার জন্য সাংবাদিকদের আমন্ত্রণ জানানো হয়। কিন্তু বিকেল ৫টা পর্যন্ত ডিজিএম উপস্থিত না হওয়ায় সভা অনুষ্ঠিত হয়নি।

এ ব্যাপারে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি সিলেট-১ কাশিকাপন জোনাল অফিসের ডিজিএম মুজিবুর রহমানের মুঠোফোনে কয়েকবার ফোন করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নীলিমা রায়হানা বলেন, ডিজিএম বলেছিলেন সাড়ে ৩টায় সভা অনুষ্ঠিত হবে। আমার একাধিক সভা থাকায় আমি উপস্থিত হতে পারিনি। কিন্তু নির্ধারিত সময়ের দেড় ঘন্টা পরও তিনি কেন উপস্থিত হননি বিষয়টি আমার বোধগম্য নয়।

এ ব্যাপারে পল্লী বিদ্যুতের জেনারেল ম্যানেজার (জিএম) প্রকৌশলী দিলীপ চন্দ্র চৌধুরী বলেন, ডিজিএম সাহেব আরেকটি সভায় ব্যস্ত রয়েছেন বলে জেনেছি। উক্ত সভা শেষ করেই তিনি মতবিনিময় সভায় যাবেন।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: