সর্বশেষ আপডেট : ৯ মিনিট ১৩ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ২৫ জুন ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১১ আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

সিলেট ওসমানীনগরে খাদ্য সামগ্রীর কৃত্রিম সংকট, মুনাফা লুটছেন ব্যবসায়ীরা!

সিলেটের ওসমানীনগর উপজে’লায় প্রায় শতাধিক গ্রাম ব’ন্যার পানিতে প্লাবিত। ভা’রী বৃষ্টি ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢল এবং কুশিয়ারা নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে উপজে’লার প্রায় আড়াই লাখ মানুষ পানিব’ন্দি হয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছেন। এমন পরিস্থিতিতে উপজে’লার এক শ্রেণির অসাধু ব্যবসায়ীরা খাদ্য সামগ্রীর কৃত্রিম সংকট তৈরী করছেন।

ব’ন্যাক্রান্ত মানুষের প্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দিগুণ মূল্য হাতিয়ে নিচ্ছেন তারা। ফলে পানিব’ন্দি মানুষের দূর্ভোগ আরো বৃদ্ধি পেয়েছে। তৈরী হচ্ছে অর্থনৈতিক সংকটের। ব’ন্যার কারনে অসহায় মানুষের কাজ নেই। নেই কোন উপার্জন। এমন অবস্থায় খাদ্য সামগ্রীর মূল্য বৃদ্ধি যেন ম’রার উপর খাড়ার ঘা হয়ে দাঁড়িয়েছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, উপজে’লার বাণিজ্যিক প্রা’ণকেন্দ্র গোয়ালাবাজার ও আশ-পাশ কয়েকটি বাজারের কিছু ব্যবাসায়ী ব’ন্যাকে পূঁজি করে খাদ্য ও নিত্যপয়োজনীয় জিনিস পত্রের কত্রিম সংকট তৈরী করেছেন। ব’ন্যায় প্রয়োজনীয় মোমবাতি, দিয়াশলাই, কেরোসিন, শুকনো খাবারের মূল্য দুই থেকে তিনগুণ বেশি রাখা হচ্ছে। এতে করে বানবাসি মানুষের মধ্যে ব্যক্তি বা সামাজিক সংগঠন ত্রাণ সতায়তায় এগিয়ে আসতে পারছে না। ফলে দুর্ভোগ বাড়ছেতো বাড়ছেই।

এ বিষয়ে প্রশাসনের হস্থক্ষেপ কা’মনা করেছেন স্থানীয়রা। মঙ্গলবার উপজে’লার কয়েকটি বাজার ঘুরে দেখা গেছে, ২৫ টাকা দামের মোমবাতি ৮০ থেকে ১শ টাকা প্যাকেট বিক্রি হচ্ছে, চিড়া বিক্রি হচ্ছে ৯০ টাকা কেজি দামে, মুড়ি ১শ’ থেকে ১১০টাকা, কেরসীন ১শ’ থেকে ১৩০টাকা, দিয়াশলাই ডজন ৩০ টাকা, এলপিজি গ্যাস সিলেন্ডার গত শুক্রবার বিক্রি হয়েছিলো ১৩শ’ টাকা আর মঙ্গলবার বিক্রি হয় ১৫শ’ টাকা, আলু পেঁয়াজের মূল্য বৃদ্ধি হয়েছে কেজিতে ১০ টাকা

এছাড়া চালের দামও বেড়েছে। মোটা চাল কেজিতে ৫ থেকে ৭ টাকা করে বেড়ে গেছে। একই দোকানে গিয়ে এক সাথে কয়েক পদের পণ্য পাওয়া যাচ্ছে না। ঘুরে ঘুরে কয়েকটি খুঁচরা দোকান থেকে পণ্য ক্রয় করতে হচ্ছে। এক শ্রেণির অসাধু ব্যবসায়ী এসব পণ্যের কৃত্রিম সংকট তৈরী করে বেশি মুনাফা হাতিয়ে নিচ্ছেন। সিরাজ মিয়া নামের একজন ক্রেতা জানিয়েছেন, শুক্রবারে গোয়ালাবাজার থেকে ১ কেজি চিড়া ৬০ টাকায় নিলেও মঙ্গলবার কিনছেন ৮০ টাকা দিয়ে। বুধবার চিড়া বা মুড়ি পাওয়া যাবে কি না এ নিয়ে শঙ্কিত অনেকে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছক কয়েকজন ব্যবসায়ী জানিয়েছেন, সিলেট শহর থেকে পণ্য আম’দানি করতে না পারায় আর চাহিদা থাকায় একটু দাম বেশি নিচ্ছেন। পণ্য সংকট দেখিয়ে মূল্য বৃদ্ধির বিষয়ে খোঁজ নিয়ে ব্যবস্থা গ্রহনের আশ্বা’স দিয়েছেন ওসমানীনগর উপজে’লা নির্বাহী কর্মক’র্তা নিলিমা রায়হানা। পরে মঙ্গলবার বিকালে উপজে’লার কয়েকটি বাজারে ভ্রাম্যমান আ’দালত পরিচালনার খবর পাওয়া গেছে। অ’ভিযান চালিয়ে দুটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মালিককে জ’রিমানা করা হয়।

এসময় দু’র্যোগ ব্যবস্থাপনা আইনে একটি প্রতিষ্ঠানকে ২ হাজার টাকা ও ভোক্তা অধিকার সংরক্ষন আইনে এক প্রতিষ্ঠানকে ১ হাজার টাকা জ’রিমানা করা হয়েছে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: