সর্বশেষ আপডেট : ১ ঘন্টা আগে
মঙ্গলবার, ২৮ জুন ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১৪ আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

রাস্তায় ব্যাগ বিক্রি করা তুষার এখন ২৫০ কোটি টাকার মালিক!

শেয়ার কেলেঙ্কারিতে নিজেদের সবকিছু হারিয়ে একপ্রকার পথে বসেছিলেন। তবে দমে যাননি। ফের ঘুরে দাঁড়িয়েছেন। এরপর কঠোর পরিশ্রমে একটু একটু করে নিজেদের অর্থবিত্ত ফিরে পেতে শুরু করেন। পরিশ্রম ও সঠিক পরিকল্পনায় দিন বদলে গেছে।

বলছিলাম তুষার জৈনর কথা। যিনি এক সময় বাবার সঙ্গে রাস্তায় রাস্তায় ব্যাগ বিক্রি করতেন। সেই তুষার এখন কয়েকশ কোটি টাকার কোম্পানির মালিক।

তুষারের কোম্পানি নিয়ে বিশেষ একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে ভারতীয় গণমাধ্যম আনন্দবাজার পত্রিকা।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ১৯৯২ সালে হর্ষদ মেহতার শেয়ার কেলেঙ্কারির শিকার হয়েছিলেন কয়েক হাজার মানুষ। তাদেরই একজন ছিলেন ভারতের ঝাড়খণ্ডের ব্যবসায়ী মুলচাঁদ জৈন। সব হারিয়ে পরিবার নিয়ে পথে বসেছিলেন তিনি। তারই ছেলে তুষার।এর পর ছেলের সঙ্গে মুম্বাইয়ের রাস্তায় ব্যাগ বিক্রি করতে শুরু করেন। রাস্তায় রাস্তায় ব্যাগ বিক্রি করেই সংসার চালাতে শুরু করেন তিনি।

তুষার ২০১২ সালে একটি সংস্থা গড়ে তোলেন। তুষার এই সংস্থার সহ-প্রতিষ্ঠাতা। সংস্থাটি বিভিন্ন ধরনের ব্যাগ তৈরি করে। মাত্র দুবছরের মধ্যে বছরে ১০ থেকে ২০ হাজার ব্যাগ তৈরি করতে শুরু করে সংস্থাটি। তখন বছরে মোট ব্যবসা ছিল ৯০ কোটি টাকার।

২০১৭ সাল নাগাদ সংস্থার মোট ব্যবসা গিয়ে পৌঁছে ২৫০ কোটি টাকায়। প্রতি বছর ৩০ থেকে ৩৫ হাজার ব্যাগ তৈরি করতে শুরু করে সংস্থাটি। সাফল্যের সিঁড়িতে উঠে তুষারের সংস্থা ট্রাওয়ার্ল্ড লঞ্চ করে। বলিউডের অভিনেত্রী সোনম কাপুর যার ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর।

তুষারের লক্ষ্য আগামী পাঁচ বছরের মধ্যে সংস্থাকে আরও বড় করে তোলা। প্রতি বছর ২৫ লাখ ব্যাগ তৈরি করা। এই মুহূর্তে ভারতের চতুর্থ বৃহৎ ব্যাকপ্যাক এবং ব্যাগ বিক্রির সংস্থা এটি।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Comments are closed.

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: