সর্বশেষ আপডেট : ২১ মিনিট ২০ সেকেন্ড আগে
বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪ খ্রীষ্টাব্দ | ৩ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

গাজীপুর সিটি নির্বাচন: প্রতীক পেয়েই প্রচারণায় নামলেন প্রার্থীরা

ডেইলি সিলেট ডেস্ক ::

গাজীপুর সিটি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে আগামী ২৫ মে। মঙ্গলবার (০৯ মে) প্রার্থীদের মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। প্রতীক পাওয়ার পরই নির্বাচনী প্রচারণায় নেমেছেন প্রার্থীরা। ভোটারদেরকে দিচ্ছেন নানা প্রতিশ্রুতি।

উৎসবমুখর পরিবেশে প্রতীক নিয়ে প্রচারণায় নেমেছেন গাজীপুর সিটি করপোরেশনের আট মেয়র ও কাউন্সিলর পদপ্রার্থীরা। মঙ্গলবার সকাল থেকে গাজীপুর বঙ্গতাজ অডিটোরিয়াম শুরু হয় প্রতীক বরাদ্দ দেয়া। প্রতীক বরাদ্দকে কেন্দ্র করে পুরো গাজীপুর শহরের মেয়র, সাধারণ কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত কাউন্সিলর প্রার্থী এবং তাদের সমর্থক/ অনুসারীদের পদচারণায় মুখর হয়ে ওঠে। কাঙ্ক্ষিত প্রতীক পেয়ে প্রার্থীরা শ্লোগান দিতে দিতে কেউ দলীয় কার্যালয়ে যান, কেউ ফেরেন নিজ নিজ এলাকায়।

সকাল দশটার দিকে গাজীপুর মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও আওয়ামী লীগের প্রার্থী আজমত উল্লাহ খান প্রতীক বরাদ্দ নেন। এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন মহানগর আওয়ামী লীগের সাবেক সহ-সভাপতি আলিম উদ্দিন ও আব্দুল হাদী শামিম।

প্রতীক বরাদ্দ পেয়ে আজমত উল্লাহ খান বলেন, প্রতীক বরাদ্দ পেয়েছি, তাই এই বঙ্গতাজ অডিটোরিয়াম থেকেই আমার প্রচারণা শুরু করছি। অবশ্যই আমরা আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল থাকবো। দেশের প্রচলিত যে আইন আছে সেই আইন মেনে আমরা আমাদের প্রচারণা চালাবো। গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের সম্মানিত ভোটারদের প্রতি আকুল আহবান গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনকে একটি সমৃদ্ধ সিটি কর্পোরেশনে গড়ে তুলতে এবং নাগরিক সুবিধা ও আধুনিক নগরী গড়ে তুলতে নৌকা প্রতীকে ভোট দিয়ে যেন সহযোগিতা করেন।

প্রতীকের জন্য মাকে নিয়ে এলেন জাহাঙ্গীর:

সকাল পৌনে এগারোটার দিকে বঙ্গোতাজ অডিটোরিয়ামে আসেন গাজীপুর সিটি নির্বাচনের স্বতন্ত্র প্রার্থী জায়েদা খাতুন। এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম। মায়ের হাত ধরে জাহাঙ্গীর আলম রিটার্নিং কর্মকর্তার হাত থেকে প্রতীক বরাদ্দ নেন। জায়েদা খাতুন পেয়েছেন টেবিল ঘড়ির প্রতীক।

প্রতীক নিয়ে ফিরে যাওয়ার সময় জাহাঙ্গীর আলমের মা জায়েদা খাতুন সাংবাদিকদের বলেন, লটারিতে টেবিল ঘড়ি মার্কা পেয়েছি। আমি গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের সবার কাছে ভোট চাই। আপনারা গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনে উন্নয়নের জন্য ঘড়ি মার্কায় ভোট দেবেন।

নির্বাচনে জয়লাভ করলে কি করবেন এমন প্রশ্নে জায়েদা খাতুন বলেন, এই শহরের সবচেয়ে বড় সমস্যা রাস্তাঘাট ও ড্রেনেজ ব্যবস্থা। আমি জয়লাভ করলে আগে এই রাস্তা ও ড্রেনেজের ব্যবস্থা করবো। আমি লড়াই করছি জনগণের জন্য। আমার সাথে সিটি কর্পোরেশনের জনগণ রয়েছে। আমি আমার এবং ভোটের নিরাপত্তা চাই, সুষ্ঠু ভোট চাই। আমি নির্বাচন কমিশনারের কাছে একটা সুষ্ঠু ভোট চাই।

এসময় জাহাঙ্গীর আলম বলেন, আমি গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনকে গ্রাম থেকে শহরে রূপান্তর করতে চেয়েছিলাম। সেই কাজে হাতও দিয়েছিলাম। এখন মায়ের পাশে থেকে সেই সব কাজ করে যেতে চাই।

প্রতীকের লটারিতে জিতলেন জাহাঙ্গীরের মা:

টেবিল ঘড়ি প্রতীক চেয়েছিলেন বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী সরকার শাহনুর ইসলাম ও জাহাঙ্গীর আলমের মা জায়েদা খাতুন। সকালে যখন শানুর প্রতীক চেয়েছিলেন সে সময় জাহাঙ্গীর আলমের মা উপস্থিত ছিলেন না। তার অনুপস্থিতিতেই নির্বাচনে রিটার্নিং কর্মকর্তা ফরিদুল ইসলাম লটারির আয়োজন করেন। লটারিতে জাহাঙ্গীরের মা জায়েদা খাতুন পান টেবিল ঘড়ি প্রতীক। পরে স্বতন্ত্র প্রার্থী শাহনুর হাতি প্রতীক চেয়ে নেন।

রিটার্নিং কর্মকর্তা ফরিদুল ইসলাম বলেন, একই প্রতীক একাধিক ব্যক্তি চাইলে তাদেরকে লটারির মাধ্যমে প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। লটারিতে জাহাঙ্গীর আলমের মা ‘টেবিল ঘড়ি’ প্রতীক পেয়েছেন।

সিটি নির্বাচনে আওয়ামী লীগ, জাতীয় পার্টি, গণফ্রন্ট ও ইসলামী আন্দোলন এবং স্বতন্ত্রসহ মোট ৮ জন মেয়র পদে লড়ছেন। এরমধ্যে সাবেক মেয়র জাহাঙ্গীর আলমের মা জায়েদা খাতুন ও আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আজমত উল্লা খানের মধ্যে মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

মেয়র পদে কে কোন প্রতীক পেলন:

মেয়র পদে ৮ জন প্রার্থীর প্রতীকগুলো হলো- মাছ প্রতীকে গণফ্রন্টের আতিকুল ইসলাম, নৌকা প্রতীকে আজমত উল্লাহ খান, লাঙ্গল প্রতীক এম এম নিয়াজ উদ্দিন, হাতপাখা প্রতীকে গাজী আতাউর রহমান, টেবিল ঘড়ি প্রতীকে জায়েদা খাতুন, হাতি প্রতীকে সরকার শাহানুর ইসলাম রনি, গোলাপ ফুল প্রতীকে রাজু আহম্মেদ ও ঘোড়া প্রতীকে হারুন অর রশিদ।

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা ফরিদুল ইসলাম জানান, প্রার্থীরা আজ থেকে আচরণবিধি মেনে প্রচার-প্রচারণা শুরু করতে পারবেন।

গাজীপুর সিটিতে মোট ভোটার সংখ্যা ১১ লাখ ৭৯ হাজার ৪৭৬জন। ৫৭টি ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে ২৩৯ জন, সংরক্ষিত ১৯টি নারী কাউন্সিলর পদে ৭৭ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এখানে ভোটকেন্দ্র ৪৮০টি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Comments are closed.

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: