সর্বশেষ আপডেট : ৩ ঘন্টা আগে
রবিবার, ২৬ জুন ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১২ আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

এক বছরেও ধীরাজ পাল ‌হত্যারহস্য উদঘাটন হয়নি

একবছরেও উদঘাটন হয়নি ধীরাজ পাল (৬০) হ’ত্যার’হস্য। দিনদুপুরে প্রকাশ্যে এ হ’ত্যাকা’ণ্ডের ঘটনা ঘটলেও এখন পর্যন্ত এর কোন ক্লু উ’দ্ধার করতে পারেনি পু’লিশ।

গত বছরের ২৮ মে বালাগঞ্জের গহরপুরে নিজ কর্মস্থলে খু’ন হন সেখানকার একটি ইটভাটার ব্যবস্থাপক ধীরাজ পাল। ধীরাজ সিলেটের দক্ষিণ সুরমা’র আলমপুরের মৃ’ত দিজেন্দ্র পালের ছে’লে।

ধীরাজ হ’ত্যা মা’মলা বর্তমানে ত’দন্ত করছে পু’লিশের অ’প’রাধ ত’দন্ত বিভাগ (সিআইডি)। সিআইডি সিলেটের বিশেষ পু’লিশ সুপার সুজ্ঞান চাকমা শুক্রবার বলেন, আম’রা এই হ’ত্যা র’হস্য উদঘাটনে আন্তরিকভাবে কাজ করছি। জে’লা পু’লিশও এ ব্যাপারে কাজ করছে। কিন্তু এখন পর্যন্ত আম’রা কোন ক্লু উ’দ্ধার করতে পারিনি।

তিনি বলেন, এই মা’মলায় ছয়জনকে গ্রে’প্তার করা হয়েছিলো। ধারণা করছি, গ্রে’প্তারকৃতদের মধ্যেই হ’ত্যাকারী রয়েছে। তবে তারা কেউ স্বীকার করছে না। তবু আম’রা চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।

মা’মলা সূত্রে জানা যায়, বালাগঞ্জ উপজে’লার গহরপুরে ইটভাটার ব্যবস্থাপক ধীরাজ পালের ম’রদেহ গতবছরের ২৮ মে দুপুরে ইটভাটা থেকে উ’দ্ধার করা হয়। পরদিন নি’হতের ছে’লে প্রভাকর পাল অ’জ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের আ’সামি করে বালাগঞ্জ থা’নায় মা’মলা দায়ের করেন। মা’মলা দায়েরের পর পু’লিশ ৬ জনকে গ্রে’প্তার দেখিয়েছে পু’লিশ। এরমধ্যে ৫ জনকে রি’মান্ডেও নেওয়া হয়। তবে তাদের কাছ থেকে হ’ত্যার ব্যাপারে কোনো তথ্য আদায় করতে পারেনি। বর্তমানে গ্রে’প্তার হওয়া সকলেই জামিনে রয়েছেন।

প্রথমে মা’মলা’টির ত’দন্ত করছিলো বালাগঞ্জ থা’না পু’লিশ। পরে থা’না জে’লা পু’লিশের গোয়েন্দা শাখা (ডিবি) তে হস্তান্তর করা হয়। এরপর ত’দন্তের দায়িত্ব পায় সিআইডি। তবে ত’দন্তকারী সংস্থার বদল হলেও মা’মলার কোন অগ্রগতি হয়নি। হ’ত্যা র’হস্য এখন পর্যন্ত থেকে গেছে অনুদঘাটিত।

এ ব্যাপারে মা’মলার বাদীপক্ষের আইনজীবী দেবব্রত চৌধুরী লিটন বলেন, প্রকাশ্যে একটি হ’ত্যার ঘটনা একবছরেও কোনো ক্লু উ’দ্ধার না হওয়ায় আম’রা হতাশ। এই মা’মলায় ত’দন্তকারী সংস্থার আন্তরিকতাও প্রশ্নবিদ্ধ।

তিনি বলেন, আম’রা এখন অ’ভিযোগপত্রের অ’পেক্ষায় আছি। অ’ভিযোগপত্র পেলে পরবর্তী আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

মা’মলার এজাহার ও নি’হতের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, ধীরাজ পাল ৮ বছর ধরে গহরপুরের ওই ইটাভাটায় ব্যবস্থাপক হিসেবে কাজ করতেন। ইটাভাটায়ই রাত্রিযাপন করতেন তিনি। প্রতি শুক্রবার সেখান থেকে আলমপুরে নিজ বাড়িতে আসতেন। ২৮ মেও ছিল শুক্রবার। ওইদিন বিকেলে তার বাড়ি ফেরার কথা ছিল। তবে শুক্রবার দুপুরেই ইটভাটায় নিজ কার্যালয়ের সামনে মা’থা ও শরীর ক্ষতবিক্ষত করে তাকে হ’ত্যা করা হয়। পরে স্থানীয়রা তাকে উ’দ্ধার করে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতা’লে নিয়ে আসেন।

মা’মলার এজাহারে ইটভাটার কর্মীদের বরাত দিয়ে বলা হয়, জুমা’র নামাজের সময় হ’ত্যা করা হয় ধীরাজ পালকে। এসময়ে ইটভাটার সকল কর্মীরা ম’সজিদে নামাজ পড়তে গিয়েছিলেন। পুরো ইটভাটা ফাঁকা ছিল। মা’মলা দায়েরের পর ৩০ মে ইটভাটার ব্যবসায়িক অংশীদার ও ক্যাশিয়ার মেরাজুল ইস’লাম চৌধুরী, সহকারী ব্যবস্থাপক সুহেদ আহম’দ ও সিএনজি অটোরিকশা চালক রুবেল আহম’দকে গ্রে’প্তার করে পু’লিশ। পরদিন আ’দালতের মাধ্যমে তাদের ৪ দিনের রি’মান্ডে নেওয়া হয়। এরপর ইকবাল হোসেন নামে এক ট্রাক চালক ও ইটভাটার নৈশপ্রহরী রাসেল আলীকে গ্রে’প্তার করে ৩ দিনের রি’মান্ডে নেওয়া হয়। পরে তোফায়েল আহম’দ নামে একজনকে গ্রে’প্তার করা হয়। তবে ৬ জনকে গ্রে’প্তারের পর জিজ্ঞাসাবাদ করেও হ’ত্যাকা’ণ্ডের কোনো ক্লু উ’দ্ধার করতে পারেনি পু’লিশ। গ্রে’প্তারকৃত আ’সামিরাও আ’দালতে স্বীকারোক্তি প্রদান করেনি।

এদিকে, প্রকাশ্যে হ’ত্যাকা’ণ্ডের তিন মাস পেরিয়ে গেলেও এখন পর্যন্ত হ’ত্যা র’হস্য উদঘাটন না হওয়ায় ক্ষোভ ও হতাশা বিরাজ করছে নি’হতের পরিবার ও এলাকাবাসীর মধ্যে। ধীরাজ হ’ত্যার পর এ ঘটনার সুষ্ঠু ত’দন্ত ও র’হস্য উদঘাটনের দাবিতে বি’ক্ষোভ করে এলাকাবাসী। হ’ত্যা র’হস্য উদঘাটনের দাবিতে এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে সিলেটের উপ মহা পু’লিশ পরিদর্শক (ডিআইজি) মফিজ উদ্দিন আহম্ম’দ বরাবর স্মা’রকলিপিও প্রদান করা হয়।

তিন মাসেও হ’ত্যা র’হস্য উদঘাটন না হওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করে নি’হতের ছে’লে ও মা’মলার বাদী প্রভাকর পাল বাপ্পা বলেন, একটা নিরীহ লোককে প্রকাশ্যে খু’ন করে ফেলা হল অথচ পু’লিশ বা সিআইডি একবছরেও কোনো র’হস্য উদঘাটন করতে পারলো না। এটি আমাদের পরিবারের জন্য চরম হতাশার। পু’লিশের আন্তরিকতা নিয়েই আমাদের মনে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। এভাবে আর কিছুদিন চললে তো আরও অনেক ঘটনার মতো এই হ’ত্যা মা’মলাও ধামাচাপা পড়ে যাবে। আর আম’রা ন্যায়বিচার বঞ্চিত হবো।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: