সর্বশেষ আপডেট : ৬ ঘন্টা আগে
শুক্রবার, ১৯ অগাস্ট ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ ভাদ্র ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

সিলেটে ক্বিনব্রিজ দিয়ে যানবাহন চলাচল নিষিদ্ধ

সিলেট নগরীর অন্যতম প্রবেশদ্বার ক্বিনব্রিজ দিয়ে যানবাহন চলাচলে ফের নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে সিটি করপোরেশন (সিসিক)। রিকশা, ভ্যান ও মোটরসাইকেল ব্যতিত অন্য সব ধরনের যানবাহন এ সেতু দিয়ে চলাচল করতে পারবে না।

গত রাত সাড়ে ৯টার দিকে সিলেট সিটি করপোরেশনের লোকজন ক্বিনব্রিজের প্রবেশমুখে নিষেধাজ্ঞা সংক্রান্ত সাইনবোর্ড টানিয়ে দিয়েছেন। এছাড়া নতুন করে বসানো হয়েছে লোহার ব্যারিকেড।

জানা গেছে, প্রায় শতবর্ষী ক্বিনব্রিজ কিছুটা ঝুঁ’কিপূর্ণ। ইতোমধ্যে বেশ কয়েকবার এটির সংস্কারকাজ করা হয়েছে। ঝুঁ’কির বিষয়টি বিবেচনা করে এবং যানজট যাতে না হয়, সেজন্য ক্বিনব্রিজ দিয়ে ২০১৯ সালের ১ সেপ্টেম্বর থেকে লোহার ব্যারিকেড বসিয়ে যানবাহন চলাচল নিষিদ্ধ করেছিল সিসিক। ওই সময় রিকশা চলাচলও বন্ধ করে দেয়া হয়।

তবে দক্ষিণ সুরমা’র মানুষের দাবির প্রেক্ষিতে কিছুদিন পর রিকশা, ভ্যান, মোটরসাইকেল চলাচলের সুযোগ করে দেয়া হয়। কিন্তু পরবর্তীতে কে বা কারা লোহার ব্যারিকেড তুলে ফেলে, শুরু হয় সিএনজি অটোরিকশা, প্রাইভেট’কার, লাইটেসসহ সবধরনের যান চলাচল।

দীর্ঘদিন পর গতকাল বুধবার রাতে ফের লোহার ব্যারিকেড বসানো হয়েছে ক্বিনব্রিজের উভ’য় প্রবেশমুখে। সিসিকের কর্মীরা যান চলাচলের নিষেধাজ্ঞা সংক্রান্ত সাইনবোর্ডও বসিয়ে দেন তখন।

সাইনবোর্ডে হুবুহু এরকম লেখা রয়েছে, ‘রিক্সা, ভ্যান, মটর সাইকেল ব্যতিত অন্যান্য সকল প্রকার যানবাহন চলাচল সম্পূর্ণ নিষেধ’।

ফের যানবাহন চলাচলে নিষেধাজ্ঞার বিষয়ে কথা বলতে সিসিকের প্রধান প্রকৌশলী নূর আজিজুর রহমানকে ফোন দেয়া হলে তিনি রিসিভ করেননি। পরে বারবার চেষ্টা করা হলেও তার ফোন ‘ব্যস্ত’ দেখায়।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Comments are closed.

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: