সর্বশেষ আপডেট : ৪ ঘন্টা আগে
শনিবার, ২২ জুন ২০২৪ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

স্ত্রী’কে খু’ন করাতে তিন লাখ টাকা ঢালেন এসপি বাবুল, কেনো স্ত্রী’কে খু’ন?

স্ত্রী’ মাহমুদা খানম মিতুকে খু’ন করাতে আ’সামিদেরকে তিন লাখ টাকা দিয়েছিলেন সাবেক পু’লিশ সুপার বাবুল আকতার। আ’দালতে দেওয়া দুই সাক্ষীর জবানব’ন্দি ও পিবিআইয়ের ত’দন্তে এই তথ্য উঠে এসেছে। এছাড়া পিবিআইয়ের দেওয়া প্রথম মা’মলার চূড়ান্ত প্রতিবেদন ও নতুন করা মা’মলায় লেনদেনের উল্লেখ আছে।

এ বিষয়ে বাবুল আকতারের মা’মলার ত’দন্ত কর্মক’র্তা সন্তোষ কুমা’র চাকমা বলেন, স্ত্রী’ হ’ত্যার তিন দিন পর বাবুল আক্তার তার ব্যবসায়িক অংশীদার সাইফুল হককে বলেন তার লাভের অংশ থেকে তাকে যেন টাকা তিন লাখ টাকা দেওয়া হয়। সাইফুল বিকাশের মাধ্যমে ওই টাকা গাজী আল মামুনকে পাঠান। গাজী আল মামুন ওই টাকা মু’সা, ওয়াসিমসহ আ’সামিদের ভাগ করে দেন। তবে কাকে কত টাকা দেওয়া হয়েছে সে স’ম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

পিবিআইয়ের ত’দন্ত কর্মক’র্তা আরও বলেন, মিতু হ’ত্যা মা’মলার ভিডিও ফুটেজে বাবুল আক্তারের সোর্স এহতেশামুল হক ভোলা, কা’ম’রুল শিকদার ওরফে মূসা ছিলেন। কিন্তু ঘটনার পরপর তিনি দাবি করেছিলেন, হ’ত্যাকা’ণ্ডে জ’ঙ্গিরা জ’ড়িত। তার সোর্সকে তিনি চিনলেও বিষয়টি চেপে যান বাবুল। ভুলেও তিনি সাইফুল হকের মাধ্যমে হ’ত্যাকা’ণ্ডে অংশ নেওয়া মু’সা ও ওয়াসিমসহ আ’সামিদের তিন লাখ টাকা দেওয়ার কথা বলেননি।

এ দিকে গত মঙ্গলবার বাবুলের ব্যবসায়িক অংশীদার সাইফুল ও মামুন চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট শফিউদ্দীনের আ’দালতে সাক্ষী হিসেবে জবানব’ন্দি দেন। সেখানে দুজনই বাবুলের নির্দেশে স্ত্রী’ হ’ত্যায় জ’ড়িতদের টাকা দেওয়ার বিষয়টি উল্লেখ করেন।

এ ঘটনায় মিতুর স্বামী চট্টগ্রামের সাবেক পু’লিশ সুপার (এসপি) বাবুল আক্তারকে প্রধান আ’সামি করে হ’ত্যা মা’মলা করা হয়েছে।

মা’মলায় আ’সামি করা হয়েছে আরও ৭ জনকে। মা’মলার বাদী হয়েছেন মিতুর বাবা মোশাররফ হোসেন।

বুধবার দুপুর পৌনে একটায় চট্টগ্রামের পাঁচলাইশ থা’নায় মা’মলা দায়ের করেন তিনি।

পাঁচ বছর আগে চট্টগ্রামে স্ত্রী’ মাহমুদা খানম মিতু হ’ত্যায় বাদী ছিলেন স্বামী সাবেক পু’লিশ সুপার (এসপি) বাবুল আক্তার। পাঁচ বছর পর বাদীই হলেন হ’ত্যার মূল আ’সামি।

ত’দন্তে তার বি’রুদ্ধেই হ’ত্যার সঙ্গে জ’ড়িত থাকার সংশ্লিষ্টতা পাওয়ার পর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য মঙ্গলবার ডেকে তাকে হেফাজতে নেয় পু’লিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। আজ তার বি’রুদ্ধে মা’মলা করলেন মিতুর বাবা।

২০১৬ সালের ৫ জুন সকালে চট্টগ্রাম নগরীর নিজাম রোডে ছে’লেকে স্কুলবাসে তুলে দিতে যাওয়ার পথে দুর্বৃত্তদের গু’লি ও ছু’রিকাঘাতে খু’ন হন মাহমুদা খানম মিতু। ওই সময় এ ঘটনা দেশজুড়ে ব্যাপক আ’লোচিত হয়। ঘটনার সময় মিতুর স্বামী পু’লিশ সুপার বাবুল আক্তার অবস্থান করছিলেন ঢাকায়। ঘটনার পর চট্টগ্রামে ফিরে তৎকালীন পু’লিশ সুপার ও মিতুর স্বামী বাবুল আক্তার পাঁচলাইশ থা’নায় অ’জ্ঞাতনামাদের আ’সামি করে একটি হ’ত্যা মা’মলা করেন।

পাঁচ বছর আগের এই হ’ত্যাকা’ণ্ডে তার স্বামী সাবেক এসপি বাবুল আক্তারের ‘সম্পৃক্ততার প্রমাণ’ পাওয়ার কথা বুধবার জানিয়েছে পু’লিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন-পিবিআই।

এ ত’দন্ত সংস্থার প্রধান পু’লিশের উপ-মহাপরিদর্শক বনজ কুমা’র মজুম’দার বুধবার ঢাকার ধানমন্ডিতে পিবিআই সদরদপ্তরে এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, মিত্যু হ’ত্যার সঙ্গে স্বামী বাবুল আক্তারের সম্পৃক্ততার প্রমাণ মিলেছে। এ জন্য তার বি’রুদ্ধে হ’ত্যা মা’মলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Comments are closed.

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: