সর্বশেষ আপডেট : ৪ ঘন্টা আগে
বুধবার, ৭ জুন ২০২৩ খ্রীষ্টাব্দ | ২৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩০ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

চট্টগ্রামে ধনেশ পাখি উদ্ধার, দুইজনের কারাদণ্ড

ডেইলি সিলেট ডেস্ক ::

চট্টগ্রামের বাঁশখালী থানা অভিযান চালিয়ে বিরল প্রজাতির ৪টি রাজ ধনেশ পাখিসহ ২ পাচারকারীকে আটক করেছে পুলিশ। পুলিশ জানিয়েছে, মিয়ানমার থেকে ধনেশ পাখিগুলো এনে ভারতে পাচারের জন্য নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল।

বৃহস্পতিবার (২৫ মে) রাত সাড়ে ১২টার দিকে উপজেলার গুনাগরী বাজার এলাকার প্রধান সড়কে ও পার্শ্ববর্তী উপজেলা আনোয়ারা এলাকায় পৃথকভাবে পরিচালিত অভিযানে ৪টি রাজ ধনেশ পাখিসহ ২ জনকে আটক করা হয়।

উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট খোন্দকার মাহামুদুল হাসানের ভ্রাম্যমাণ আদালতে তাদের ৬ মাসের কারাদণ্ড দেন। একইসঙ্গে উদ্ধার হওয়া ধনেশ পাখিগুলোকে চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় অবমুক্ত করার নির্দেশ দেন।

ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনাকালে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সহকারী পুলিশ সুপার (আনোয়ারা সার্কেল) মো. কামরুল হাসান, থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. কামাল উদ্দিন ও জলদী অভয়ারন্য রেঞ্জের রেঞ্জ কর্মকর্তা ও বাঁশখালী ইকোপার্কের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আনিছুজ্জামান শেখ।

পাচারকারীরা হলেন- কক্সবাজার জেলার চকরিয়া থানার ফাশিয়াখালী ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের দীঘার পানখালি এলাকার মৃত আব্দুল মালেকের ছেলে মো. সেলিম (৫২) ও বাগেরহাট জেলার সরনখোলা থানার খোন্তাকাটা ইউনিয়নের পূর্ব মোস্তাকাটা ২ নম্বর ওয়ার্ডের মৃত ফজলুল হকের ছেলে মো. মিজানুর রহমান (৪২)।

বাঁশখালী থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. কামাল উদ্দিন বলেন, ‘আলীকদম থেকে বন্যপ্রাণী পাচারকারী চক্রের কয়েকজন সদস্য অতি বিরল প্রজাতির রাজ ধনেশ পাখি পাচার করছিল। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বাঁশখালী প্রধান সড়কের গুনাগরী বাজার এলাকায় গাড়ি তল্লাশি করে তাদের ধরা হয়।’

তিনি আরও বলেন, ‘অভিযান চলাকালে একটি সিএনজি অটোরিকশা থেকে ৪টি বিরল প্রজাতির রাজ ধনেশ পাখিসহ পাচারকারী চক্রের সদস্য ওই অটোরিকশার চালক মো. সেলিমকে আটক করা হয়। তার স্বীকারোক্তি মোতাবেক আনোয়ারা থানা এলাকা থেকে পাচারকারী চক্রের আরেক সদস্য মো. মিজানুর রহমানকেও আটক করা হয়। পরে শুক্রবার সকালে ভ্রাম্যমাণ আদালত তাদেরকে ৬ মাসের কারাদণ্ড প্রদান করেন।’

প্রাণীবিদদের মতে, বাংলাদেশে একসময় মিশ্র চিরসবুজ বনে রাজ ধনেশ অবস্থান করলেও এখন বিরল। তবে চট্টগ্রাম ও সিলেটের গহীন বনে কালেভদ্রে এখনও দু একটির দেখা মেলে। বৃহত্তম এই পাখি ঠোঁটের কারণে মানুষের নজর কাড়ে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: