সর্বশেষ আপডেট : ২ ঘন্টা আগে
রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

চাঁদাবাজির মামলায় সাবেক ছাত্রদল নেতা মুন্না কারাগারে

কুলাউড়া প্রতিনিধি :

চাঁদাবাজির মামলায় পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হয়ে বর্তমানে জেলহাজতে রয়েছেন কুলাউড়া উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক যুগ্ম আহবায়ক ও ফিনল্যান্ড প্রবাসী সাজ্জাদুর রহমান মুন্না (৩৫)। বুধবার (১৬ নভেম্বর) রাতে তাঁকে গ্রেপ্তার করে সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জ থানা পুলিশ। পরদিন বৃহস্পতিবার সকালে তাকে সিলেটে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়।

মুন্না কুলাউড়া উপজেলার ব্রাহ্মণবাজার ইউনিয়নের চকের গ্রামের বাসিন্দা মোঃ হিরা মিয়ার ছেলে। তিনি সিলেটের শাহপরান থানার শিবগঞ্জের সোনাপাড়া এলাকায় বসবাস করছেন।

জানা গেছে, সিলেট মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট ১ম আদালতে ২০২১ সালের ১৬ সেপ্টেম্বর সাবেক ছাত্রদল নেতা সাজ্জাদুর রহমান মুন্না ও তার ভাই বেলাল আহমদের বিরুদ্ধে ২০ লাখ টাকা চাঁদা দাবির মামলা (শাহপরান থানার সিআর মামলা নং- ২৭৬/২০২১) করেন কুলাউড়ার ভাটেরা ইউপি চেয়ারম্যান ও রিয়েল স্টেইট ব্যবসায়ী সৈয়দ একেএম নজরুল ইসলাম। পরবর্তীতে মামলাটি পুলিশ ইনভেস্টিগেশন অব ব্যুরো তদন্ত করে প্রাথমিক সত্যতা পেয়ে চলতি বছরের অক্টোবর মাসে আদালতে প্রতিবেদন জমা দেয়। এরপর মুন্না ও তার ভাই বেলালের বিরুদ্ধে চলতি মাসের ৭ নভেম্বর গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করে আদালত।

আদালতে দায়েরকৃত অভিযোগ থেকে জানা গেছে, গত বছরের ৮ সেপ্টেম্বর সকাল সাড়ে ১০টায় ভাটেরা ইউপি চেয়ারম্যান ও সিলেটের শাহপরান থানার শিবগঞ্জ এলাকার বাসিন্দা সৈয়দ একেএম নজরুল ইসলাম তাঁর ১৬ শতক জায়গায় নির্মানাধীন এসপি টাওয়ার-৩ নামে একটি ভবনের ৬ষ্ঠ তলার কাজ চলমান থাকাবস্থায় সাজ্জাদুর রহমান মুন্না ও তার ভাই বেলাল আহমদ কাজে বাঁধা প্রদান করেন। ঘটনার দিন সাজ্জাদুর রহমান মুন্না ও তার ভাই বেলাল আহমদ লোকজন নিয়ে দেশীয় অস্ত্রসহ ভবনের নির্মাণ কাজে নিয়োজিত শ্রমিকদের কাজ বন্ধ করে দেয়। এসময় তারা শ্রমিকদের হুমকি দিয়ে বলে যে, এই ভবনের মালিককে ২০ লাখ টাকা চাঁদা দিতে হবে। ২০ লাখ টাকা চাঁদা না দিয়ে টাওয়ারের কাজ করতে পারবে না। তখন ভবনের কাজ বেশ কিছুদিন বন্ধ থাকে। এরপর ভবন মালিক সৈয়দ একেএম নজরুল ইসলামকে ২০ লাখ টাকা চাঁদা দিতে চাপ সৃষ্টি করে মুন্না।

ফেঞ্চুগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ শাফায়েত হোসেন বলেন, চাঁদাবাজির মামলায় মুন্না ওয়ারেন্টভুক্ত আসামি ছিলেন। সিলেটের শাহপরান থানা থেকে মুন্নাকে গ্রেপ্তারে সহযোগিতা চাইলে বুধবার রাতে আমরা মুন্নাকে ফেঞ্চুগঞ্জের হাইওয়ে সড়কের টোল প্লাজা এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করে শাহপরান থানায় হস্তান্তর করি।

এ ব্যাপারে সিলেট শাহপরান থানার অফিসার ইনচার্জ সৈয়দ আনিসুর রহমান বৃহস্পতিবার বিকেলে মুঠোফোনে বলেন, ওয়ারেন্টভুক্ত আসামী মুন্নাকে বৃহস্পতিবার সকালে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: