সর্বশেষ আপডেট : ১০ ঘন্টা আগে
রবিবার, ৪ ডিসেম্বর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

‘কাবিননামা দেখাতে পারেননি মামুনুল হক’

হেফাজতে ইস’লাম বাংলাদেশের সাবেক যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হকের বি’রুদ্ধে করা ধ’র্ষণ মা’মলায় আরও দুই পু’লিশ কর্মক’র্তা আ’দালতে সাক্ষী দিয়েছেন। বিয়ের কথা বলে ডেকে এনে মা’মলার বাদীকে মামুনুল হক ধ’র্ষণ করেছেন বলে জানিয়েছেন তারা। এছাড়াও মামুনুল হক বিয়ের কোনও কাগজপত্র দেখাতে পারেননি বলে জানিয়েছেন আ’দালতের সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) রকিব উদ্দিন আহমেদ।

সোমবার (৩ অক্টোবর) দুপুরে নারায়ণগঞ্জ নারী ও শি’শু নি’র্যা’তন দমন ট্রাইব্যুনাল আ’দালতের বিচারক নাজমুল হক শ্যামলের আ’দালতে সাক্ষ্যগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়।

বিকালে আ’দালতের সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) রকিব উদ্দিন আহমেদ বলেন, ধ’র্ষণ মা’মলার আ’সামি মামুনুল হকের বি’রুদ্ধে পু’লিশের দুই এসআইসহ ১৫ জন সাক্ষী দিয়েছেন। সাক্ষীতে দুই কর্মক’র্তা জানান- ঘটনার দিন ডিউটি অফিসারের তথ্যানুযায়ী তারা রয়েল রিসোর্টে যান। সেখানে মামুনুল হক ও মা’মলার বাদী ওই নারীকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন। ওই নারী পু’লিশকে জানায়, আ’সামি মামুনুল হক তাকে বিয়ের কথা বলে ডেকে এনে ধ’র্ষণ করেছেন।

এ সময় আ’দালতে মামুনুল হকসহ তার পক্ষের আইনজীবীরা বিয়ের কোনও কাগজপত্র দেখাতে পারেননি।

এ বিষয়ে আ’সামিপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট এ কে এম ওম’র ফারুক নয়ন বলেন, মামুনুল হকের বি’রুদ্ধে করা ধ’র্ষণ মা’মলায় ছয় পু’লিশ কর্মক’র্তাসহ আট জনের সাক্ষ্যগ্রহণের তারিখ ছিল। কিন্তু তাদের মধ্যে পু’লিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) কোবায়েদ হোসেন ও বোরহান দর্জি সাক্ষী দিয়েছেন। তাদের সাক্ষীর সঙ্গে এজাহারের কোনও মিল খুঁজে পাইনি, অনেক এলোমেলো কথা উঠে এসেছে। আ’দালতে তারা দু’জন বলতে পারেননি ওই দিন তারা কেন মামুনুল হককে গ্রে’প্তার করেননি। বরং তারা বলেছেন সেদিন তাকে গ্রে’প্তার করার মতো কারণ ছিল না।

আ’দালতে মামুনুল হকের কাবিননামা দেখাতে না পারার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, তাদের ইস’লামী নিয়ম অনুযায়ী বিয়ে হয়েছে। আর আ’দালতে এখনও কাবিননামা দেখানোর সময় হয়নি। যথাযথ সময়ে এ বিষয়ে জবাব দেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

এর আগে, সকাল সাড়ে ৮টার দিকে কঠোর নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে মামুনুল হককে আ’দালতে আনা হয়। পরে সপ্তম ধাপে সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। গত ১৮ সেপ্টেম্বর নারায়ণগঞ্জ জে’লা ও দায়রা জজ আ’দালতের বিচারক মুন্সী মশিয়ার রহমানের আ’দালতে দুই পু’লিশ কর্মক’র্তা সাক্ষ্য দেন।

প্রসঙ্গত, ২০২১ সালের ৩ এপ্রিল নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও রয়েল রিসোর্টে নারী সঙ্গী নিয়ে অবস্থান করা অবস্থায় স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা মামুনুল হককে ঘেরাও করেন। পরে হেফাজতে ইস’লামের নেতাকর্মী ও সম’র্থকরা রিসোর্টে ভাঙচুর চালিয়ে তাকে নিয়ে যান। ৩০ এপ্রিল সোনারগাঁ থা’নায় মামুনুল হকের বি’রুদ্ধে ধ’র্ষণ মা’মলা করেন তার সঙ্গে থাকা ওই নারী। কিন্তু মামুনুল হকের দাবি, ওই নারী তার দ্বিতীয় স্ত্রী’।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: