সর্বশেষ আপডেট : ১ ঘন্টা আগে
সোমবার, ৫ ডিসেম্বর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

হজে বেঁচে যাওয়া অর্থ ফেরত পাবেন সরকারি হাজিরা

চলতি বছর হ’জে বেঁচে যাওয়া অর্থ ফেরত পাবেন সরকারি হাজিরা। সৌদি আরবে বাড়ি ও হোটেল ভাড়ার অব্যয়িত অর্থ সরকারি ব্যবস্থাপনায় যাওয়া হ’জযাত্রীরা ফেরত পাবেন।

সরকারি ব্যবস্থাপনার ৩ হাজার ৭০০ এর বেশি হাজিকে এ টাকা ফেরত দেওয়া হবে। প্যাকেজ-১ এর হাজিরা প্রত্যেকে ৪৭ হাজার ৭২৬ টাকা এবং প্যাকেজ-২ এর হাজিরা ১০ হাজার ২৯৩ টাকা করে ফেরত পাবেন। সব প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে হাজিদের টাকা দেওয়া শুরু হবে বলে ধ’র্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় থেকে জানা গেছে।

এজন্য বৃহস্পতিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) হ’জের ব্যয় না হওয়া ৯ কোটি ৪০ লাখ টাকা ধ’র্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় থেকে হ’জ অফিসের পরিচালকের অনুকূলে পাঠানো হয়েছে।

ধ’র্ম মন্ত্রণালয় থেকে হ’জ পরিচালকের কাছে লেখা আরেক চিঠিতে ২০২২ সালের হ’জে সৌদি আরবে বাড়ি/হোটেল ভাড়ার অব্যয়িত অর্থ সরকারি ব্যবস্থাপনায় যাওয়া প্যাকেজ-১ এর হাজিদের ৪৭ হাজার ৭২৬ টাকা এবং প্যাকেজ-২ এর হাজিদের ১০ হাজার ২৯৩ টাকা হারে ফেরত দেওয়ার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের অনুরোধ জানানো হয়।

২০২২ সালে সরকারি ব্যবস্থাপনায় যাওয়া প্যাকেজভিত্তিক নিবন্ধিত হাজিদের মধ্যে এ অর্থ আর্থিক বিধি-বিধান অনুসরণ করে চেকের মাধ্যমে বিতরণ শেষে সমন্বয় প্রতিবেদন ধ’র্ম মন্ত্রণালয়ে পাঠানোর জন্য হ’জ পরিচালককে অনুরোধ জানানো হয় চিঠিতে।

ধ’র্ম মন্ত্রণালয়ের এক কর্মক’র্তা নাম প্রকাশ না করে বলেন, সময় কম থাকায় সৌদি আরবে বিভিন্ন খরচ চূড়ান্ত হওয়ার আগেই সেগুলোর আনুমানিক খরচ ধরে হ’জ প্যাকেজ চূড়ান্ত হয়েছিল। এর মধ্যে বাড়ি ও হোটেল ভাড়ার খরচ বেঁচে গেছে। এবার হ’জে সৌদি সরকার সব দেশের কোটা কমিয়ে দেওয়ায় হোটেল ও বাড়ি সহ’জলভ্য ছিল, ভাড়াও ছিল কম।

তিনি আরও বলেন, প্রত্যেক হ’জযাত্রীকে চেকের মাধ্যমে টাকা ফেরত দেওয়া হবে। যে মোবাইল ফোন নম্বর দিয়ে প্রাক-নিবন্ধন করা হয়েছিল, ওই নম্বর যাচাই করে চেক দেওয়া হবে।

বেসরকারিভাবে এজেন্সিগুলোর মাধ্যমে হ’জে যাওয়া ব্যক্তিদের খরচ ফেরতের বিষয়ে কোনো পদক্ষেপ নেওয়া হবে কি না জানতে চাইলে ওই কর্মক’র্তা বলেন, হ’জ এজেন্সিস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (হাব) নেতাদের ডা’কা হয়েছিল। তারা বলেছেন, সরকার লাভ করে না, তাই তারা টাকা ফেরত দিতে পারে, এজেন্সিগুলো তো মুনাফা করে। এছাড়া হিসাব-নিকাশের কাজও শেষ, তাই হাজিদের অর্থ ফেরত দেওয়ার কোনো সুযোগ তাদের নেই।

গত ৮ জুলাই সৌদি আরবে হ’জ অনুষ্ঠিত হয়। ৫ জুন থেকে ৫ জুলাই পর্যন্ত ১৬৫টি ফ্লাইটে বাংলাদেশ থেকে সৌদি আরবে যান ৬০ হাজার ১৪৬ জন হ’জযাত্রী (ব্যবস্থাপনা সদস্যসহ)। হ’জ শেষে দেশে ফেরার ফ্লাইট শেষ হয় গত ৮ আগস্ট।

এবার সরকারিভাবে হ’জে যেতে প্যাকেজ-১ এ ৫ লাখ ৮৬ হাজার ৩৪০ এবং প্যাকেজ-২ এ ৫ লাখ ২১ হাজার ১৫০ টাকা খরচ হয়েছে। বেসরকারিভাবে এজেন্সিগুলোর ‘সাধারণ প্যাকেজ’র মাধ্যমে হ’জ পালনে খরচ ধ’রা হয়েছিল ৫ লাখ ২২ হাজার ৭৪৪ টাকা।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: