সর্বশেষ আপডেট : ৪৮ মিনিট ৩৩ সেকেন্ড আগে
সোমবার, ৫ ডিসেম্বর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

৫০ বছর ধরে চলছে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার টেঁটা যু’দ্ধ, বাইরে থেকে হয় অর্থায়ন

তুচ্ছ ঘটনা থেকে টেঁটা-বল্লম যু’দ্ধ, প্রা’ণহানি। এরপর মা’মলা, জীবিকা নিয়ে অনিশ্চয়তা। দেশের অনেকের কাছে হাসাহাসির বিষয়ে পরিণত হলেও ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কয়েকটি উপজে’লায় কিছু পরিবারকে চরম বিপদগ্রস্ত করেছে এই সামাজিক দাঙ্গা।

কবে টেঁটা-বল্লমের এই নিষ্ঠুর ব্যবহার শুরু হয়েছে, তা বলতে না পারলেও ইতিহাসবিদরা বলছেন, অন্তত পাঁচ দশক ধরে দেখা যাচ্ছে এর ভ’য়াবহতা। পু’লিশ বলছে, এসব সং’ঘর্ষে নেপথ্য থেকে উস্কানি দেয় তৃতীয় পক্ষ।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জে’লার কয়েকটি উপজে’লায় টেঁটাযু’দ্ধে প্রা’ণ গেছে সাধারণ মানুষ থেকে জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক নেতা থেকে খেটে খাওয়া দিন মজুরের।

সরাইলের সাবেক ইউপি সদস্য রকেট মেম্বারকে বছর দুয়েক আগে টেঁটা দিয়ে খুঁচিয়ে হ’ত্যা করে প্রতিপক্ষ। ওই ঘটনায় মা’মলা করে এখন উল্টো জীবনহানির শংকায় স্বজনরা।

মা’মলার বাদী ও নি’হত রকেট মেম্বারের ছে’লে শাহনেওয়াজ রনি বলেন, আ’সামিপক্ষ বিচার কাজে অনেক প্রভাব বিস্তার করার চেষ্টা করছে। কোর্টে গেলে তারা হু’মকি দেয়। এমনকি হ’ত্যার হু’মকিও দিচ্ছে।

সংরক্ষিত আসনের নারী সংসদ সদস্যের স্বামী, সরাইল আওয়ামী লীগ নেতা ইকবাল আজাদেকও জীবন দিতে হয় টেঁটাযু’দ্ধে।

সামাজিক দাঙ্গায় কবে থেকে টেঁটা-বল্লমের ব্যবহার তা স্পষ্ট করে বলতে পারছেন না জে’লার ইতিহাসবিদ। জানালেন, গেলো পাঁচ দশকেরও বেশি সময় ধরে চলে আসছে টেঁটাযু’দ্ধ।

ইতিহাস বিশারদ ও কবি জয়নুল আবেদীন বলেন, দুই গ্রামের মধ্যে অনেক হা’মলা ও মা’রামা’রি হয়। আম’রা অনেক আগে থেকেই দেখে আসছি এটা। পঞ্চাশ বছর আগেও যেমন ছিল এখনো তেমন আছে।

পু’লিশ বলছে, এসব সং’ঘর্ষে নেপথ্য থেকে উস্কানি দেয় তৃতীয় পক্ষ। আর তাতেই গোষ্ঠীগত দাঙ্গা চলতে থাকে বছরের পর বছর।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অ’তিরিক্ত পু’লিশ সুপার মোল্লা মোহাম্ম’দ শাহীন বলেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার যেসব মানুষ বাইরে থাকে এইসব সং’ঘর্ষে অর্থায়ন করতো। এখন তারা উপলব্ধি করছে যে কাজগুলো ভুল ছিল। এসব সংঘাত বন্ধে কঠোর অবস্থানের কথা জানান আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কর্মক’র্তারা।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: