সর্বশেষ আপডেট : ২ ঘন্টা আগে
বৃহস্পতিবার, ৬ অক্টোবর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ২১ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

তাহিরপুরে শ্রেণীকক্ষে মা’রা চড়ের বদলা নিতে শিক্ষকদের পে টালো ছাত্ররা

দুই শিক্ষককে পি’ঠিয়ে গুরুত্ব আ’হত করে করেছে একেই বিদ্যালয়ের কয়েকজন ছাত্র। আ’হত অবস্থায় তারা এখন উপজে’লা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এঘটনার এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। আর এমনি ঘটনা ঘটেছে সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজে’লায়।

বুধবার (২১ সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে ৮ টায় দিকে উপজে’লার উত্তর শ্রীপুর ইউনিয়নের লাকমা বাজার সড়কে ঘটনা ঘটে।

আ’হত দুই শিক্ষক উপজে’লার সীমান্তবর্তী টেকেরঘাট চুনাপাথর খনি মাধ্যমিক বিদ্যালয় এন্ড কলেজের-কলেজ শাখার বাংলা বিভাগের প্রভাষক মখলিছুর রহমান ও স্কুল শাখার বাংলা বিভাগের শিক্ষক ম’র্তুজা আলী।

আর অ’ভিযু’ক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের একাদশ শ্রেণির ছাত্র পটিয়া গ্রামের ফিরোজ মিয়ার ছে’লে আল-ইদ্রিস ও তার সঙ্গে আরও কয়েকজনের বি’রুদ্ধে।

প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক ও স্থানীয় এলাকাবাসীর সাথে কথা বলে জানায়,গত মঙ্গলবার বাংলা বিষয়ের ক্লাস চলাকালীন সময়ে আল-ইদ্রিসের অসদাচরণে অ’তিষ্ঠ হয়ে একটি চড় মা’রেন শিক্ষক মখলিছুর রহমান। পরে এ ঘটনাটি প্রতিষ্ঠানটির সিনিয়র শিক্ষকরা মীমাংসা করে দেন। তবুও এ ঘটনার জেরে বুধবার রাতে স্থানীয় লাকমা বাজার থেকে কেনাকা’টা করে নিজ বাসায় টেকেরঘাটে পায়ে হেঁটে ফেরার পথে আল-ইদ্রিস কয়েকজন সঙ্গী নিয়ে মখলিছুর রহমানের ওপর হা’মলা করে। এ সময় আল-ইদ্রিসের হাতে থাকা কাঠের লা’ঠির একাধিক আ’ঘাতে মখলিছুর রহমান আ’হত হন। তাঁর সঙ্গে থাকা সহকর্মী ম’র্তুজা আলী ছাত্রকে থামাতে গেলেও তিনিও হা’মলার শিকার হয়।

এই বিষয়ে একাদশ শ্রেণির ছাত্র পটিয়া গ্রামের ফিরোজ মিয়ার ছে’লে আল-ইদ্রিস ও তার পরিবারের সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

আ’হত শিক্ষক মখলিছুর রহমান বলেন,এ ঘটনা আমাদের ধারণারও বাইরে ছিল। গত মঙ্গলবার ক্লাসের এ ঘটনার পর বিষয়টি সিনিয়র স্যার বিষয়টি সমাধান করে দেন। এ ঘটনার জেরে ন্যাকারজনক হা’মলা চালিয়েছে একাদশ শ্রেণির ছাত্র আল-ইদ্রিস ও তার সঙ্গে আরও কয়েকজন। এতে আমাদের দুজনেরই হাতে-পা ও শরীর র’ক্তাক্ত জ’খম হয়েছি।

টেকেরঘাট চুনাপাথর খনি মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ খায়রুল আলম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান,ক্লাস চলাকালীন সময়ে অসদাচরণের জন্য শাসন করায় হা’মলা করেছেন প্রতিষ্ঠানের একাদশ শ্রেণির ছাত্র পটিয়া গ্রামের ফিরোজ মিয়ার ছে’লে আল-ইদ্রিস ও তার সঙ্গে আরও কয়েকজন। ঐসময় কাঠের লা’ঠির আগাতে শিক্ষকদের হাত ও পা আ’ঘাতপ্রাপ্ত হয়ে র’ক্তাক্ত হয়েছে। স্থানীয় টেকেরঘাট বাজারে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে তারা উপজে’লা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হয়েছেন। এই ন্যাকারজনক ঘটনার দৃষ্টান্তমূলক বিচার চাই। এই বিষয় মা’মলা দায়ের প্রস্তুতি চলছে।

তাহিরপুর থা’নার ওসি সৈয়দ ইফতেখার হোসেন বলেন, ঘটনার খবর পেয়ে সেখানে পু’লিশ পাঠানো হয়,অ’ভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: