সর্বশেষ আপডেট : ৪৮ মিনিট ২৭ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ১ অক্টোবর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১৬ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

কুলাউড়ায় ইউপি চেয়ারম্যানের বি’রুদ্ধে ৭ ইউপি সদস্যের অনাস্থা!

মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজে’লার হাজীপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওয়াদুদ বখশের বি’রুদ্ধে সরকারি সম্পদ আত্মসাৎ, স্বেচ্ছাচারিতা, অনিয়ম, দু’র্নীতি, পরিষদের সদস্যদের সাথে খা’রাপ আচরণ ও ক্ষমতার অ’পব্যবহারের কারণে সাতজন ইউপি সদস্য অনাস্থা প্রস্তাব এনেছেন।

এ বিষয়ে প্রতিকার চেয়ে তার বি’রুদ্ধে দ্রুত আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য জে’লা প্রশাসক বরাবর লিখিত অ’ভিযোগ করেন তারা।

রবিবার (২৮ আগস্ট) দুপুরে জে’লা প্রশাসক মীর নাহিদ আহসানের কাছে ইউপি সদস্যরা লিখিত অ’ভিযোগপত্র দাখিল করেন। যার অনুলিপি স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের সচিব, সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার, দু’র্নীতি দমন কমিশন (দুদক), (হবিগঞ্জ-মৌলভীবাজার)-এর উপপরিচালক, উপজে’লা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজে’লা নির্বাহী কর্মক’র্তা বরাবর দেওয়া হয়।

অ’ভিযোগপত্রে তারা উল্লেখ করেন, ইউপি চেয়ারম্যান ওয়াদুদ বখশ নির্বাচিত হয়ে ক্ষমতা গ্রহণের পর থেকে বেপরোয়া হয়ে ওঠেন। তিনি এলাকার সকল অ’নৈতিক ও অ’প’রাধজনক কর্মকা’ণ্ডের সাথে জ’ড়িত। তার বি’রুদ্ধে ইতিপূর্বে স’ন্ত্রাসীমূলক কার্যকলাপ, চাঁদাবাজিসহ নানা অ’প’রাধের অ’ভিযোগ রয়েছে।

এ ছাড়াও টিআর, কাবিখা, কাবিটা প্রকল্প গ্রহণ করে পছন্দের লোকদের দিয়ে প্রকল্প চেয়ারম্যান নিয়োগ করে কাজ না করেই সমুদয় টাকা আত্মসাৎ করেন। সাধারণ জনগণের সাথে দুর্ব্যবহার, ইউনিয়ন পরিষদ কর্তৃক প্রদত্ত বিভিন্ন সনদ প্রদানে সরকার নির্ধারিত ফি ছাড়াও অ’তিরিক্ত টাকা আদায়ের অ’ভিযোগ তার বি’রুদ্ধে।

এ ঘটনায় সাত ইউপি সদস্য গত ১৬ আগস্ট এক সভায় তার ওপর অনাস্থা প্রস্তাব গ্রহণ করেন।

এ বিষয়ে হাজীপুর ইউপি চেয়ারম্যান ওয়াদুদ বখশ তার বি’রুদ্ধে এসব অ’ভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, ‘তারা যতই অ’ভিযোগ আনুক, আমি স্বচ্ছ আছি। আমা’র কোনো সমস্যা নেই। চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার পর আমি সুতা পরিমাণ কোনো অনিয়ম করিনি।

স্বার্থের কারণে যারা অ’ভিযোগ দিয়েছে ত’দন্ত হলে একটি অ’ভিযোগেরও প্রমাণ তারা দেখাতে পারবে না। ’ নির্বাচিত হওয়ার পর থেকেই তারা বিভিন্নভাবে তার বি’রুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে আসছেন বলেও জানান তিনি।

জে’লা প্রশাসক মীর নাহিদ হাসান বলেন, অ’ভিযোগপত্রটি স্থানীয় সরকার বিভাগের উপপরিচালকের মাধ্যমে ত’দন্ত করা হবে। ত’দন্ত শেষে অ’ভিযোগের সত্যতা পেলে তার বি’রুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ ছাড়া উপজে’লা নির্বাহী কর্মক’র্তাকে বিষয়টি খোঁজ নিয়ে দেখার জন্য বলা হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: