সর্বশেষ আপডেট : ৩ ঘন্টা আগে
বুধবার, ১৭ অগাস্ট ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ২ ভাদ্র ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

শাবির শিক্ষার্থী খু’নে ‘তিনজন’, ‘কল লিস্ট’ মুছে ফেলেছেন সেই ছা’ত্রী

শাহ’জালাল বিজ্ঞান ও প্রযু’ক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের লোকপ্রশাসন বিভাগের শিক্ষার্থী বুলবুল আহমেদের হ’ত্যার ঘটনায় তার সঙ্গে থাকা এক ছা’ত্রীকে নিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে পু’লিশ।

ঘটনার প্রায় ২৪ ঘণ্টার মা’থায় মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম বর্ষের ওই ছা’ত্রীকে নিয়ে ঘটনাস্থলে যায় আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী। পরে তাকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরের কার্যালয়ে নিয়ে আসা হয়।

খু’নের ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের গঠিত ত’দন্ত কমিটির সদস্য বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র উপদেশ ও নির্দেশনা পরিচালক আমিনা পারভীন মঙ্গলবার রাত সোয়া ৮টায় বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডট’কমকে বলেন, ওই ছা’ত্রী জানিয়েছেন, তিনজন মাস্ক পরা লোক এসে বুলবুলকে ডেকে নিয়ে ছু’রিকাঘাত করে।

ছা’ত্রীকে জিজ্ঞাসাবাদ পর্বে থাকা এবং তার সঙ্গে ঘটনাস্থলে যাওয়া ত’দন্ত কমিটির এ সদস্য আরও জানান, ওই ছা’ত্রী তার মোবাইল ফোনের কল লিস্টও মুছে ফেলেছেন।

সোমবার সন্ধ্যায় ক্যাম্পাসের ভেতরে অ’জ্ঞাত হা’মলাকারীর ছু’রিকাঘাতে প্রা’ণ হারান বিশ্ববিদ্যালয়ের লোকপ্রশাসন বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী বুলবুল আহমেদ। এ সময় তার সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম বর্ষের ওই ছা’ত্রী সঙ্গে ছিলেন। বেগম সিরাজুন্নেসা চৌধুরী হলের সামনের টিলায় বুলবুলকে আ’হত অবস্থায় পাওয়া যায়। হাসপাতা’লে নেওয়ার পর তার মৃ’ত্যু হয়।

বুলবুল আ’হতের ঘটনার পর ওই ছা’ত্রী অ’সুস্থ হলে তাকে বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশের মাউন্ট এডোরা হাসপাতা’লে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়।

ছাত্র উপদেশ ও নির্দেশনা পরিচালক আমিনা পারভীন বলেন, “আজও তাকে আম’রা হাসপাতা’লে দেখে এসেছি বেলা ৩টার দিকে। এরপর বিকালে সে হাসপাতাল থেকে চলে এসেছে। তাকে হাসপাতা’লের ছাড়পত্রও দেওয়া হয়নি।”

হাসপাতাল থেকে চলে আসার পর ওই ছা’ত্রীকে বিশ্ববিদ্যালয়ের এককিলো রোডের যাত্রী ছউনিতে বসে থাকতে দেখে পু’লিশ সদস্যরা। ওই সময় তারা ছা’ত্রীকে প্রক্টরের কার্যালয়ে নিয়ে যায়। পরে সাড়ে ৭টার দিকে সেখান থেকে তাকে ঘটনাস্থলে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে ৮টা পর্যন্ত তারা ছিলেন। পরে তাকে আবার প্রক্টর কার্যালয়ে নিয়ে আসা হয়। সেখানেই জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।

ত’দন্ত কমিটির সদস্য আমিনা পারভীন বলেন, “আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা চাচ্ছিলেন যে, এখন যেমন সময় আছে, এই সময়ে নিয়ে গেলে হয়তো সে বিষয়টি আরও ভালো’ভাবে বলতে পারবে। কারণ গতকাল রাতে সাড়ে ৭টার সময়ই ঘটনা ঘটেছিল।”

“ছা’ত্রীর ভাষ্য, বুলবুল আর সে ঘটনাস্থলে বসেছিলেন। হঠাৎ করে ওই স্থানে তিনজন লোক আসেন। তাদের সবার মাস্ক পরা ছিল। তারা এসে বুলবুলকে একটু দূরে সরে নিয়ে যায়। এ সময় ওই ছা’ত্রী অন্যদিকে থাকিয়ে কাউকে ডাকতে চেষ্টা করছিলেন। তারপর বুলবুলের দিকে তাকালে দেখেন, বুলবুলকে ছু’রিকাঘাত করে অ’জ্ঞাতনামা’রা চলে যাচ্ছে।”

আমিনা পারভীন আরও বলেন, “ওই ছা’ত্রীর মোবাইলের কল লিস্ট চেক করেছি আম’রা। সে সব কল লিস্ট ডিলিট করে দিয়েছে।”

“এখন আম’রা ভাবছি তাকে কোথায় রাখা যায়। তাকে কি হলে রাখব নাকি অন্য কোথাও- এটা আম’রা ভেবে দেখছি।”

ওই ছা’ত্রীকে সঙ্গে নিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শনের সময় সিলেট মেট্রোপলিটন পু’লিশের (এসএমপি) উপ-কমিশনার আজবাহার আলী শেখ, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ইশরাত ইবনে ইসমাইল, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য ও সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।

এ ঘটনার বিচার চেয়ে রাতেই রাস্তা অবরোধ করে বি’ক্ষোভ করেন বুলবুলের সহপাঠীরা। পরে প্রশাসনের আশ্বা’সে সড়ক থেকে সরে যান তারা। পরে এ ঘটনায় রাতেই বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার মুহাম্ম’দ ইশফাকুল হোসেন বাদী হয়ে সিলেটের জালালাবাদ থা’নায় মা’মলা করেন।

মা’মলায় বলা হয়, সোমবার সন্ধ্যা ৭টা ৪৫ মিনিটের দিকে বন্ধুদের নিয়ে ক্যাম্পাসের গাজীকালুর টিলা এলাকায় বেড়াতে গিয়ে দুষ্কৃতদের ছু’রিকাঘাতে আ’হত হয় বুলবুল। র’ক্তাক্ত অবস্থায় তাকে উ’দ্ধার করে প্রথমে বিশ্ববিদ্যালয় মেডিকেল সেন্টারে নেওয়া হয়। পরে অ্যাম্বুলেন্সে করে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতা’লে নেওয়া হলে সেখানে চিকিৎসকেরা তাকে মৃ’ত ঘোষণা করেন।

এ ঘটনায় মঙ্গলবার সকালে স’ন্দেহভাজন হিসেবে বহিরাগত তিনজনকে পু’লিশ আ’ট’ক করে বলে সিলেট মহানগর পু’লিশের অ’তিরিক্ত উপকমিশনার বি এম আশরাফ উল্লাহ তাহের জানান।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: