সর্বশেষ আপডেট : ১০ ঘন্টা আগে
মঙ্গলবার, ১৬ অগাস্ট ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১ ভাদ্র ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

আশ্রয়কেন্দ্রে ১৫ হাজার মানুষের বিবর্ণ ঈদ

১০ বছর বয়সী বাকপ্রতিব’ন্ধী রাহুল মিয়া। ২৩ দিন ধরে বাবা-মায়ের সঙ্গে হবিগঞ্জের আজমিরীগঞ্জে মিয়াধন মিয়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় আশ্রয়কেন্দ্রে বসবাস করছে। ঈদে নতুন জামা’র জন্য কা’ন্না করলেও রিকশাচালক বাবা একমাত্র ছে’লেকে কাপড় কিনে দিতে পারেননি। তাই পুরোনো কাপড় পরেই ঈদের নামাজের প্রস্তুতি।

অন্য বছর ঈদের নামাজ শেষে বাড়িতে ফিরে সেমাইসহ সাধ্যমতো খাবারের আয়োজন থাকলেও এবার কিছুই নেই। নামাজ শেষে আশ্রয়কেন্দ্রে ফিরে তাই বাবা-ছে’লের নীরবে বসে থাকা।

রাহুলের বাবা হাসান মিয়া বলেন, ‘আমি গরিব মানুষ। তাই কোরবানি দেয়া আমা’র পক্ষে সম্ভব হয় না। তবুও অন্য বছর নিজের সাধ্যমতো ছে’লেমে’য়ের জন্য নতুন কাপড় কিনে দেই। বাড়িতে সেমাইসহ বিভিন্ন ধরনের পিঠা তৈরি করে আমা’র স্ত্রী’। ঈদের দিন বাড়িতে পোল্ট্রি মোরগ হলেও নেয়া হয়। কিন্তু এ বছর ঈদ কাটছে আশ্রয়কেন্দ্রে। তাই খাবারের আয়োজন করব কী’ভাবে! ছে’লেটা কা’ন্নাকাটি করছে একটা কাপড় কিনে দিতে পারছি না।’

হাসান মিয়ার পরিবারের মতো হবিগঞ্জের কয়েক শ পরিবারের ঈদ কাটছে ব’ন্যা আশ্রয়কেন্দ্রে। জে’লা প্রশাসনের তথ্যমতে, হবিগঞ্জে ৩৩৩টি আশ্রয়কেন্দ্রে বর্তমানে ১৫ হাজার ৩৯৯ জন মানুষ অবস্থান করছেন।

এবার তাদের ঈদ বিষাদময়। পরিবারের শি’শুদের পরনে নেই নতুন কাপড়, নেই ভালোমন্দ খাবারের আয়োজন। অন্যান্য দিনের মতোই ভাত খেয়ে কিংবা না খেয়ে কাটছে ঈদের দিন।

মিয়াধন মিয়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় আশ্রয়কেন্দ্রে রাজিয়া খাতুন বলেন, ‘গরিব হলেও অন্য বছর ঈদের দিন বাড়িতে অনেক আয়োজন করা হয়। স্বামী-সন্তানদের নিয়ে অনেক আনন্দ-ফুর্তি করি। পাড়াপ্রতিবেশীরা গোশত দেয়। কিন্তু এবার আশ্রয়কেন্দ্রে আছি। তাই এক প্লেট সেমাইও ছে’লেমে’য়েদের মুখে তুলে দিতে পারিনি।’

কা’মাল মিয়া বলেন, ‘এক মাস ধরে আশ্রয়কেন্দ্রে। হাতে একটা টাকাও নাই। ঈদে নতুন কাপড়ের জন্য দুইটা ছে’লে কা’ন্নাকাটি করছিল। পরে টাকা ধার করে কাপড় কিনে দিলেও এখন সেমাই কেনার টাকা নাই। তাই ঈদের নামাজ পড়ে গতকালের পান্তা ভাত খেয়েই বসে আছি।’

এদিকে ঈদের দিনে জে’লা-উপজে’লা প্রশাসনের পক্ষ থেকে আশ্রয়কেন্দ্রে দেয়া হয় খিচুড়ি। আজমিরীগঞ্জের ইউএনও সুলতানা সালেহা সুমি বলেন, ‘দুপুরে আজমিরীগঞ্জের আশ্রয়কেন্দ্রগুলোতে ভালো মানের ভুনা খিচুড়ি বিতরণ করা হয়েছে। এ ছাড়া আম’রা আশ্রয়কেন্দ্রের লোকজনের সঙ্গে ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় করেছি।’

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: