সর্বশেষ আপডেট : ১১ ঘন্টা আগে
মঙ্গলবার, ১৬ অগাস্ট ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১ ভাদ্র ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

জাতির কাছে ক্ষমা চাওয়া উচিত নূপুর শর্মার: ভারতীয় সুপ্রিম কোর্ট

বিশ্বনবী হ’জরত মুহাম্ম’দ (সা.)-কে নিয়ে অবমাননাকর বক্তব্যের জন্য বিজেপি থেকে বহিষ্কৃত নূপুর শর্মা’র জাতির কাছে ক্ষমা চাওয়া উচিত বলে মন্তব্য করেছেন ভা’রতের সুপ্রিম কোর্ট।

শুক্রবার দেশটির সুপ্রিম কোর্ট এ মন্তব্য করেন। খবর এনডিটিভির।

এর আগে মহানবী (সা.)-কে নিয়ে অবমাননাকর মন্তব্যের ঘটনার জেরে নূপুরের বি’রুদ্ধে মা’মলা করা হয়েছিল সুপ্রিম কোর্টে।

এদিন মা’মলার শুনানিতে সুপ্রিম কোর্ট স্পষ্ট করে জানিয়ে দিয়েছে, গোটা দেশের কাছে ওই মন্তব্যের জন্য নূপুরের উচিত জাতির কাছে ক্ষমা চাওয়া।

আ’দালত এও বলেছেন, ইস’লামের নবী মুহাম্ম’দ (সা.)-কে অবমাননাকর মন্তব্যের জন্য দেশে যা ঘটেছে তার জন্য একা নূপুর শর্মাই দায়ী।

একটি টেলিভিশন বিতর্কে মুহাম্ম’দ (সা.)-কে নিয়ে কু’রুচিকর কথা বলেন বিজেপির সাবেক সর্বভা’রতীয় এ মুখপাত্র। এর জেরে ভা’রতসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে তীব্র ক্ষোভ দেখা দেয়।

এদিন সেই প্রসঙ্গ টেনে বিচারপতি সূর্য কান্ত বলেছেন, আম’রা ওই শোটি দেখেছি। তিনি যেভাবে বিষয়টি উপস্থাপন করেছিলেন এবং পরে বলেছিলেন, তিনি একজন আইনজীবী, এটি লজ্জাজনক। তার উচিত জাতির কাছে ক্ষমা চাওয়া।

এদিকে নূপুরের আইনজীবী আ’দালতে দাবি করেন, নূপুর শর্মা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। তাকে প্রতিদিন প্রা’ণনাশের হু’মকি দেওয়া হচ্ছে।

‘সম আচরণ’ এবং ‘কোনো বৈষম্য নয়’ বিষয়ে নূপুর শর্মা’র যু’ক্তি খারিজ করে দিয়ে বিচারকরা বলেন, যখন আপনি অন্যের বি’রুদ্ধে এফআইআর দাখিল করেন তাদের তাৎক্ষণিক গ্রে’প্তার করা হয়েছে আর যখন এটি আপনার বি’রুদ্ধে হয়েছে কেউ আপনাকে স্প’র্শ করার সাহসও করেনা।

সুপ্রিম কোর্ট বলেন, তার মন্তব্য তার ‘অবাধ্য এবং অহংকারী চরিত্রকে’ দেখিয়েছে। তিনি যদি কোনো দলের মুখপাত্র হন, তিন মনে করেন, তার পেছনে ক্ষমতার সম’র্থন রয়েছে। আর রাষ্ট্রের আইনের প্রতি শ্রদ্ধা না দেখিয়ে তিনি কি যে কোনো ধরনের বিবৃতি দিতে পারেন?

তখন নূপুরের আইনজীবী বলেন, তিনি শুধু টেলিভিশন বিতর্কের উপস্থাপকের প্রশ্নের জবাব দিয়েছেন।

তখন সুপ্রিম কোর্ট বলেন, তাহলে উপস্থাপকের বি’রুদ্ধে মা’মলা হওয়া উচিত ছিল।

তখন আইনজীবী নাগরিকদের কথা বলার অধিকারের বিষয় সামনে আনেন। জবাবে বিচারক ব্যঙ্গাত্মকভাবে বলেন, গণতান্ত্রিক দেশে কথা বলার অধিকার সবার রয়েছে। গণতান্ত্রিক দেশে ঘাসের বেড়ে উঠার অধিকার রয়েছে এবং গাধার অধিকার রয়েছে তা খাওয়ার।

সুপ্রিম কোর্ট বলেন, তাকে সাংবাদিকদের কাতারে বসানো যাবে না। যখন তিনি টিভি বিতর্কে গিয়ে শ্লীলতাহানি করেন এবং সমাজের কাঠামোতে এর প্রভাব এবং পরিণতির কথা চিন্তা না করে দায়িত্বজ্ঞানহীন বক্তব্য দেন।

মহানবী (সা.)-কে নিয়ে নূপুর শর্মা’র করা মন্তব্যের পর থেকেই দেশটির পরিস্থিতি উত্তপ্ত। এ ছাড়া এ ঘটনায় মাধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশ কড়া প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়েছে। বিজেপি যদিও ঘটনার শুরুর দিকেই পরিস্থিতি সামাল দিতে তাদের এ মুখপাত্রকে বহিষ্কার করেছিল। কিন্তু এতে নিন্দার ঝড় থামানো যায়নি।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: