সর্বশেষ আপডেট : ৪ ঘন্টা আগে
রবিবার, ২৬ জুন ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১২ আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

জৈন্তাপুরের বানভাসি মানুষের পাশে ত্রাণ সহায়তা নিয়ে সিলেটের সার্ক কলেজ

সিলেট নগরীর সার্ক ইন্টারন্যাশনাল কলেজ বাংলাদেশ এর চেয়ারম্যান ওসমানীনগরের কৃতি সন্তান ইংল্যান্ড প্রবাসী আফাজুর রহমান এবং তাঁর ব্যবসায়িক পার্টনার সচ্চল ছালিক, নিজাম আলী ও অন্যান্য ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান এর উদ্যোগে, সার্ক ইন্টারন্যাশনাল কলেজ বাংলাদেশ ও সার্ক ইন্টারন্যাশনাল স্কুলভ বাংলাদেশ এর যৌথ ব্যবস্থাপনায় সিলেটের জৈন্তাপুরের বানভাসি মানুষের মধ্যে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে।

বুধবার (২২ জুন) জৈন্তাপুরের হরিপুর, হেমু, ভাটপাড়া, মাঝপাড়া, দত্তপাড়া, নয়াগ্রাম, হাকরগ্রাম, ভেলোপাড়া, কাইতগ্রাম, শিকারখাঁ ও লামা শ্যামপুর গ্রামের দুর্গত মানুষের বাড়ী বাড়ী গিয়ে এ ত্রাণ সামগ্রী পৌছিয়ে দেয়া হয়।

ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ কার্যক্রমে উপস্থিত ছিলেন সার্ক ইন্টারন্যাশনাল কলেজ বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও অধ্যক্ষ রোটারিয়ান মোহাম্মদ মহি উদ্দিন ফারুক, মার্কেটিং ডিরেক্টর রোটারিয়ান জাকির হোসাইন, মিডিয়া কো-অর্ডিনেটর তাওহীদুল ইসলাম, সার্ক কলেজের প্রাক্তন শিক্ষার্থী ও হরিপুর বাজার ব্যবসায়ী কমিটির সাধারণ সম্পাদক সুয়েব আহমদ, আব্দুল্লাহ ইলিয়াছ, জয়নাল আহমদ, কাওসার আহমদ ও জালাল উদ্দিন প্রমুখ।

সার্ক কলেজের প্রিন্সিপাল মোহাম্মদ মহি উদ্দিন ফারুক বলেন, স্মরণকালের ভয়াবহ এ বন্যায় আমরা আমাদের সাধ্যমত সহযোগিতা করার আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। তিনি বলেন, আমরা সবচেয়ে বেশি অগ্রাধিকার দিবো বন্যা পরবর্তী পুনর্বাসনে। সরকারের পাশাপাশি ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানগুলো যেভাবে এগিয়ে এসেছে ইনশাআল্লাহ আমরা খুব দ্রুত স্বাভাবিক জীবনে ফিরে যেতে পারবো, আল্লাহ আমাদের সহায় হোন ।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: