সর্বশেষ আপডেট : ৭ ঘন্টা আগে
মঙ্গলবার, ২৮ জুন ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১৪ আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

আমি সরকারি দলের লোক, আমার সরকারি গুন্ডা আছে: চেয়ারম্যান প্রার্থী

নিজেকে সরকারি দলের লোক দাবি করে এবার বাঁশখালীতে এক ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থী দাবি করেছেন, তার লাইসেন্সধারী সরকারি গুন্ডা আছে।

বাঁশখালীর পুঁইছড়ি ইউপি নির্বাচনের প্রচার সভায় কৃষক লীগ নেতা জাকের হোসেন চৌধুরী বাচ্চুর এই বক্তব্যের ভিডিও ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে। জাকের হোসেন কৃষক লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সদস্য এবং পুঁইছড়ি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী।

সোমবার (৩০ মে) রাতে পুঁইছড়ি ইউনিয়নের প্রে’ম বাজার এলাকায় এক পথসভায় এই বক্তব্য দেন তিনি।

ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়া ৪০ সেকেন্ডের ওই ভিডিওতে তাকে বলতে দেখা যায়, ‘আমি আপনাদের আশ্বস্ত করতে চাই, আপনারা শান্তিপূর্ণভাবে ভোট দিতে পারবেন। এখানে যত বড় গুন্ডা হোক, যত বড় পয়সাওয়ালা হোক। এক বিন্দুমাত্র বিশৃঙ্খলা করতে পারবে না। আমি সরকারি দলের লোক, আমা’র তো সরকারি গুন্ডা আছে। আছে না, লাইসেন্সধারী? এরা কি ওদের (প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর) কাজ করবে? না আমি নির্দেশ দিলে আমা’র কাজ করবে?

‘এনার এত হু’মকি-ধমকি ভ’য় পায়, এগুলো আপনারা করবেন না। এগুলো আপনারা জানেন। আপনারা ভালো ভালোই জানেন, এই এলাকায়, এই প্রে’ম বাজার একসময় ডা’কাতের অভ’য়ারণ্য ছিল। ডা’কাতি এমনভাবে করত তারা, রাতে ডা’কাতি করত, দিনের বেলায় এখানে বিভিন্ন জায়গায় জুয়া খেলা দিত। এটা আওয়ামী লীগ নামধারী হয়েছিল।’

তবে বক্তব্যের ওই অংশটি স্লিপ অব টাং বলে দাবি করেছেন চেয়ারম্যান প্রার্থী জাকের হোসেন চৌধুরী বাচ্চু। তিনি সংবাদমাধ্যমকে বলেন, আসলে ওরা আমাদের অ’স্ত্র ও গুন্ডার হু’মকি দিচ্ছিল। তাই আমি বলতে চেয়েছি আমাদেরও তো ক্ষমতা আছে, চাইলে আম’রাও হু’মকি দিতে পারি। তবে সরকারি গুন্ডা শব্দটি অনিচ্ছাকৃত উচ্চারিত হয়েছে।

এ বিষয়ে আজ বাঁশখালী উপজে’লা নির্বাচন কর্মক’র্তা মো. ফয়সাল আলম বলেন, পুইছড়ি ইউনিয়নের এক প্রার্থীর একটি ভিডিও লিংক আম’রা পেয়েছি। এই বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে তাকে শোকজ করা হচ্ছে। আজকেই তাকে শোকজ করা হবে।

একদিন আগে ‘ইভিএম না হলে রাতেই আমি ভোট মে’রে দিতাম’ সমাবেশে এমন বক্তব্য দিয়ে সমালোচনার মুখে পড়েন বাঁশখালীর চাম্বল ইউপি নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী মুজিবুল হক চৌধুরী। এই ঘটনায় আচরণবিধি লঙ্ঘনের অ’ভিযোগ এনে তাকে শোকজ করেছেন নির্বাচন কর্মক’র্তা।

এ বিষয়ে বাঁশখালী উপজে’লা নির্বাচন কর্মক’র্তা মো. ফয়সাল আলম বলেন, মুজিবুল হককে গতকাল শোকজ করা হয়েছে। তাকে শোকজের জবাব দিতে বুধবার পর্যন্ত সময় দেওয়া হয়েছে। মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৩টা পর্যন্ত শোকজের জবাব দেননি তিনি।

উল্লেখ্য, পুইছড়ি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন আগামী ১৫ জুন অনুষ্ঠিত হবে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: