সর্বশেষ আপডেট : ১ ঘন্টা আগে
শনিবার, ১ অক্টোবর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১৬ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

সিলেট সীমান্ত দিয়ে অবাধে ঢুকছে ভারতীয় মোবাইল ফোন

ঈদ সামনে রেখে সিলেটের বিভিন্ন স্হানে মোবাইল ফোনসেট চোরাচালান ও জাল নোট বিক্রয় চক্র সক্রিয় হয়ে উঠেছে। কোনো কোনো সময় তারা ধরা পড়ে, আবার অধিকাংশ ক্ষেত্রেই অধরা থেকে যায় তারা। গত বৃহস্পতিবার সিলেট-জাফলং সড়কের একটি রেস্টুরেন্টে সাড়ে ১২ লাখ টাকা মূল্যের ১০০টি ভারতীয় মোবাইল ফোনসহ তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ। একই দিন হবিগঞ্জের মাধবপুরে অভিযান চালিয়ে জাল নোট বেচাকেনার সঙ্গে জড়িত এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব। এর আগে কানাইঘাট, জকিগঞ্জ ও সিলেট সদর উপজেলার কুমারগাঁও বাসটার্মিনাল থেকে জাল টাকাসহ জড়িতদের গ্রেফতার করা হয়। এর আগে গত জানুয়ারি মাসে গোয়াইনঘাটে ৩০ লাখ টাকার অবৈধ মোবাইল ফোন আটক করে পুলিশ।

সূত্রমতে, সিলেটের সীমান্ত এলাকা জাফলং ও গোয়াইনঘাট পণ্য চোরাচালানের নিরাপদ স্পটে পরিণত হয়েছে। সীমান্তপথে বিভিন্ন ব্র্যান্ডের নতুন ও চোরাই মোবাইল ফোনের চালান আসছে। এসব অবৈধ মোবাইল ফোনসেট ব্যবসার সঙ্গে জড়িত স্হানীয় প্রভাবশালী মহল। ফলে অনেক সময় এগুলো ধরা পড়ে না। মাঝেমধ্যে লেনদেনে গরমিল হলেই চালান ধরিয়ে দেওয়া হয়। এরপর কিছুদিন চোরাচালান বন্ধ থাকে। রফাদফার পর আবার শুরু হয়। জানা গেছে, সিলেট, রাজাধানী ঢাকাসহ দেশের বড় বড় শহরের মার্কেটে এসব মোবাইল ফোনসেট বিক্রি হচ্ছে আকর্ষণীয় মূল্যে। অবৈধ পথে আনা এসব মোবাইল কিনে প্রতারিতও হচ্ছে সাধারণ মানুষ।

বৃহস্পতিবার সিলেট-জাফলং সড়কের পীরের বাজারে শাহ সুন্দর রেস্টুরেন্টে সাড়ে ১২ লাখ টাকা মূল্যের ১০০ ভারতীয় মোবাইল ফোনসেটসহ তিন জনকে আটক করে পুলিশ। তারা শুল্ক ফাঁকি দিয়ে অবৈধভাবে মোবাইল ফোনগুলো পাচার করে এনেছে। আটক ব্যক্তিরা হলেন সিলেট জেলার জৈন্তাপুর উপজেলার মোকামপুঞ্জির জাফর সাদেক জয় আলী (২২), একই উপজেলার বাউরভাগের আক্তার হোসেন (২২) ও ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলার পাঠানটিলার লিমন মিয়া (২৮)। জাফর সাদেক এলাকার একজন প্রভাবশালী ব্যক্তির ছেলে। তাদের আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

এর আগে গত জানুয়ারি মাসে গোয়াইঘটে ৩০ লাখ টাকার ২০২টি মোবাইল ফোনসেট আটক হলেও কেউ গ্রেফতার হয়নি। সীমান্ত এলাকা বিছনাকান্দি দিয়ে অবৈধ পথে বাংলাদেশে প্রবেশ করে এগুলো। গোয়াইনঘাট থানার ওসি জানান, ভারতের চোরাইকৃত মোবাইল ফোনের আইএমইআই নম্বর বাংলাদেশে আসার পর শনাক্ত না হওয়ার সুযোগকে কাজে লাগাচ্ছে চোরাকারবারিরা। ডেইলি ইত্তেফাক

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: