সর্বশেষ আপডেট : ১ ঘন্টা আগে
বুধবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১৩ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

ইউরোপের দেশ রোমানিয়াকে আরও বেশি বাংলাদেশি মানবসম্পদ নেওয়ার আহ্বান

রোমানিয়াকে অধিকহারে বাংলাদেশি দক্ষ মানবসম্পদ নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস। সেইসঙ্গে দু’দেশের বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সম্ভাবনাকে আরও সম্প্রসারণে বাংলাদেশে রোমানিয়ার দূতাবাস স্থাপনের প্রস্তাব করেন তাপস।

মঙ্গলবার (১৫ মা’র্চ) ঢাকা চেম্বার অব কমা’র্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (ডিসিসিআই) আয়োজিত ‘বাংলাদেশ ও রোমানিয়ার মধ্যকার বাণিজ্য এবং বিনিয়োগ সম্ভাবনা’ শীর্ষক ডায়ালগে প্রধান অ’তিথির বক্তব্যে এ আহ্বান জানান তিনি।

ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস দু’দেশের বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সম্ভাবনাকে আরো সম্প্রসারণে বাংলাদেশে রোমানিয়ার দূতাবাস স্থাপনের প্রস্তাব দেওয়ার পাশপাশি দু’দেশের মধ্যকার পর্যটন খাতের উন্নয়নে সহযোগিতা বাড়ানোর আহ্বান জানান।

তিনি উল্লেখ করেন, নির্মাণ শিল্পে বাংলাদেশে প্রচুর দক্ষ মানবসম্পদ সম্পদ রয়েছে এবং রোমানিয়ার অবকাঠামো খাতের উন্নয়নে বাংলাদেশ থেকে এ খাতের দক্ষ মানবসম্পদ নিতে পারে। বাংলাদেশ সরকার বিদেশি বিনিয়োগকারীদের জন্য নানাবিধ সুবিধা দিচ্ছে, যার সুযোগ গ্রহণ করে রোমানিয়ার উদ্যোক্তাদের ‘বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল’ গুলোতে বিনিয়োগ এগিয়ে আসতে পারেন।

তিনি বলেন, কোনো ধরনের রাজস্ব ও শুল্ক না বাড়িয়ে ডিএসসিসি চলতি অর্থবছরে প্রায় ৯০০ কোটি টাকার রাজস্ব আহ’রণের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে।এছাড়া ব্যবসা-বাণিজ্যিক কার্যক্রমে সহায়তা দেওয়ার লক্ষ্যে দক্ষিণ সিটি করপোরেশন ডিসিসিআইতে একটি ‘হেল্প ডেস্ক’ স্থাপন করবে, যাতে করে উদ্যোক্তারা ট্রেড লাইসেন্স নবায়ন কার্যক্রম কোনো ধরনের প্রতিবন্ধকতা ছাড়াই কম সময়ে এ সুবিধা নিতে পারেন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অ’তিথির বক্তব্যে রোমানিয়ার রাজধানী বুখারেস্টের মেয়র রবার্ট সোরিন নেগোইতা বলেন, দু’দেশের অথনৈতিক কর্মকা’ণ্ডে বেশ সামঞ্জস্যতা রয়েছে এবং দেশ দুটোর বেসরকারিখাতের প্রতিনিধিদের যোগাযোগ আরও বাড়ানোর পাশাপাশি বাংলাদেশ থেকে বাণিজ্য প্রতিনিধি পাঠানোর প্রস্তাব করেন।

রোমানিয়াকে ইউরোপের দেশগুলোর প্রবেশদ্বার হিসেবে বিবেচনা করা হয়ে থাকে এবং এ সুযোগ গ্রহণ করে বাংলাদেশের উদ্যোক্তারা তার দেশে বিনিয়োগের মাধ্যমে উৎপাদিত পণ্য সহ’জেই ইউরোপে রপ্তানির সুযোগ পেতে পারে। বাংলাদেশের কৃষি ও তথ্য-প্রযু’ক্তি খাতের উন্নয়নে রোমানিয়া সহায়তা দিতে অ’ত্যন্ত আগ্রহী। রোমানিয়ার টেক্সটাইল খাতের উন্নয়নে দক্ষকর্মী প্রয়োজন এবং এক্ষেত্রে বাংলাদেশকে টেক্সটাইল খাতে দক্ষকর্মী পাঠানোতে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তিনি।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্যে ঢাকা চেম্বারের সভাপতি রিজওয়ান রাহমান বলেন, বাংলাদেশের উৎপাদিত পণ্য বর্হিবিশ্বে রপ্তানি সম্প্রসারণের বিষয়টি এখন সর্বাধিক গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে। এমতাবস্থায় রোমানিয়ার মত ইউরোপের অন্যান্য দেশ পণ্য রপ্তানি বাড়ানোর ওপর আমাদের আরও মনোযোগী হওয়া প্রয়োজন।

দু’দেশের দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্যের পরিমাণ প্রায় ৪৯ দশমিক ৯৭ মিলিয়ন মা’র্কিন ডলার, যার মধ্যে বাংলাদেশ প্রতিবছর প্রায় ২২ দশমিক ৫৮ মিলিয়ন মা’র্কিন ডলারের পণ্য রোমানিয়াতে রপ্তানি করে থাকে। বাংলাদেশ থেকে বর্তমানে প্রচুর পরিমাণে তৈরি পোশাক রোমানিয়া রপ্তানি হয়ে থাকে।

বাংলাদেশের আসবাবপত্র, প্লাস্টিক পণ্য, ওষুধ, পাট ও পাটজাত পণ্য, পাদুকা ও চামড়াজাত পণ্য প্রভৃতি আম’দানির জন্য রোমানিয়ার উদ্যোক্তাদের প্রতি আহ্বান জানান ডিসিসিআই সভাপতি। তিনি বলেন, রোমানিয়ার শিল্পখাতের গতিধারা আরও সম্প্রসারণে বাংলাদেশ থেকে বেশি হারে দক্ষ মানবসম্পদ নেওয়া যেতে পারে।

ডিসিসিআই সভাপতি আরও বলেন, আমাদের বিশেষায়িত অর্থনৈতিক অঞ্চলগুলোতে বিদেশি বিনিয়োগকারীদের জন্য অ’ত্যন্ত সম্ভাবনাময় এবং এ ধরনের শিল্প এলাকায় বিশেষ করে অটোমোবাইল খাতে বিনিয়োগে রোমানিয়ার উদ্যোক্তারা এগিয়ে আসতে পারে।

অনুষ্ঠানের নির্ধারিত আলোচনায় বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব ইন্টারন্যাশনাল রিক্রুটিং এজেন্সিজের সাবেক সভাপতি বেনজীর আহমেদ, জাতীয় দক্ষতা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (এনএসডি) সদস্য (যুগ্ম সচিব) মো. নূরুল আমিন এবং বাংলাদেশ নিটওয়ার ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিকেএমইএ) ঊর্ধ্বতন সহ-সভাপতি মানসুর আহমেদ প্রমুখ অংশ নেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: