সর্বশেষ আপডেট : ৫ মিনিট ২৮ সেকেন্ড আগে
বৃহস্পতিবার, ২০ জানুয়ারী ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ৭ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

এডোরার ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প ও সেরিব্রাল পালসি ক্লিনিক উদ্বোধন

প্রতিবন্ধী ব্যক্তিকে সমাজের বাইরে রাখা যাবে না, তাদেরকে মুল স্রোতের মধ্যে রাখতে হবে। সমাজের সবকিছুতে তাদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে হবে। স্টিফেন হকিং ডিজেবল হয়েও বিশ্বজয় করেছেন, তাই প্রতিবন্ধী বলে কাউকে হেয় প্রতিপন্ন করা উচিত নয়।

বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস-২০২১ উদযাপন উপলক্ষে ‘এডোরা শিশু বিকাশ সেবা’ আয়োজিত ‘কোভিডোত্তর বিশ্বের টেকসই উন্নয়ন প্রতিবন্ধী ব্যক্তির নেতৃত্ব ও অংশগ্রহণ’ শীর্ষক সেমিনার ও বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন শিশুদের জন্য ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প ও সেরিব্রাল পালসি ক্লিনিক উদ্বোধনকালে বক্তারা একথা বলেন।

শুক্রবার (০৩ ডিসেম্বর) সকাল ১১টায় আখালিয়াস্থ ‘এডোরা শিশু বিকাশ বিকাশ কেন্দ্রের কার্যালয় প্রাঙ্গনে সুরমা হোল্ডিংস লিমিটেডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. খন্দকার মোহাম্মদ আখতারুজ্জামানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন নর্থইষ্ট মেডিকেল কলেজের প্রাক্তন অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. মো. মনোজ্জির আলী।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে এডোরা শিশু বিকাশ সেবা কার্যক্রমের প্রশংসা করে তিনি বলেন, প্রতিবন্ধীরা সমাজের বোঝা নয়, উন্নতির অংশ হতে পারে। আমাদেও দেশে ৬ লাখেরও বেশি শিশু সেরিব্রাল পালসিতে আক্রান্ত। ট্রিটমেন্টের মাধ্যমে পুরোপুরি সুস্থতা সম্ভব নয়, কিন্তু ইম্প্রভমেন্ট সম্ভব। এগুলো একদিনে হবে না, ধৈর্য্যের সাথে দীর্ঘদিন কাজ করতে হবে। এক্ষেত্রে মায়েদের ভূমিকা সবচেয়ে বেশি রাখতে হবে।

অনুষ্ঠানের মূল প্রতিপাদ্য বিষয় উপস্থাপন করেন সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজের সহকারি অধ্যাপক ডা. আখলাক আহমেদ।

এসময় সম্মানীয় অতিথির বক্তব্য রাখেন সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজের প্রাক্তন অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. মো. রেজাউল করিম। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. মখলিসুর রহমান কামরান, বাংলাদেশ পেডিয়াট্রিক এসোসিয়েশন সিলেট এর সভাপতি ডা. মো. মুজিবুল হক এবং সিলেট প্রেসক্লাবের সভাপতি ইকবাল সিদ্দিকী।

সানজিদা ও সুহেলের যৌথ উপস্থাপনায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন, সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজের সহকারি অধ্যাপক ডা. আহমদ রিয়াদ চৌধুরী ও ডা. ফারিয়াল বিলকিস । স্পন্সরশীপ প্রতিষ্ঠান ইবনে সিনা ফার্মার পক্ষে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন মো. আমিনুল ইসলাম, এডোরা শিশু বিকাশ কেন্দ্রের গত এক বছরের কার্যক্রম তুলে ধরেন ফিজিওথেরাপিস্ট মো. শাহিন মোল্লা।

মূল প্রতিপাদ্য উপস্থাপনে ডা. আখলাক আহমেদ জানান, বাংলাদেশে প্রতি ১০০০ জনে ৩.৭ জন শিশু সেরিব্রাল পালসিতে আক্রান্ত হয়। ১৯৯২ সাল থেকে বিশ্বব্যাপী আন্তর্জাতিক প্রতিবন্ধী দিবস উদযাপিত হচ্ছে।

উল্লেখ্য, এডোরা শিশু বিকাশ সেবা প্রতিবন্ধী শিশুদের সুষ্ঠু বিকাশের লক্ষ্যে চলতি বছরের জানুয়ারিতে প্রতিষ্ঠিত হয়। প্রতিষ্ঠানটি এ পর্যন্ত ৩৬ জন বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন শিশুকে পিচ থেরাপীসহ নিয়মিত চিকিৎসা সেবা করে যাচ্ছে । শিশুদের সুষ্টু বিকাশের জন্য মাসে একবার ঢাকা থেকে বিশেষজ্ঞ ডাক্তার, ফিজিওথেরাপিস্টদের মাধ্যমে শিশু এবং শিশুর অভিভাবকদের ট্রেনিং চিকিৎসার ব্যবস্থাপত্র দেয়া হয়।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  • 36
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    36
    Shares

Comments are closed.

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: