সর্বশেষ আপডেট : ২০ মিনিট ১৫ সেকেন্ড আগে
সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১১ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

সিলেটে ওমিক্রন নিয়ে উদ্বেগ : ওসমানীতে নেই আরটি-পিসিআর ল্যাব

প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা থাকলেও ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে করোনা পরীক্ষার আরটি-পিসিআর ল্যাব স্থাপন এখনো বাস্তবায়ন হয়নি। ফলে করোনাভাইরাসের নতুন ধরন ওমিক্রন নিয়ে সিলেটেও উদ্বেগ তৈরি হয়েছে।

বিমানবন্দরে ল্যাব না থাকায় বিভিন্ন দেশ থেকে আসা যাত্রীদের করোনা পরীক্ষা সম্ভব হচ্ছে না। তবে সিলেটের সাথে দক্ষিণ আফ্রিকার সরাসরি কোন ফ্লাইট না থাকায় আপাতত উদ্বেগের কোন কারণ দেখছেন না সংশ্লিস্টরা।

ওসমানী বিমানবন্দর সূত্রে জানা গেছে, সরাসরি ফ্লাইট না থাকলেও বিমানবন্দরে আসা যাত্রীদের তথ্য যাচাই-বাছাই করা হচ্ছে। সম্প্রতি তাঁদের আফ্রিকার কোনো দেশে যাতায়াত আছে কি না, সে বিষয়ও যাচাই করা হচ্ছে। ওমিক্রন ঠেকাতে সতর্কতার অংশ হিসেবে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ১৫ দফা নির্দেশনা পালন করা হচ্ছে।

সিলেট স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্র জানায়, প্রধানমন্ত্রীর নির্দশনার পর বিমানবন্দরে বিদেশ যাত্রীদের করোনা পরীক্ষার জন্য আরটি-পিসিআর ল্যাব স্থাপনের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। তবে সেই কার্যক্রম বর্তমানে জায়গা নির্ধারণ পর্যায়েই রয়েছে। স্বাস্থ্য বিভাগের দল জায়গা নির্ধারণ করে একটি প্রস্তাব স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে পাঠিয়েছে। তবে কবে নাগাদ করোনা পরীক্ষার যন্ত্র সিলেট বিমানবন্দরে স্থাপন করা হবে, তা এখনো জানানো হয়নি।

জেলা সিভিল সার্জন অফিস বলছে, ওমিক্রন ঠেকাতে আফ্রিকার দেশগুলো থেকে সিলেটে আসা যাত্রীদের বাধ্যতামূলক ১৪ দিন কোয়ারেন্টিনসহ সব নির্দেশনা মেনে চলার কথা বলা হয়েছে। যদিও সিলেটের সঙ্গে আফ্রিকার দেশগুলোর সরাসরি কোনো ফ্লাইট নেই। কিন্তু তৃতীয় কোনো দেশ হয়ে সিলেটে আসছেন কি না, সেটি পর্যালোচনা করে দেখা হচ্ছে।

সিভিল সার্জন অফিসের একজন কর্মকর্তা জানান, বিমানবন্দরে করোনা ল্যাবরেটরি নেই। স্বাস্থ্য বিভাগ চাইলেই পরীক্ষাগার স্থাপন করতে পারবে না। এখানে কয়েকটি মন্ত্রণালয় আছে। ল্যাবরেটরি স্থাপনের জন্য জায়গা নির্ধারণ করে সেসংক্রান্ত প্রস্তাব মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। শিগগিরই বিমানবন্দরে পরীক্ষাগার স্থাপন করা হবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

এদিকে, ওমিক্রন প্রতিরোধে সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরসহ সব কয়টি ইমিগ্রেশনে সতর্কতা জারি করা হয়েছে। নির্দেশনা পাওয়ার পর বুধবার এই সতর্কতা জারি করেন সিলেটের সিভিল সার্জন প্রেমানন্দ মণ্ডল।

সিভিল সার্জন জানান, ওমিক্রন ছড়ানো আফ্রিকার দেশগুলো থেকে যারা সিলেটে আসবে তাদের বাধ্যতামূলক ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। পাশাপাশি সিলেটের সব ইমিগ্রেশন সেন্টারকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা সিলেটের স্থলবন্দরগুলো ভ্রমণ করে এ বিষয়ে পরবর্তী করণীয় নির্ধারণ করবেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Comments are closed.

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: