সর্বশেষ আপডেট : ১৭ মিনিট ৩৪ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ৫ ডিসেম্বর ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

‘শর্তযুক্ত’ হলেও বিদেশ নিতে চায় তার পরিবার

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা ক্রমাগত খা’রাপ হচ্ছে। অভ্যন্তরীণ র’ক্তক্ষরণের কারণে তাকে র’ক্ত দিতে হচ্ছে। এমন পরিস্থিতিতে জীবন সংকটে ‘শর্তযু’ক্ত’ হলেও উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে বিদেশ নিতে চায় তার পরিবার। তবে গতকাল বুধবার পর্যন্ত সরকারের অনুমতি মেলেনি।

দলের নির্ভরযোগ্য সূত্র জানিয়েছে, যে প্রক্রিয়ায় এখন চিকিৎসা চলছে, তাতে র’ক্ত দিয়ে খালেদা জিয়াকে বেশি দিন সুস্থ রাখা সম্ভব নয়। এমনটি চিকিৎসকরাও মনে করছেন। কেন খালেদা জিয়ার বারবার র’ক্তক্ষরণ হচ্ছে, তা নির্ণয় করতে গত রাতে এন্ডোস্কপি করা হয়েছে। এমন অবস্থার মধ্যে মঙ্গলবার রাত থেকে নানা গুজব রটছে। তার শারীরিক অবস্থার বিষয়টি দিনভর নানাভাবে আলোচনায় এসেছে। দলের নেতাকর্মীদের অনেকে ছুটে গেছেন এভা’রকেয়ার হাসপাতা’লে।

খালেদা জিয়ার ছোট বোন সেলিমা ইস’লাম গতকাল সাংবাদিকদের বলেন, তার বোনের শারীরিক অবস্থা খুবই নাজুক। তাকে দ্রুত বিদেশ নেওয়ার প্রয়োজন। সরকারের কাছে কয়েকবার আবেদন করা হয়েছে। কিন্তু এখনো অনুমতি দেয়নি।

এদিকে পরিস্থিতি বিবেচেনায় খালেদা জিয়ার মুক্তি ও বিদেশে উন্নত চিকিৎসার দাবিতে আট দিনের কর্মসূচি ঘোষণা করেছে বিএনপি। কর্মসূচির অংশ হিসেবে বুধবার সারাদেশে জে’লা প্রশাসকের কাছে স্মা’রকলিপি দিয়েছে দলের নেতারা। খালেদা জিয়াকে বিদেশ পাঠাতে সমঝোতার পথ খোলা রেখে কর্মসূচি দেওয়া হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

দলের নীতিনির্ধারকরা জানিয়েছেন, খালেদা জিয়ার চিকিৎসার বিষয়টি দেখভাল করছে পরিবার। সম্প্রতি খালেদা জিয়াকে তার ছোট ভাই শামীম এস্কান্দার বিদেশ নেওয়ার জন্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আবেদন জানিয়েছেন বলে জানা গেছে। চিকিৎসকরা উন্নত চিকিৎসার জন্য যু’ক্তরাষ্ট্র, যু’ক্তরাজ্য ও জার্মানি নেওয়ার পরাম’র্শ দিয়েছেন। তবে এ মুহূর্তে শর্ত দিয়ে হলেও উন্নত যে কোনো দেশে তাকে নিতে রাজি পরিবার।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দলের এক জ্যেষ্ঠ নেতা বলেন, বিএনপি এখনো পর্যন্ত কঠোর কর্মসূচি দেয়নি। বেগম জিয়ার উন্নত চিকিৎসার ব্যাপারে জনমত সৃষ্টি ও বিদেশিদের দৃষ্টিগোচর করতে বি’ক্ষোভ, অনশন ও স্মা’রকলিপি পেশের মতো ‘নিরীহ’ কর্মসূচি দেওয়া হয়েছে। কারণ চিকিৎসার বিষয়টি নিয়ে দল রাজনীতি করতে চায় না। সরকারের সঙ্গে আলোচনার মাধ্যমে তাকে বিদেশ পাঠাতে চায় দল।

অবশ্য এ ব্যাপারে কেউ মুখ খুলতে রাজি হননি। একাধিক নেতা ও খালেদা জিয়ার পরিবারের নির্ভরযোগ্য সূত্র বলছে, সরকারের সঙ্গে বিভিন্ন মাধ্যমে আলোচনা চলছে। তবে আশাব্যঞ্জক কোনো খবর নেই। পরিস্থিতি বিবেচনায় তাকে আপাতত উন্নত চিকিৎসা আছে, এমন যে কোনো দেশে তাকে নেওয়ার ব্যাপারেও সরকারের উচ্চপর্যায়ে জানানো হয়েছে।

খালেদা জিয়ার সর্বশেষ শারীরিক অবস্থা পর্যালোচনার জন্য বুধবার বিকালে বোর্ডের আট সদস্যের সঙ্গে আরও অন্তত ৫ চিকিৎসক যু’ক্ত হয়ে বৈঠক করেছেন। চিকিৎসকরা মনে করছেন, র’ক্তক্ষরণের জন্য শুধু লিভা’র নয়, অন্য কারণও থাকতে পারে। তাই এন্ডোস্কপি করার সিদ্ধান্ত নেন তারা।

জানা গেছে, গত ১৩ ও ১৭ নভেম্বর খালেদা জিয়ার র’ক্তক্ষরণ হয়। মঙ্গলবার বিকাল থেকে আবারও র’ক্তক্ষরণ শুরু হয়। এর ফলে তার মৃ’ত্যুঝুঁ’কি বেড়েছে। প্রাথমিকভাবে চিকিৎসকদের ধারণা খালেদা জিয়া লিভা’রের জটিল রোগে আ’ক্রান্ত। তাই তার ট্রান্সজাগুলার ইন্ট্রাহেপাটিক পোর্টোসিসটেমিক সান্ট করতে হবে। এ জন্য চিকিৎসকরা তাকে যু’ক্তরাষ্ট্র, যু’ক্তরাজ্য বা জার্মানি নেওয়ার পরাম’র্শ দিয়েছেন। চিকিৎসকরা মনে করছেন খালেদা জিয়ার অন্য কোনো জটিল সমস্যাও থাকতে পারে।

এভা’রকেয়ার হাসপাতা’লে গিয়ে বিএনপি চেয়ারপারসনকে দেখে এসে গণস্বাস্থ্যের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বুধবার সাংবাদিকদের বলেন, তার র’ক্তবমি হচ্ছে। শরীরের বিভিন্ন অংশে র’ক্তক্ষরণে তার অবস্থা সঙ্কটাপন্ন। যে কোনো মুহূর্তে যে কোনো ঘটনা ঘটে যেতে পারে।

গতকাল রাতে বিএনপির একটি সূত্র জানিয়েছে, তখন পর্যন্ত তার র’ক্তপাত বন্ধ হয়নি। হিমোগ্লোবিন ঠিক রাখতে র’ক্ত দিতে হচ্ছে। কিছু খেতে পারছেন না। খেলেই বমি হচ্ছে। শরীর খুবই দুর্বল। এখনো তিনি সিসিইউতে চিকিৎসাধীন।

একটি সূত্র জানিয়েছে, তার র’ক্তে ইনফেকশনের পরিমাণ স্বাভাবিকের চেয়ে অনেক বেশি। তার গলার দিকে সেন্ট্রাল ভেনাস ক্যাথেটার লাইন লাগানো আছে, যা চিকিৎসকের ভাষায় বলা হয় ‘সিভি লাইন’। রোগীর বহুবিধ রোগ থাকলে এটি সংযু’ক্ত করা হয়। সিভি লাইনের মাধ্যমে কেন্দ্রীয় র’ক্তনালিকে সংযু’ক্ত করা হয়। এর তিন-চারটি চ্যানেল রয়েছে। যার দ্বারা একসঙ্গে সব ধরনের ওষুধ খাওয়ানো সম্ভব হয়।

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইস’লাম আলমগীর নয়া পল্টনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে বলেন, সরকার চায় না খালেদা জিয়া বেঁচে থাকুক। তার অবস্থা খুবই ক্রিটিক্যাল। তাকে মৃ’ত্যুর দিকে ঠেলে দেওয়া হচ্ছে।

তিনি বলেন, ‘আমি গতকালও আপনাদের বলেছি- উনি এখন ওই অবস্থাতেই আছেন। স্টিল ভেরি ক্রিটিক্যাল। চিকিৎসকরা মনিটরিং করছেন। তাদের পক্ষে যেটি সম্ভব সেই চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। এখন যে অবস্থায় আছেন, তাকে সরকার এ মুহূর্তেই বিদেশে চিকিৎসার জন্য পাঠাতে পারেন। সব ক্ষমতা সরকারের।’

বিএনপি চেয়ারপারসনকে মুক্তি দিয়ে বিদেশে উন্নত চিকিৎসার সুযোগ দিতে সরকারের কাছে আহ্বান জানিয়ে গতকাল ২৫৮২ সাংবাদিক যৌথ বিবৃতি দিয়েছেন। জাতীয়তাবাদী দল সম’র্থিত ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি কাদের গনি চৌধুরীর স্বাক্ষরিত বিবৃতিতে সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা নিয়ে তারা উদ্বেগ প্রকাশ করেন।সূত্র: আমাদেরসময়

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  • 66
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    66
    Shares

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: