সর্বশেষ আপডেট : ২৪ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ৫ ডিসেম্বর ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

সিলেটে পরকীয়ার জেরে হত্যা: নারীসহ দুজনের মৃত্যুদণ্ড

সিলেটের কানাইঘাটে পর’কী’য়া স’ম্পর্কের জেরে দরজি ইম’রান হোসেন (২৫) হ’ত্যা মা’মলায় নারীসহ দুজনের মৃ’ত্যুদ’ণ্ড দিয়েছেন আ’দালত। সেই সঙ্গে উভ’য়কে এক লাখ টাকা জ’রিমানা, অনাদায়ে তিন বছরের বিনাশ্রম কারাদ’ণ্ডের আদেশ দেওয়া হয়েছে। মা’মলার অ’পর দুই আ’সামিকে খালাস দেওয়া হয়েছে।

বুধবার বেলা দুইটার দিকে সিলেটের অ’তিরিক্ত দায়রা জজ প্রথম আ’দালতের বিচারক মো. ইব্রাহিম মিয়া এ আদেশ দেন।

জে’লা জজ আ’দালতের অ’তিরিক্ত সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) রঞ্জিত সরকার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, রায় ঘোষণার সময় আ’সামিরা আ’দালতে উপস্থিত ছিলেন না। মা’মলায় ২৫ জন সাক্ষীর মধ্যে ১৪ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করা হয়েছে।

মৃ’ত্যুদ’ণ্ডপ্রাপ্ত দুজন হলেন সুহাদা বেগম (২৫) ও জাহাঙ্গীর আলম (২৬)। সুহাদা বেগম কানাইঘাট উপজে’লার দুর্গাপুর দক্ষিণ নয়াগ্রামের সৌদিপ্রবাসী বদরুল ইস’লামের স্ত্রী’ এবং জাহাঙ্গীর আলম তার প্রতিবেশী এবং নিকটাত্মীয়। মা’মলায় খালাস পেয়েছেন সুহাদার ভাই ইম’রান আহম’দ (২৯) ও দেবর মাসুম আহম’দ (৩৪)।

২০১৬ সালের ১৯ সেপ্টেম্বর নি’খোঁজ হন ইম’রান আহম’দ। তিনি কানাইঘাট পৌর শহরে চয়েস টেইলার্স নামের একটি দোকানের মালিক ছিলেন।

আ’দালত সূত্রে জানা গেছে, ২০১৬ সালের ১৯ সেপ্টেম্বর নি’খোঁজ হন ইম’রান আহম’দ। তিনি কানাইঘাট পৌর শহরের সোনাপুর এলাকার বাসিন্দা ছিলেন। পৌর শহরে চয়েস টেইলার্স নামের একটি দোকানের মালিক ছিলেন তিনি। তাকে কথিত প্রে’মিকা সুহাদার শ্বশুরবাড়িতে দাওয়াত দিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। এরপর থেকে নি’খোঁজ হন ইম’রান আহম’দ। নি’খোঁজের দুই দিন পরও তার কোনো সন্ধান না পেয়ে ইম’রান আহম’দের বাবা আবু বক্কর কানাইঘাট থা’নায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। পরে ২৩ সেপ্টেম্বর সকালে কানাইঘাট থা’নায় তিনি সুহাদা বেগম ও তাঁর ভাই ইম’রান আহম’দ, দেবর মাসুম আহম’দ ও লক্ষ্মীপ্রসাদ গ্রামের জাহাঙ্গীর আলমের বি’রুদ্ধে মা’মলা করেন।

মা’মলার পরপরই পু’লিশ সুহাদা বেগম ও জাহাঙ্গীর আলমকে গ্রে’প্তার করে। পরবর্তী সময়ে তাদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে ওই বছরের ২৪ সেপ্টেম্বর রাতে সুহাদার শ্বশুরবাড়ির পুকুর থেকে ইম’রান হোসেনের লা’শ উ’দ্ধার করা হয়। পরে ২৫ সেপ্টেম্বর আ’দালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানব’ন্দি দেন সুহাদা বেগম। দীর্ঘ ত’দন্ত শেষে মা’মলার ত’দন্ত কর্মক’র্তা আ’দালতে চারজনকে অ’ভিযু’ক্ত করে অ’ভিযোগপত্র দাখিল করেন। পরে আ’দালতের বিচারক সাক্ষী প্রমাণের ভিত্তিতে আজ রায় ঘোষণা করেন।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  • 86
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    86
    Shares

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: