সর্বশেষ আপডেট : ৫ ঘন্টা আগে
সোমবার, ২৭ জুন ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১৩ আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

আদালতে ৪১ বার ঝর্ণা বললেন, মামুনুল হক আমার স্বামী না

হেফাজতে ইস’লামের সাবেক যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হকের বি’রুদ্ধে করা ধ’র্ষণ মা’মলায় নারায়ণগঞ্জের আ’দালতে জবানব’ন্দি দিয়েছেন তার কথিত স্ত্রী’ ও মা’মলার বাদী জান্নাত আরা ঝর্ণা। বুধবার বেলা সাড়ে ১২টা থেকে ২টা পর্যন্ত নারী ও শি’শু নি’র্যা’তন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক নাজমুল হাসানের আ’দালতে ধ’র্ষণের ঘটনার বর্ণনাসহ সাক্ষ্য দিয়েছেন তিনি।

এ সময় আ’দালতে উপস্থিত ছিলেন মামুনুল হক। রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী রকিবুদ্দিন জানান, ‘৪১ বার বাদী ঝর্ণাকে মামুনুল হকের আইনজীবীরা বলেছেন আপনি মামুনুল হক এর স্ত্রী’। জবাবে প্রতিবারই না বলেছেন ঝর্ণা বেগম।

ঝর্ণার বরাত দিয়ে তিনি আরও দাবি করেছেন, ‘ঝর্ণার স্বামীর ঘনিষ্ঠ বন্ধু হওয়ার সুবাদে মামুনুল হকের সঙ্গে পরিচয় হয়েছিল তার। পরবর্তীতে বিবাহ বিচ্ছেদ হলে মামুনুল হক তাকে নানা জায়গায় নিয়ে যেতেন এবং তার সঙ্গে শারীরিক স’ম্পর্কে জড়াতেন।’

এই জবানব’ন্দি শেষে আ’সামি পক্ষের আইনজীবীরা ঝর্ণাকে জেরা করেছেন। আ’সামিপক্ষের আইনজীবী সৈয়দ মো. জয়নুল আবেদীন মেসবাহ গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, ‘বাদী জান্নাত আরা ঝর্ণা মেডিকেল টেস্টে বলেছেন তিনি মামুনুল হকের কালেমা পড়া স্ত্রী’। মামুনুল হকের সঙ্গে তিনি ঢাকা থেকে এসেছেন। তাদের অনেকবার শারীরিক স’ম্পর্ক হয়েছে। কিন্তু এ ঘটনায় তিনি কোথাও মা’মলা কিংবা জিডি করেননি। কারও কাছে বলেননি।’

এর আগে, কাশিমপুর কারাগার থেকে কঠোর নিরাপত্তায় সকালে মামুনুলকে আ’দালতে আনা হয়। এসময় মামুনুল হকের অনুসারীরা আ’দালত চত্বরে অবস্থান নেয়। নারায়ণগঞ্জ নারী ও শি’শু নি’র্যা’তন দমন ট্রাইব্যুনালের পাবলিক প্রসিকিউটর রকিবুদ্দিন আহমেদ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

উল্লেখ্য, গত ৩ এপ্রিল নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে রয়্যাল রিসোর্টে এক নারীর সঙ্গে অবস্থান করছিলেন মামুনুল হক। ওইসময় স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা এসে মামুনুল হককে ঘেরাও করেন। পরে ওই রিসোর্টে স্থানীয় হেফাজতের নেতাকর্মী ও সম’র্থকরা এসে ব্যাপক ভাঙচুর করে মামুনুল হককে ছিনিয়ে নিয়ে যান।

এ ঘটনায় গাড়ি ভাঙচুর, মহাসড়কে আ’গুন দিয়ে বি’ক্ষোভ, আওয়ামী লীগ কার্যালয়, যুবলীগ, ছাত্রলীগ নেতার বাড়িঘরে হা’মলা চালিয়ে ভাঙচুর করা হয়। এক সাংবাদিককে পি’টিয়ে আ’হত করা হয়। এ ঘটনায় পু’লিশ বাদী হয়ে দুটি ও সাংবাদিক বাদী হয়ে একটি মা’মলা করেন। এর কিছুদিন পর স্থানীয়রা আরও তিনটি মা’মলা করেন। ছয়টি মা’মলার মধ্যে তিনটি মা’মলায় প্রধান আ’সামি মামুনুল হক।

গত ৩০ এপ্রিল বিয়ের প্রলো’ভনে দুই বছর ধরে ধ’র্ষণের অ’ভিযোগ এনে হেফাজত নেতা মামুনুল হকের বি’রুদ্ধে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও থা’নায় মা’মলা করেন ওই নারী। তবে মামুনুল হক তাকে তার দ্বিতীয় স্ত্রী’ দাবি করে আসছেন।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Comments are closed.

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: