সর্বশেষ আপডেট : ৪ ঘন্টা আগে
সোমবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১১ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

বাবার ‘বিয়েবহির্ভূত সম্পর্ক’ দেখে ফেলায় খুন হয় ফাহিমা

কুমিল্লার দেবিদ্বারে পাঁচ বছরের শি’শু ফাহিমা আক্তার হ’ত্যার র’হস্য উদ্ঘাটন করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)।

হ’ত্যাকা’ণ্ডে জ’ড়িত শি’শুটির বাবাসহ পাঁচজনকে গ্রে’প্তার করা হয়েছে। মঙ্গলবার দিনগত রাতে র‌্যাব ১১-এর একটি দল তাদের গ্রে’প্তার করে।

গ্রেফতাকৃতরা হলেন— শি’শুটির বাবা আমির হোসেন (২৫), তার চাচাতো ভাই রবিউল আউয়াল (১৯), রেজাউল ইস’লাম ইমন (২২), লাইলি আক্তার (৩০) ও সোহেল রানা (২৭)। র‌্যাব’র আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

বুধবার ঢাকার কারওয়ানবাজারে র‌্যাব’র মিডিয়া সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, কুমিল্লার দেবিদ্বারের অটোরিকশাচালক আমির হোসেনের সঙ্গে স্থানীয় লাইলি বেগমের ‘বিয়েবহির্ভূত প্রে’মের স’ম্পর্ক’ গড়ে ওঠে। গত ৫ নভেম্বর আমিরের সঙ্গে লাইলিকে দৃষ্টিকটূ অবস্থায় দেখে ফেলে আমিরের মে’য়ে ফাহিমা। এর পর সে তার মাকে বিষয়টি জানিয়ে দেবে বলে জানায়। তাতে উদ্বিগ্ন হয়ে লাইলি বারবার আমিরকে চাপ দিচ্ছিল বিষয়টি সামাল দেওয়ার জন্য। পর দিন আমির তার চাচাতো ভাই ও পূর্ব পরিচিত আরও চারজনকে নিয়ে তার মে’য়েকে হ’ত্যার পরিকল্পনা সাজায়।

র‌্যাব কর্মক’র্তা জানান, ৭ নভেম্বর মে’য়েকে নিয়ে বাসা থেকে বের হয় আমির হোসেন। নিজের অটোরিকশায় করে তাকে বিভিন্ন জায়গা ঘুরিয়ে রাত সাড়ে ৮টার দিকে দেবিদ্বার পুরান বাজারের দক্ষিণে নদীতীরের নির্জন জায়গায় নিয়ে যায়। একটি ছু’রি নিয়ে বাড়ি থেকে বের হয়েছিলেন আমির, তার সহযোগী রবিউল আরেকটি ছু’রি নিয়ে নদীতীরের ওই নির্জন জায়গায় যান।

র‌্যাব জানায়, শি’শুটিকে প্রথমে ছু’রিকাঘাত করেন বাবা আমির হোসেন, এর পর অন্যরা। ছু’রিকাঘাতের পর শ্বা’সরোধে শি’শুটির মৃ’ত্যু নিশ্চিত করেন আমির। এর পর পশুখাদ্য রাখার প্লাস্টিকের বস্তায় শি’শুটির লা’শ ভরে অটোরিকশায় নিয়ে রওনা দেন।

খন্দকার আল মঈন আরও বলেন, বাড়িতে মে’য়েকে খুঁজে না পেয়ে ফাহিমা’র মা বারবার আমিরকে ফোন করছিলেন। আমির তাদের খুঁজে দেখতে বলেন। ওই রাতে লা’শটি ফেলার কোনো জায়গা না পেয়ে ইমনদের গরু রাখার ঘরে একটি প্লাস্টিকের ড্রামে লা’শটি ঢেকে রাখা হয়। দুদিন পর সোহেল রানার অটোরিকশায় করে লা’শটি কাচিসাইর এলাকার একটি কালভা’র্টের নিচে তারা ফেলে আসে বলে রেবের ভাষ্য।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, সম্প্রতি শ্বশুরবাড়ি থেকে এক লাখ টাকা যৌতুক নিয়েছিলেন আমির। সেই টাকার বিনিময়েই তিনি মে’য়েকে হ’ত্যা করতে অন্যদের দলে টানেন। ফাহিমা ‘নি’খোঁজ’ দাবি করে ওই ব্যক্তিরাই এলাকায় মাইকিং, ঝাড়ফুঁক ও ফেসবুকে পোস্ট দিয়েছিলেন, যাতে তাদের কোনোভাবে স’ন্দেহ করা না হয়।

উল্লেখ্য, কুমিল্লার দেবিদ্বারে নি’খোঁজের সাত দিন পর গত ১৪ নভেম্বর বাজারের ব্যাগভর্তি অবস্থায় শি’শু ফাহিমা’র ক্ষতবিক্ষত দেহ উ’দ্ধার করে পু’লিশ।

ঘটনার পর খোঁজাখুঁজি না করে নিজেই থা’নায় গিয়ে সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছিলেন ঘা’তক বাবা আমির হোসেন।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  • 22
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    22
    Shares

Comments are closed.

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: