সর্বশেষ আপডেট : ৩৭ মিনিট ১৩ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ২৫ জুন ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১১ আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

এখনো কানাইঘাট সীমান্তে পড়ে আছে দুই বাংলাদেশির মরদেহ

সিলেটের কানাইঘাট উপজে’লার ডোনা সীমান্তে গু’লিবিদ্ধ হয়ে মা’রা যাওয়া দুই বাংলাদেশির ম’রদেহ দুইদিন ধরে নো ম্যানস ল্যান্ডে পড়ে আছে। বৃহস্পতিবার বিকেলে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ম’রদেহগুলো উ’দ্ধার করা যায়নি।

ম’রদেহগুলো সীমান্তের বাংলাদেশ না ভা’রত অংশে রয়েছে এনিয়ে জটিলতা দেখা দিয়েছে। ফলে লা’শ উ’দ্ধারে দেরি হচ্ছে বলে জানান বিজিবি কর্মক’র্তারা।

উপজে’লার লক্ষ্মীপ্রসাদ ইউনিয়নের ডোনা সীমান্তের ১৩৩১ নম্বর পিলারের পাশে বুধবার দুপুরে দুই বাংলাদেশির ম’রদেহ পড়ে থাকতে দেখেন স্থানীয়রা। স্থানীয় লোকজন বিষয়টি বিজিবি ও পু’লিশকে জানান।

নি’হত আসকর আলী ও আরিফ মিয়া সীমান্তবর্তী এলাগুল এলাকার বাসিন্দা।

নি’হতদের পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন, মঙ্গলবার রাতে বাজারে যাওয়ার কথা বলে বাড়ি থেকে বের হয়েছিলেন তারা। এরপর আর ফিরে আসেননি।

পু’লিশের ধারণা, আসকর ও আরিফ মঙ্গলবার রাতে অ’বৈধভাবে ভা’রতে প্রবেশ করে থাকতে পারেন। ওই রাতে কিংবা ভোরের কোনো এক সময়ে ভা’রতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বা সে দেশের খাসিয়া আদিবাসীদের গু’লিতে মা’রা যেতে পারেন তারা।

১৯ বিজিবির সুরইঘাট ক্যাম্পের এক কর্মক’র্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান, দুজনের ম’রদেহ উ’দ্ধারে বৃহস্পতিবার সকালে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) ও ভা’রতের বর্ডার সিকিউরিটি ফোর্সের (বিএসএফ) পতাকা বৈঠক হয়েছে।

বিজিবির ওই কর্মক’র্তারা জানান, পতাকা বৈঠকে হ’ত্যার দায় অস্বীকার করেছে বিএসএফ। এমনকি ম’রদেহগুলো বাংলাদেশের অভ্যন্তরে রয়েছে বলেও জানিয়েছে তারা। যদিও বিজিবির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে ম’রদেহগুলো ভা’রতের অভ্যন্তরে রয়েছে।

বৈঠকে ম’রদেহগুলো যে স্থানে পড়ে আছে সেই স্থান কোন দেশে পড়েছে তা চিহ্নিত করার সিদ্ধান্ত হয়েছে জানিয়ে ওই কর্মক’র্তা বলেন, ম’রদেহ ভা’রতের অভ্যন্তরে থাকলে সে দেশে ময়নাত’দন্ত হবে। এরপর আরেক দফা পতাকা বৈঠক করে ম’রদেহ হস্তান্তর করা হবে। এতে ম’রদেহ উ’দ্ধার ও হস্তান্তরে আরও কিছুদিন লাগতে পারে।

কানাইঘাট থা’নার ভা’রপ্রাপ্ত কর্মক’র্তা (ওসি) মোহাম্ম’দ তাজুল ইস’লাম বৃহস্পতিবার বিকেলে বলেন, ম’রদেহগুলো সীমান্তে এখনো পড়ে আছে। ওই জায়গা ভা’রতের অভ্যন্তরে হওয়ায় এখনও উ’দ্ধার করা সম্ভব হয়নি। বিজিবি ও বিএসএফ যৌথভাবে ম’রদেহ উ’দ্ধারের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবে।

নি’হত আরিফের পরিবারের এক সদস্য বলেন, স্থানীয় লালবাজারে যাওয়ার কথা বলে বিকেলে আরিফ ও আসকর বাড়ি থেকে বের হয়েছিলেন। ডোনা সীমান্ত এলাকার কিছু মানুষের কাছ থেকে তারা শুনেছেন আসকর ও আরিফ ভা’রতের মেঘালয় রাজ্যের উখিয়াং এলাকায় অনুপ্রবেশ করেছিলেন। এ সময় তাদের ওপর গু’লি করে বিএসএফ। ঘটনাস্থলেই দুজন মা’রা গেলে তাদের ম’রদেহ সীমান্তের ১৩৩১ মেইন পিলারের পাশে ফেলে রাখা হয়।

এ বিষয়ে বিজিবি-১৯ ব্যাটেলিয়ানের অধিনায়ক লে. কর্নেল সুহেলের সঙ্গে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Comments are closed.

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: