সর্বশেষ আপডেট : ৬ মিনিট ২৯ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ৫ ডিসেম্বর ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

মন্দিরে পবিত্র কোরআন রাখা কে এই ইকবাল, পরিবার যা জানালো!

কুমিল্লার নানুয়াদিঘির পাড়ের পূজামণ্ডপে পবিত্র কোরআন শরিফ রাখার ঘটনায় ইকবাল হোসেন (৩৫) নামে এক ব্যক্তি শনাক্ত হয়েছেন। সিসিটিভি ফুটেজ দেখে তাকে শনাক্ত করেছে পু’লিশ। তাকে গ্রে’প্তারে অ’ভিযান চলছে। এরই মধ্যে সবার মনে প্রশ্ন জেগেছে কে এই ইকবাল?

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, কুমিল্লা নগরীর ১৭ নম্বর ওয়ার্ডের দ্বিতীয় মুরাদপুর-লস্কর পুকুর এলাকার নূর আহম’দ আলমের ছে’লে ইকবাল। তার বাবা মাছের ব্যবসা করেন। পু’লিশের একাধিক সংস্থার ত’দন্তে এবং সিটিটিভির ফুটেজ দেখে ইকবালকে শনাক্ত করা হয়।

ইকবালের মা বিবি আ’মেনা বেগম জানান, তার তিন ছে’লে ও দুই মে’য়ে। ইকবাল সবার বড়। ১৯৯০ সালের ৬ আগস্ট তার জন্ম। ইকবাল ১৫ বছর বয়স থেকেই মা’দক সেবন শুরু করে। গত ১০ বছর আগে বরুড়া উপজে’লায় বিয়ে করেছেন ইকবাল। তার এক ছে’লে। বিয়ের পাঁচ বছর পর স্ত্রী’র সঙ্গে ইকবালের ডিভোর্স হয়। তারপর চৌদ্দগ্রাম উপজে’লার মিয়াবাজার এলাকার কাদৈর গ্রামে বিয়ে করেন। এই সংসারে এক ছে’লে এক মে’য়ে। ইকবালের স্ত্রী’-সন্তান এখন কাদৈর গ্রামে থাকেন।

আ’মেনা বেগম বলেন, ইকবাল নে’শাগ্রস্ত হয়ে নানাভাবে পরিবারের সদস্যদের অ’ত্যাচার করতো। বিভিন্ন সময় রাস্তাঘাটে মানুষকে হয়’রানি করতো। গোসলখানায় দরজা বন্ধ করে ইয়াবা সেবন করতো। ইকবাল মাজারে মাজারে থাকতো। বিভিন্ন সময় আখাউড়া মাজারে যেতো। কুমিল্লার বিভিন্ন মাজারেও তার যাতায়াত ছিল। পঞ্চ’ম শ্রেণি পর্যন্ত পড়াশোনা করেছে। ১০ বছর আগে বন্ধুদের সঙ্গে পাড়ার কিছু ছে’লের মা’রামা’রি হয়। এ সময় ইকবালের পেটে ছু’রিকাঘাত করা হয়। তখন থেকে ইকবাল অ’সুস্থ। উল্টাপাল্টা চলাফেরা করায় বিভিন্ন সময় চো’রের অ’পবাদ দিয়ে তাকে স্থানীয়রা মা’রধর করতো। পরে তারাই আক্ষেপ করতো। ভালো ক্রিকেটও খেলতে পারতো ইকবাল। কয়েকদিন আগে কাউন্সিলরের কাছ থেকে শুনেছি; ইকবাল পূজামণ্ডপ থেকে হনুমানের গদা নিয়ে আসে। এরপর থেকে এলাকায় তাকে নিয়ে চলছে আলোচনা।

ইকবালের ছোট ভাই রায়হান বলেন, ইকবালকে খুঁজতে পু’লিশের সঙ্গে গত শুক্রবার থেকেই আছি। ইকবাল ভালো কোরআন তিলাওয়াত করতে পারেন।

রায়হান জানান, তার ভাই যদি অন্যায় করে থাকেন, যদি তা সত্য হয় তাহলে তার শা’স্তি হোক। তবে ইকবাল কারও প্র’রোচনায় এমন কাজ করতে পারেন।

ইকবালের নানি রহিমা বেগম জানান, ১৩ দিন আগে ঘর থেকে ইকবালকে বের করে দিয়েছি। ব্লেড দিয়ে পাঁচটি হাঁস জবাই করেছে। ইকবালের অ’ত্যাচারে আমি অ’তিষ্ঠ।

কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের ১৭ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর সৈয়দ সোহেল বলেন, ১০ বছর ধরে ইকবালকে চিনি। প্রায় সময় আমা’র কার্যালয়ের আশপাশেই থাকে। রংমিস্ত্রির কাজ করতো। মাঝেমধ্যে নির্মাণশ্রমিকের কাজও করতো। ইয়াবা সেবন করে। ইকবালকে নিয়ে অনেকেই অ’ভিযোগ দিতো। তার কর্মকা’ণ্ডে এলাকার মানুষ অ’তিষ্ঠ। তবে কোনও রাজনৈতিক দলের সঙ্গে জড়িত নয়। কোনও দলের কর্মী কিংবা সম’র্থকও নয়। কয়েক বছর আগে দ্বিতীয় বিয়ে করেছিল। বিয়ের পর স্ত্রী’ তাকে ছেড়ে চলে যাওয়ায় মানসিক সমস্যা দেখা দেয়। আমা’র মনে হয়, তার মানসিক অ’সুস্থতাকে কাজে লাগিয়ে তৃতীয় পক্ষ কাজটি করেছে। পূজামণ্ডপে কোরআন রাখার খবর ছড়িয়ে পড়লে এলাকাবাসী ঘৃ’ণা প্রকাশ করছে। তবে ওই ঘটনার পর থেকে তাকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না।

সিসিটিভি ফুটেজ দেখে ইকবাল হোসেনকে চিহ্নিত করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন কুমিল্লার পু’লিশ সুপার ফারুক আহমেদ। তিনি বলেন, ‘পু’লিশের একাধিক সংস্থার ত’দন্তে এবং সিটিটিভির ফুটেজ দেখে ইকবালকে শনাক্ত করা হয়। তাকে গ্রে’প্তারের চেষ্টা চলছে।’

গত ১৩ অক্টোবর ভোরে নানুয়াদিঘির পাড়ের পূজামণ্ডপে পবিত্র কোরআন শরিফ পাওয়া যায়। এরপরই দেশের কয়েক স্থানে সং’ঘর্ষ ও হা’মলার ঘটনা ঘটে। ঘটনার জেরে ওই দিন চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে হিন্দুদের ওপর হা’মলা চালানো হয়। এতে পু’লিশের সঙ্গে সং’ঘর্ষে পাঁচ জন নি’হত হয়।

পরদিন নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে হিন্দুদের মন্দির, মণ্ডপ ও দোকানপাটে হা’মলা–ভাঙচুর চালানো হয়। সেখানে হা’মলায় দুই জন নি’হত হন। এরপর রংপুরের পীরগঞ্জে হিন্দু বসতিতে হা’মলা করে ভাঙচুর, লুটপাট ও ঘরবাড়িতে অ’গ্নিসংযোগ করা হয়। এ ঘটনায় মা’মলা হয়েছে। এরই মধ্যে শতাধিক ব্যক্তিকে গ্রে’প্তার করেছে পু’লিশ। সৌজন্যঃবাংলাট্রিবিউন

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  • 10
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    10
    Shares

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: