সর্বশেষ আপডেট : ১৬ মিনিট ৫১ সেকেন্ড আগে
সোমবার, ২৯ নভেম্বর ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

সিলেট নগরীতে বন বিভাগের অনুমতি না নিয়ে দুইশো গাছ কে’টে ফেললো সিসিক

সিলেটে সড়কের পাশে ড্রেন নির্মাণের জন্য রাতের আঁধারে কে’টে ফেলা হয়েছে দুইশ গাছ। গাছ কা’টার জন্য বন বিভাগের অনুমতিও নেওয়া হয়নি।

সিলেট নগরের শাহ’জালাল উপশহর এলাকার এই গাছগুলো কে’টেছে খোদ সিলেট সিটি করপোরেশন (সিসিক)।

সোমবার রাতে সিসিকের কর্মীরা উপশহরের সড়কের পাশের দুই শতাধিক গাছ কে’টে ফেলে। মঙ্গলবার বিকেলে ওই এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, করাত দিয়ে আরো কিছু গাছ কাটছেন শ্রমিকরা। আর কে’টে ফেলা গাছগুলো টুকরো করে সড়কের পাশে রাখা হয়েছে।

কে’টে ফেলা গাছগুলো ইতোমধ্যে বিক্রিও করে ফেলা হয়েছে বলে জানা গেছে। ট্রাকে করে সেগুলো সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে।

স্থানীয় বাসিন্দাদের অ’ভিযোগ, রাতে গাছ কে’টে অধিকাংশ বিক্রি করে ট্রাকে করে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। স্থানীয় একটি চক্র গাছ কেনাবেচায় কোটি টাকার বাণিজ্য করেছে। খবর পেয়ে বন বিভাগের একটি দল ঘটনাস্থলে এসে ত’দন্ত করে কেনাবেচার সত্যতা পেয়েছে।

বৃক্ষরোপণে প্রধানমন্ত্রীর জাতীয় পুরস্কার পাওয়া আফতাব চৌধুরী উপশহর এলাকারই বাসিন্দা। এই সড়কের পাশের গাছগুলো তিনিই রোপন করেছিলেন। আফতাব চৌধুরী বলেন, ‘এই গাছগুলোর অধিকাংশ আমা’র হাতে লাগানো। কোনো বাছবিচার ছাড়াই নির্বিচারে গাছ কা’টা হচ্ছে। যেখানে ৫০টির মতও গাছ কা’টা প্রয়োজন সেখানে দুইশটি গাছ কে’টে ফেলা হয়েছে। এই ২০০টি গাছ একেকটি এক লাখ টাকা দরে বিক্রি হওয়ার মতো।’

সিসিকের প্রকৌশল শাখা সূত্রে জান গেছে, চলতি অর্থবছরে প্রায় ১০০ কোটি টাকা ব্যয়ে নগরে ১৫ কিলোমিটার এলাকায় ড্রেন নির্মাণ ও রাস্তা প্রশস্তকরণের কাজ শুরু হয়েছে। শাহ’জালাল উপশহর এলাকার সি ব্লকের ২১, ৩৭ ও ৩৮ নম্বর রাস্তায় সম্প্রতি ড্রেন ও রাস্তা বড় করার কাজ শুরু হয়। ওই এলাকার রাস্তার দুই পাশে রেইনট্রিসহ নানা প্রজাতির এসব গাছ ১৯৯০ সালের দিকে লাগানো হয়েছিল।

বন বিভাগের বিধিমালায় আছে, ব্যক্তিমালিকানাধীন অথবা সরকারি জমি থেকে গাছ কা’টার আগে সংশ্লিষ্ট এলাকার বিভাগীয় বন কর্মক’র্তার কাছে নির্ধারিত ফরমে আবেদন করতে হয়। এরপর ত’দন্ত করে গাছ টাকার যৌক্তিকতা পাওয়া গেলে গাছের দরদাম নির্ধারণ ও পরবর্তী আরও গাছ লাগানোর শর্তে গাছ কা’টার অনুমতি দেওয়া হয়। এ প্রক্রিয়া বন বিভাগের মাধ্যমে করার বাধ্যবাধকতা রয়েছে।

জানা যায়, ড্রেন নির্মাণে উপশহর এলাকার কিছু গাছ কা’টার জন্য বন বিভাগের কাছে আবেদন করে সিসিক। তবে বন বিভাগ এখনও গাছ কা’টার অনুমতি দেয়নি। অনুমতি পাওয়ার আগেই কে’টে ফেলা হয়েছে দুইশ গাছ।

বন বিভাগের সিলেট টাউন রেঞ্জের রেঞ্জার মো. শহীদুল্লাহ বলেন, ‘উপশহরে রাস্তার দুই পাশে ড্রেন নির্মাণ করতে কিছু গাছ কা’টার প্রয়োজনীয়তার কথা জানিয়ে ১৭ অক্টোবর বন বিভাগকে একটি চিঠি দেয় সিটি করপোরেশন। পরদিন আম’রা কর্মীরা সেখানে গিয়ে দেখেন গাছ কা’টা হয়ে গেছে।’

তিনি বলেন, ঠিক কী’ পরিমাণ গাছ কা’টা হয়েছে এবং কা’টা গাছগুলো কোথায় নেওয়া হয়েছে, তা আম’রা খোঁজ নিচ্ছি।

শ্রমিকরা না বুঝেই গাছ কে’টে ফেলেছে জানিয়ে সিলেট সিটি করপোরেশনের প্রধান প্রকৌশলী নূর আজিজুর রহমান বলেন, ‘ওইখানে ড্রেন নির্মাণ ও সড়ক সম্প্রসারন হবে। এজন্য কিছু গাছ কা’টা প্রয়োজন। গাছ কা’টার জন্য আম’রা বন বিভাগকে চিঠিও দিয়েছি। তবে অনুমতি পাওয়ার আগেই সিটি করপোরেশনের কিছু লোক গাছ কে’টে ফেলেছেন। এ ব্যাপারে দায়ীদের বি’রুদ্ধে আম’রা ব্যবস্থা নেবো।’

সিটি করপোরেশন গাছ রক্ষায় খুবই আন্তরিক দাবি করে তিনি বলেন, ‘উপশহরে গাছ কা’টার বিষয়ে ত’দন্ত করে দেখা হবে। আর যাতে অকারণে কোনো গাছ কা’টা না হয়, সে বিষয়ে নজরদারি বাড়াব।’

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  • 30
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    30
    Shares

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: