সর্বশেষ আপডেট : ৫ ঘন্টা আগে
রবিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ৯ কার্তিক ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

সম্প্রীতির উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত, এক আঙিনায় ম’সজিদ- মন্দির

সারাদেশে চলছে হিন্দু চলছে ধ’র্মাবলম্বী অনুসারীদের শারদীয় দুর্গাপূজা। মৌলভীবাজার জে’লার জুড়ী উপজে’লার ভূয়াই দুর্গা মন্ডপে পূজা উদযাপনের দৃশ্যটা যেন একটু অন্যরকম। এখানে মু’সলমানদের নামাজ পড়ার জন্য ম’সজিদ এবং হিন্দুদের পূজা অর্চনার জন্য মন্ডপ একই আঙ্গিনায় পাশাপাশি দাঁড়িয়ে আছে। এ যেন সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত।

একই আঙিনায় অবস্থিত ম’সজিদে ভোরে ফজরের সময় মোয়াজ্জিনের কন্ঠের মিষ্টি আজান শেষে মু’সল্লিরা নামাজ আদায় করে চলে যায়। এরপর সকাল থেকেই মান্ডপে চলে পূজা অর্চনা। এমন সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত বহন করে বহু বছর চলছে উপজে’লার ভূয়াই জামে ম’সজিদ ও ভূয়াই দুর্গা মন্ডপ।

সরজমিনে দেখা যায়, ভূয়াই শ্রী শ্রী পূজা মন্ডপের সভাপতি পিযুস কান্তি দাসের বসা টেবিলে একটি নামাজের সময়সূচীর তালিকা রাখা। টেবিলে নামাজের সময়সূচীর তালিকা রাখা কেন বলতেই তিনি বলেন, নামাজের শুরু ও শেষ দেখে আম’রা আমাদের পূজা উদযাপন করি। নামাজে যাতে কোনো ব্যাঘাত না ঘটে সেজন্য আম’রা সর্বদা সচেষ্ট আছি। আমাদের এখানে হিন্দু-মু’সলমানদের মধ্যে কোন ধরনের বিভেদ নেই। আম’রা মিলেমিশে যার যার ধ’র্ম পালন করছি।

জানা গেছে, আজানের সময় থেকে নামাজের প্রথম জামায়াত শেষ না হওয়া পর্যন্ত মন্দিরের মাইক, ঢাক-ঢোলসহ যাবতীয় শব্দ বন্ধ থাকে। নামাজের প্রথম জামায়াত শেষ হলে মন্দিরের কার্যক্রম স্বাভাবিক হয়। এখানে কোনো বিশৃঙ্খলাও হয় না। শালীনতা বজায় রেখে একই উঠানে দীর্ঘদিন বিভিন্ন ধ’র্মীয় উৎসব পালন করে আসছেন উভ’য় ধ’র্মের মানুষ।

ওই এলাকায় ঘুরতে আসা কয়েকজন জানান, জুড়ীতে ধ’র্মীয় সম্প্রীতির এটি একটি জ্বলন্ত উদাহ’রণ। কোনো বিশৃঙ্খলা ছাড়াই অনেক বছর ধরে এ সম্প্রীতির বন্ধনে আবদ্ধ হয়ে ধ’র্মীয় উৎসব পালন করছেন তারা। সত্যি এটি তাদের জন্য অনেক বড় গর্বের বিষয়।

ভূয়াই জামে ম’সজিদের ই’মাম মা’ওলানা সিরাজ উদ্দিন বলেন, আমাদের একই আঙিনায় দুটি প্রতিষ্ঠান। এখানে জাতি ধ’র্ম নির্বিশেষে সব শ্রেণির মানুষ স্বাধীনভাবে ঘুরতে আসে। আম’রা তাদের সব কাজে সহযোগিতা করি। তারাও আমাদের সহযোগিতা করেন। নামাজের সময় মন্দিরের ঢাক-ঢোল বন্ধ রাখা হয়। কোনো বিশৃঙ্খলা ছাড়াই অনেক বছর ধরে চলছে এ সম্প্রীতির বন্ধন।’

ভূয়াই জামে ম’সজিদের মু’সল্লি মোস্তাকিম আহম’দ বাবুল বলেন, এখানে কোন ধরনের বিভেদ ও ঝামেলা ছাড়াই হিন্দু ও মু’সলমান সম্প্রদায়ের মানুষেরা যার যার ধ’র্ম পালন করে আসছে। দুর্গাপূজার এ সময়ে ঢাক-ঢোল নিয়ে কোন সমস্যা হয় না। ম’সজিদ ও মান্ডপ কমিটি সম্বনয় করে যার যার ধ’র্ম পালন করে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  • 22
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    22
    Shares

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: