সর্বশেষ আপডেট : ৪ ঘন্টা আগে
বৃহস্পতিবার, ৬ অক্টোবর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ২১ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

জীবনের নিরাপত্তা নিয়ে শ’ঙ্কা প্রকাশ করার ১ ঘণ্টার মধ্যেই মাহমুদার মৃ’ত্যু

জীবনের নিরাপত্তা নিয়ে শ’ঙ্কা প্রকাশ করার ১ ঘণ্টার মধ্যেই হবিগঞ্জ শহরের অনন্তপুর আবাসিক এলাকার শ্বশুরবাড়িতে গৃহবধূ মাহমুদা আক্তারের র’হস্যজনক মৃ’ত্যু হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে।

পু’লিশ শুক্রবার দুপুরে তার লা’শ উ’দ্ধার করে ময়নাত’দন্তের জন্য ম’র্গে প্রেরণ করে। মাহমুদা তিন দিন আগে দ্বিতীয় সন্তানের জন্ম দেন। তিন বছর বয়সী তার আরেক পুত্রসন্তান রয়েছে। ঘটনার পর থেকে স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকজন পলাতক।

জানা গেছে, হবিগঞ্জের লাখাই উপজে’লার ভাদিকারা গ্রামের আবুল বাছির মিয়ার মে’য়ে মাহমুদা আক্তার। চার বছর আগে হবিগঞ্জ শহরের অনন্তপুর আবাসিক এলাকার বাসিন্দা মাকসুদ মিয়ার সঙ্গে তার বিয়ে হয়। কিন্তু বিয়ের পর থেকে যৌতুক নিয়ে মাহমুদাকে নি’র্যা’তন করতেন স্বামীসহ তার শ্বশুরবাড়ির লোকজন। যে কারণে সম্প্রতি বাবার বাড়িতে চলে যান মাহমুদা। পরে সালিস বৈঠক করে শ্বশুরবাড়িতে ফিরে আসেন।

এদিকে পুনরায় মাহমুদার সংসারে এলেও আগের মতোই নি’র্যা’তন চলে তার ওপর। নিজের জীবনের শ’ঙ্কা প্রকাশ করে গতকাল বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১১টায় মাহমুদা তার ভাই ফয়সল মিয়াকে ফোন করেন। ভাই-বোনের কথা বলা অবস্থায় হঠাৎ মাহমুদা চি’ৎকার করে ফোন ছেড়ে দেন। পরে ফয়সল পুনরায় বোনকে ফোন দিলে তা বন্ধ পান। এ নিয়ে পুরো পরিবারে আতঙ্ক তৈরি হয়। এর ঘণ্টাখানেক পরেই এক আত্মীয় মুঠোফোনে জানান, মাহমুদা আর বেঁচে নেই। তিনি শ্বশুরবাড়িতে মা’রা গেছেন।

খবর পেয়ে রাতেই মাহমুদার বাবাসহ পরিবারের অন্য সদস্যরা ছুটে আসেন হবিগঞ্জ শহরে মাহমুদার শ্বশুরবাড়িতে। এখানে এসে জানতে পারেন, তার লা’শ হবিগঞ্জ ২৫০ শয্যা জে’লা সদর হাসপাতা’লে। সেখানকার চিকিৎসকেরা জানান, তাকে মৃ’ত অবস্থায় হাসপাতা’লে আনা হয়।

নি’হতের ভাই ফয়সল মিয়া দাবি করেন, বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১১টায় তার বোন তাকে মুঠোফোনে জানান, শ্বশুরবাড়ির লোকজন মাহমুদাকে যৌতুকের জন্য নি’র্যা’তন করছেন। তিনি তার জীবনের নিরাপত্তা নিয়ে শ’ঙ্কা প্রকাশ করেন ভাইয়ের কাছে। তার সঙ্গে কথা বলা অবস্থায় হঠাৎ চি’ৎকার করেন মাহমুদা। সঙ্গে সঙ্গে সংযোগ কে’টে যায়। তিনি দাবি করেন, তার বোনকে স্বামীসহ শ্বশুরবাড়ির লোকজন হ’ত্যা করেছেন।

হবিগঞ্জ সদর মডেল থা’নার পরিদর্শক (ত’দন্ত) দৌস মোহাম্ম’দ বলেন, লা’শের গায়ে কোনো আ’ঘাতের চিহ্ন নেই। তবে কী’ করে মাহমুদার মৃ’ত্যু ঘটেছে, পু’লিশ তা ত’দন্ত করছে। এই গৃহবধূ গত সোমবার এক নবজাতকের জন্ম দিয়েছেন। শি’শুটি মায়ের সান্নিধ্য পাওয়ার আগেই মায়ের মৃ’ত্যু ঘটেছে। ময়নাত’দন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পর এ মৃ’ত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Comments are closed.

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: