সর্বশেষ আপডেট : ১ ঘন্টা আগে
রবিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ৯ কার্তিক ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

চরম ক্ষুব্ধ ফ্রান্স

অস্ট্রেলিয়া ও যু’ক্তরাজ্যের সঙ্গে নতুন নিরাপত্তা জোট গড়ে তুলেছে যু’ক্তরাষ্ট্র। তিনটি দেশ মিলে ‘অকাস’ নামের একটি নিরাপত্তা চুক্তিও করেছে। এতে সবচেয়ে বেশি লাভবান হয়েছে অস্ট্রেলিয়া। কিন্তু ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে যু’ক্তরাষ্ট্রের অন্যতম ইউরোপীয় মিত্র ফ্রান্স।

এই ঘটনার পর যু’ক্তরাষ্ট্রের বি’রুদ্ধে পিঠে ছু’রি মা’রার অ’ভিযোগ এনেছে ফ্রান্স। ক্ষুব্ধ ফ্রান্সকে শান্ত করার চেষ্টা করছে যু’ক্তরাষ্ট্র। কিন্তু এরই মধ্যে ওয়াশিংটনে গুরুত্বপূর্ণ অনুষ্ঠান বাতিল করেছে ফরাসি দূতাবাস। এক প্রতিবেদনে এ তথ্য বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

গত বৃহস্পতিবার অস্ট্রেলিয়ান কর্মক’র্তাদের সঙ্গে এক যৌথ সংবাদ সম্মেলনে মা’র্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিনকেন বলেন, ফ্রান্স এখনও যু’ক্তরাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ অংশিদার। অনেক ইস্যুতে যু’ক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে তাদের স’ম্পর্ক রয়েছে। তিনি বলেন, ভা’রত প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলসহ বিভিন্ন ইস্যুতে ফ্রান্সের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ স’ম্পর্ক গড়ার উপায় খুঁজছে যু’ক্তরাষ্ট্র।

ব্লিনকেন বলেন, আম’রা খুবই জো’রের সঙ্গে ভা’রত প্রশান্ত মহাসাগরে ইউরোপিয়ান দেশগুলোকে স্বাগত জানাচ্ছি। আম’রা ন্যাটো, ইইউ এবং অন্যান্য মিত্রদের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ স’ম্পর্ক গড়ার উপায় খুঁজছি। তিনি যু’ক্তরাষ্ট্র এবং মিত্রদের মধ্যে মিত্রতার স’ম্পর্ক গড়ার ওপর জো’র দেন। তিনি বলেন, ফ্রান্স দীর্ঘদিন ধরেই আমাদের গুরুত্বপূর্ণ অংশিদার এবং ভবিষ্যতেও সামনের দিকে এগিয়ে যাবে দুই দেশ।

ওয়াশিংটনে ফরাসি দূতাবাস তাদের একটি অভ্যর্থনা অনুষ্ঠান বাতিল করেছে। যু’ক্তরাষ্ট্রের স্বাধীনতা যু’দ্ধে ভূমিকা রাখা ফ্রান্সের নৌবাহিনীর ভূমিকা সহায়তা করেছিল। এই যু’দ্ধের ২৪০তম বার্ষিকী’ উপলক্ষ্যে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিল। কিন্ত শুক্রবারের ওই অনুষ্ঠান বাতিল করা হয়েছে বলে ফরাসি দূতাবাসের এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে। তবে বাল্টিমুরে শনিবারের একটি অনুষ্ঠা চলবে বলে জানিয়েছে। যদিও ওয়াশিংটনে অনুষ্ঠান বাতিল করার প্রকৃত কারণ জানায়নি ফরাসি দূতাবাস।

২০১৬ সালে অস্ট্রেলিয়ার নৌবাহিনীকে ৫০ বিলিয়ন ডলারে ১২টি সাবমেরিন সরবরাহের কাজটি পেয়েছিলো ফ্রান্স। যদিও অনেক উপকরণ স্থানীয়ভাবে সংগ্রহ করতে হবে-ক্যানবেরার এমন শর্তের কারণে প্রকল্পের কাজ বিলম্বিত হচ্ছিলো। কিন্তু সেইসব সাবমেরিন আর প্রয়োজন হবে না অস্ট্রেলিয়ার। চুক্তির প্রতিক্রিয়ায় ফ্রান্সের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জিন-ইভেস লে ড্রায়ান বলেন, এর মাধ্যমে যু’ক্তরাষ্ট্র তাদের পিঠে ছু’রিকাঘাত করলো। প্রেসিডেন্ট বাইডেন আগের প্রেসিডেন্ট ট্রা’ম্পের মতোই আচরণ করছেন।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  • 17
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    17
    Shares

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: