সর্বশেষ আপডেট : ৭ ঘন্টা আগে
রবিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ১১ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

তল্লা’শি করতে এসে নারী ক্যান্সার রোগীর টাকা হাতিয়ে নিল পু’লিশ

চো’রাই মোবাইল তল্লা’শি করতে আসা পু’লিশের এক এসআই (উপ-পরিদর্শক)-এর বি’রুদ্ধে নারী ক্যান্সার রোগীর টাকা আত্মসাৎ করার অ’ভিযোগ ওঠেছে। বৃহস্পতিবার (১৯ আগস্ট) রাজধানীর রূপনগরে টিনশেড ৬ নম্বর রোডের ৪৪/৫ নম্বর বাড়িতে এমন ঘটনা ঘটেছে

শনিবার (২১ আগস্ট) ওই এসআইয়ের বি’রুদ্ধে ডিএমপি কমিশনার ও মহাপু’লিশ পরিদর্শকের কাছে লিখিত অ’ভিযোগ জমা দিয়েছেন রাশিদা নামের ওই ভুক্তভোগী নারী ক্যান্সার রোগী।

টাকা আত্মসাতে জ’ড়িত ওই এসআইয়ের নাম মাসুদুর রহমান। তিনি রূপনগর থা’নার পু’লিশের এসআই (উপ-পরিদর্শক) হিসেবে কর্ম’রত। ঘটনার দিন শুধু টাকা নিয়েই ক্ষ্যান্ত হননি এসআই মাসুদুর রহমান। তিনি রাশিদাকে ঢাকা মেট্রোপলিটন পু’লিশ আইনে (পাচানি) চালান দেন।

অ’ভিযোগে তিনি উল্লেখ করেন, মৌসুমি ব্যবসায়ী হিসেবে রূপনগর টিনশেড এলাকায় আমি দীর্ঘদিন বসবাস করছি। ১৯ তারিখ বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে এগারোটায় পু’লিশের সোর্স অ’পুসহ রূপনগর থা’নার এসআই মাসুদুর রহমান আমা’র বাসায় আসেন। তারা বলেন আমা’র বাসায় ৩০ -৩৫ টি চো’রাই মোবাইল রয়েছে। এ কথা বলে তারা তল্লা’শি শুরু করেন। বাসার সব আসবাবপত্র তছনছ করে ফেলেন। তল্লা’শি শেষে তারা কোন কিছুই পায়নি। এক পর্যায়ে আমা’র জমানো আড়াই লক্ষ টাকা নিয়ে এসআই মাসুদ তার পকে’টে ঢুকান। এরপর সে আমাকে বলে এ টাকার কথা কাউকে ঘুণাক্ষরে বললে ৫০ পিস ইয়াবাসহ কোর্টে চালান দেয়া হবে। এরপর আমাকে থা’নায় নিয়ে যান। আমি অনুনয় বিননয় করে তাকে বলি আমি ক্যান্সারের রোগী আমাকে মা’দক মা’মলায় চালান দেবেন না। এরপর টাকা ফেরৎ না দিয়ে আমাকে ১ দিনের জন্য পাচানি মা’মলা দেয়।

কা’ন্নাজ’ড়িত কণ্ঠে রাশিদা যুগান্তরকে বলেন, আমি জরায়ু ক্যান্সারের রোগী। প্রতি সপ্তাহে আমাকে থেরাপি দিতে হয়। আমি ছোটখাটো ব্যবসা করে সংসার চালাই। থা’নায় আমা’র নামে কোনো অ’ভিযোগ কিংবা কোনো মা’দক মা’মলা নাই। কোরবানীর গরু বিক্রির আড়াই লক্ষ টাকা বাসায় গচ্ছিত ছিল। ওই দিন এসআই মাসুদসহ পু’লিশের ফরমা অ’পু তাও নিয়ে গেছে। এখন ২ দিন পর যে, থেরাপি দিবো সে টাকাও নাই।

তিনি বলেন, আমি ঘটনার সুষ্ঠু বিচার চাই। আমি আমা’র টাকা ফেরৎ চাই।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে অ’ভিযু’ক্ত এসআই মাসুদ যুগান্তরকে বলেন, ‘পু’লিশের হেডকোর্য়াটারে যে কেউ অ’ভিযোগ দিতে পারে। পু’লিশের দরজা সবার জন্য খোলা। অ’ভিযোগ যাচাই বাছাই হবে। আমি ঘটনার সঙ্গে জ’ড়িত কিনা। ওই মহিলাকে যেদিন আ’ট’ক করেছি সেদিন আরও ৪ জনকে আ’ট’ক করেছি। তারা খা’রাপ কাজে জ’ড়িত। বাসায় লোকজন নিয়ে খা’রাপ কাজ করে। আপনি নিজে গিয়ে ত’দন্ত করতে পারেন।’ সূত্র দৈনিক যোগান্তর

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  • 80
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    80
    Shares
নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: