সর্বশেষ আপডেট : ২ ঘন্টা আগে
রবিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ১১ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

ফেসবুকে ফেক আইডি খুলে হাতিয়ে নিল ৪ লাখ টাকা

থাকেন মালয়েশিয়ায়। ছবি ও নাম দিয়ে ফেসবুক আইডি খুলেছেন সৌদি প্রবাসীর। দুই যুবককে ফাঁদে ফেলে প্রবাসে নেওয়ার কথা বলে হাতিয়ে নিয়েছেন ৪ লাখ ১০ হাজার টাকা।

আর এ কাজ করেছেন বর্তমানে মালয়েশিয়া প্রবাসী চাঁদপুরের কচুয়ার দক্ষিণ মাঝিগাছা গ্রামের জাকির হোসেনের ছে’লে প্রতারক সোহাগ হোসেন। সে কচুয়ার আলিয়ারা গ্রামের মৃ’ত হাবিব উল্যাহ মেম্বারের ছে’লে সৌদি প্রবাসী মো. নুরুল ইস’লামের ছবি ও নাম ব্যবহার করে হুবহু আরেকটি বিকল্প ফেসবুক আইডি খুলে প্রবাসে বসে নতুন কৌশলে সেঙ্গুয়া গ্রামের দুই যুবককে সৌদিতে পাঠানোর কথা বলে মোটা অংক অর্থ হাতিয়ে নেয়।

অবশেষে প্রতারণার শিকার হয়ে ওই যুবকের বাবা আমিন মিয়া ও প্রবাসী নুরুল ইস’লামের ভাই তাজুল ইস’লাম বাদী হয়ে সম্প্রতি প্রতারক সোহাগের বি’রুদ্ধে কচুয়া থা’নায় পৃথক দুটি লিখিত অ’ভিযোগ দায়ের করেছেন।

প্রতারণার শিকার কচুয়ার সেঙ্গুয়া গ্রামের জাহিদ হাসানের মা তাছলিমা আক্তার জানান, নুরুল ইস’লাম আমা’র চাচা হন। মাঝিগাছা গ্রামের জনৈক প্রতারক সোহাগ আমা’র চাচার ছবি দিয়ে তার নামে একটি ফেসবুক আইডি খোলায় আমা’র ভাই ওমান প্রবাসী জিসান ওই নাম্বারে ফোন দেন। তাকে ফোন দিলে প্রতারক সোহাগ নিজেকে নুরুল ইস’লাম বলে পরিচয় দিয়ে দীর্ঘদিন কথা বলে জিসানের ভাগিনা জাহিদ ও চাচাতো ভাই শাহপরানকে সৌদিতে নেওয়ার কথা বলে ব্যাংক ও বিকাশের মাধ্যমে বিভিন্ন সময়ে ৪ লাখ ১০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয়।

পরে জাল ভিসা পাঠায় তাদের কাছে। কবে বিদেশ পাঠাবে জানতে চাইলে ওই চক্রের সদস্য একই গ্রামের কালাম ভূঁইয়া কার কাছে বিদেশে যাওয়ার ভিসার টাকা দিয়েছেন এবং কি ভিসা দিয়ে বিদেশ যাবেন- এমন উল্টো-পাল্টা প্রশ্ন করলে বিষয়টি ফাঁ’স হয়ে যায়। একপর্যায়ে কালাম ভূঁইয়ার তথ্যমতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সহায়তায় প্রতারক সোহাগের নাম-ঠিকানা বের করে ঘটনার মূলর’হস্য উদঘাটন করা হয়।

সৌদি প্রবাসী নুরুল ইস’লামের বড়ভাই মো. তাজুল ইস’লাম জানান, আমা’র ভাইয়ের ছবি ও নাম ব্যবহার করে ফেসবুক খুলে প্রতারণায় করায় আম’রা সামাজিকভাবে হেয়প্রতিপন্ন হয়েছি। ন্যায়বিচার চেয়ে প্রতারক সোহাগের বি’রুদ্ধে কচুয়া থা’নায় অ’ভিযোগ দিয়েছি।

এদিকে অ’ভিযু’ক্ত দক্ষিণ মাঝিগাছা গ্রামের অধিবাসী সোহাগের বাবা জাকির হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, বিষয়টি নিয়ে এলাকায় স্থানীয়ভাবে সমাধানের চেষ্টা চলছে।

কচুয়া থা’নার ওসি মো. মহিউদ্দিন বলেন, এ বিষয়ে একটি লিখিত অ’ভিযোগ পেয়েছি।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  • 76
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    76
    Shares
নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: