সর্বশেষ আপডেট : ৫ ঘন্টা আগে
মঙ্গলবার, ২৭ জুলাই ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ১২ শ্রাবণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

তথ্যমন্ত্রীর সামনেই সাংবাদিক নেতাদের উত্তপ্ত বাক্য বিনিময়

করো’নাকালীন অনুদান হিসেবে বাংলাদেশ সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্টে প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া ১০ কোটি টাকার অনুদান নিয়ে উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় করেছেন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন ও ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের নেতারা।

রোববার (১৮ জুলাই) বিকালে প্রেস ইনস্টিটিউট হলে কল্যাণ ট্রাস্টের দ্বিতীয় পর্যায়ের আর্থিক সহায়তার চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদের সামনেই এ ঘটনা ঘটে।

অনুষ্ঠানে বিএফইউজে সভাপতি মোল্লা জালাল প্রধানমন্ত্রীর অনুদানের টাকা বিতরণের বিষয়ে ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সমালোচনা প্রসঙ্গে বক্তব্য দেওয়ার সময় হৈ চৈ শুরু করেন ডিইউজের দু একজন সদস্য। এ সময় ঈদের আগেই অনুদানের টাকা চাই বলে চি’ৎকার করেন এক সদস্য।

এ সময় মোল্লা জালাল তার বক্তব্যে বলেন, অনুদানের টাকা কত দ্রুত কিভাবে বিতরণ করা হবে সেই সিদ্ধান্ত নেবে কল্যাণ ট্রাস্ট। এটা তার এখতিয়ারে নেই।
তিনি এ সময় বলেন, ১০ কোটি টাকা অনুদানের তথ্য গো’পন করা হয়েছে বলে সম্প্রতি ফেসবুকে যেভাবে তাকে নিয়ে সমালোচনা করা হয়েছে এবং পোস্ট ভাই’রাল করা হয়েছে তা খুবই দুঃখজনক।

তিনি বলেন, এটা খুব বিস্ময়কর গত ২৭ এপ্রিল প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব সংবাদ সম্মেলন করে কল্যাণ ট্রাস্টে সাংবাদিকদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর ১০ কোটি টাকা দেওয়ার তথ্য জানান। এ সংবাদ সারা দেশের সংবাদকর্মীরা জানেন। বিএফইউজের মহাসচিব নিজেও ফেসবুকে সাংবাদিকদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদনের বিষয়টি জানিয়েছেন।

ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের নির্বাহী কমিটির সভায় অনুদানের ১০ কোটি টাকা এখনো বিতরণ না হওয়ায় তাকে তুলোধুনো করা হয়েছে বলেও অ’ভিযোগ করেন বিএফইউজের সভাপতি মোল্লা জালাল।

তিনি আরও বলেন, চেক তো আমা’র নামে দেওয়া হয়নি। এই অনুদানের বিষয়ে আমাকে কেন গান পয়েন্টে রাখা হয়েছে। এতে কার কি উদ্দেশ্য হাসিল হবে বলে প্রশ্ন রাখেন তিনি। ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের নির্বাহী কমিটি সভা থেকে বিবৃতি দিয়ে তাকে বেকায়দায় ফেলা হয়েছে বলেও অ’ভিযোগ করেন তিনি।
মোল্লা জালাল বলেন, কল্যাণ ট্রাস্ট্রের সবশেষ সভায় ১৫ জুলাইয়ের মধ্যে অনুদানের টাকা বিতরণ করার সিদ্ধান্ত হয়। কিন্তু লকডাউনের কারণে অনুদানের অর্থ বিতরণে দেরি হচ্ছে।

প্রধান অ’তিথির বক্তব্যে কল্যাণ ট্রাস্টের চেয়ারম্যান তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ১০ কোটি টাকার অনুদান নিয়ে সাংবাদিক নেতাদের মধ্যে ভুল বোঝাবুঝি তৈরি হয়েছে। তিনি বলেন, ভুল বোঝার কোনো অবকাশ নেই।

তথ্যমন্ত্রী আরও বলেন, করো’না প্রকোপ তো কমেনি। তাই কল্যাণ ট্রাস্টের সভায় ঈদের আগে সব টাকা বিতরণের কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। ১০ কোটি টাকা থেকে রোববার পর্যন্ত দুই কোটি টাকা বিতরণ করা হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, দুস্থ, চাকরিচ্যুত ও যারা বেতন পাচ্ছেন না সেই সাংবাদিকরা শুধু এই সহায়তা পাবেন।
যারা প্রথম পর্যায়ে আর্থিক সহায়তা পেয়েছেন তারা দ্বিতীয় পর্যায়ে পাবেন না। তবে কেউ যদি খুব সংকটে থাকেন তিনি দ্বিতীয় দফায়ও পেতে পারেন। ঈদের আগে বাকী’ দুই দিনে আরও কিছু টাকা বিতরণ করা হবে। বিরোধী মতের সাংবাদিকরা এই অর্থ সহায়তা পাবেন, যদি কল্যান ট্রাস্টের নীতিমালা অনুযায়ী তিনি এই সহায়তা পাওয়ার যোগ্য হন।

এর আগে সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্ট্রের ব্যবস্থাপনা পরিচালক জাফর ওয়াজেদ বলেন, যু’দ্ধাপরাধী জামায়াত-শি’বিরের অনুসারীরা এই সহায়তা পাবেন না। তাদের এই অনুদানে কোনো হক নেই। মুক্তিযু’দ্ধের পক্ষের সাংবাদিকরা শুধু আর্থিক সহায়তা পাবেন। করো’নাকালীন এই সহায়তা দিয়ে যাবে কল্যাণ ট্রাস্ট। সৌজন্যঃসময়নিউজটিভি

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: