সর্বশেষ আপডেট : ৩০ মিনিট ২৩ সেকেন্ড আগে
সোমবার, ২৬ জুলাই ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ১১ শ্রাবণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

কুলাউড়ায় কর্মহীন শ্রমজীবি পরিবারে খাবার পৌঁছে দিলো পু’লিশ

লকাডাউনে কর্মহীন হয়ে পড়া নিম্ন আয়ের শ্রমজীবি পরিবারের মানুষকে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিলেন কুলাউড়া থা’না পু’লিশ। থা’না পু’লিশের উদ্যোগে সোমবার (১২ জুলাই) মধ্যরাতে উপজে’লার কাদিপুরের তিনটি বস্তিতে ও ব্রাহ্মণবাজারের মিশন সংলগ্ন বেদে পল্লীতে এ খাদ্য সহায়তা দেওয়া হয়।

কুলাউড়া থা’নার ভা’রপ্রাপ্ত কর্মক’র্তা (ওসি) বিনয় ভূষণ রায়, ওসি ত’দন্ত আমিনুল ইস’লাম, এস আই কা’ম’রুল, এএসআই নাজমুল ইস’লামসহ থা’না পু’লিশের সদস্যরা অর্ধশতাধিক কর্মহীন শ্রমজীবি পরিবারকে পৌঁছে দেন। খাদ্য সামগ্রীর প্রতিটি প্যাকে’টে ছিল ৫ কেজি চাল, ১ কেজি ডাল, ১ কেজি আলু ও ১ কেজি করে পেঁয়াজ।

এসময় ব্রাহ্মণবাজারের মিশন সংলগ্ন বেদে পল্লীতে বসবাসরত রুবিনা বেগম, গোয়ালী ও মোমেনা বেগম বলেন, আমাদের নিজস্ব কোন বসতভিটে নেই। ছয় মাস এখানে থাকি, আবার অন্যখানে গিয়ে অস্থায়ী বসতি গড়ি। বিভিন্ন গ্রামে গিয়ে দাতের পোকা, হাড়ের ব্যাথাসহ ঝাড়ফুঁক করে কোনরকম পরিবার চালাই। লকডাউনে কারো বাড়িতে যেতে পারিনা। দুই সপ্তাহ ধরে কাজ বন্ধ। খেয়ে না খেয়ে নিদারুণ ক’ষ্টে দিন কা’টাচ্ছি। কেউ আমাদের খোঁজ রাখেনা। রাতে চিন্তায় ঘুম হচ্ছিলনা। কাল সকালে সন্তানদের খাবার কিভাবে জোগাড় করবো। এখন রাতে থা’না পু’লিশের চাল ডাল পেয়ে তিন চারদিনের জন্য অন্তত দুবেলা দুমঠো খাবার হবে।

কুলাউড়া থা’নার ওসি বিনয় ভূষণ রায় জানান, লকডাউনে শ্রমজীবি নিম্ন আয়ের মানুষরা বিপাকে পড়েছেন। জে’লা পু’লিশ সুপার মহোদয় মোহাম্ম’দ জাকারিয়ার পরাম’র্শে ও আম’রা নিজেদের উদ্যোগে এবং সাধ্যমতো অর্ধশতাধিক শ্রমজীবি ও বেদে পল্লীতে খাদ্য সহায়তা পৌঁছে দিয়েছি।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: