সর্বশেষ আপডেট : ১৯ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ৭ ডিসেম্বর ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET
Fapperman.com DoEscorts

সমস্যা বাম পাশে, ভুলে পেটের ডান পাশ কাটলেন চিকিৎসক!

২৫০ শয্যা বিশিষ্ট ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতা’লের শয্যায় প্রায় দুই সপ্তাহ ধরে কাতরাচ্ছেন মো. আজিমুল। ঠিক কতদিনে সুস্থ হবেন কিংবা আদৌ কতটা সুস্থ হবেন সেটা নিয়ে শ’ঙ্কা তিনি ও পরিবারের সদস্যদের। আজিমুলের কিডনি থেকে পাথর সরানো হয়েছিল।

অ’ভিযোগ উঠেছে, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতা’লের সিনিয়র কনসালটেন্ট ডা. মো. শফিকুল ইস’লাম বামপাশের বদলে প্রথমে ডান পাশ কে’টে অ’স্ত্রোপচার কাজ শুরু করেন। ভুল বুঝতে আবার আজিমুলের বাম পাশ কে’টে পাথর বের করা হয়। আর এমন ভুল চিকিৎসার কারণেই আজিমুল এখনো সুস্থ হয়ে উঠতে পারেননি বলে অ’ভিযোগ করেছেন পরিবারের লোকজন।

আজিমুল খান (৪০) ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজে’লার দক্ষিণ জাঙ্গাল গ্রামের বাসিন্দা। সম্প্রতি তিনি ব্রাহ্মণবাড়িয়া জে’ল রোডের একটি বেসরকারি ক্লিনিকে ডা. শফিকুল ইস’লামকে দেখান। পরীক্ষা নিরীক্ষার পর বাম কিডনীতে পাথর রয়েছে বলে জানানো হয়। বেসরকারি হাসপাতা’লে অ’স্ত্রোপচার করার মতো আর্থিক সাম’র্থ দিনমজুর আজিমুলের নেই বলে সরকারি হাসপাতা’লে করানো অনুরোধ করেন। গত ১৯ জুন আজিমুল ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল ভর্তি হলে ২৭ জুন অ’স্ত্রোপচারের তারিখ নির্ধারণ করা হয়। সেদিন অ’স্ত্রোপচারের সময় বাম পাশের বদলে ডান পাশ কে’টে ফেলা হয়।

আজিমুল জানান, অ’স্ত্রোপচারের সময় তিনি দুই পাশ কে’টে ফেলার বিষয়টি টের পান। বিষয়টি তিনি স্বজনদেরকে জানান। পরে স্বজনরা দুই পাশে কা’টা থাকার বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে সংশ্লিষ্টদের মাধ্যমে জানতে পারেন এটা ভুলে করা হয়েছে।

আজিমুলের স্ত্রী’ খালেদা জানান, ওই দিন সকাল আটটায় অ’স্ত্রোপচার কক্ষে নিয়ে যাওয়ার পর কয়েক ঘন্টা পেরুলেও না বের হওয়া স’ন্দেহ হয়। আজিমুল মা’রা গেছেন এমনটাই তারা ভেবে বসেন। বেলা ১টার পর অ’স্ত্রোপচার কক্ষ থেকে তাকে বের করে আনা হয়। দুই পাশ কা’টার বিষয়টি আজিমুলের মাধ্যমে বুঝতে পেরে চিকিৎসককে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি এটিকে দুর্ঘ’টনা বলে আখ্যায়িত করেন। এ অবস্থায় আজিমুল এখনো সুস্থ হয়ে উঠতে পারেননি। তার হাঁটাচলায় এখানো সমস্যা হচ্ছে।

তবে এ বিষয়ে চিকিৎসক মো. শফিকুল ইস’লামের বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়। শুক্রবার সন্ধ্যায় বেশ কয়েকবার কল করলেও তিনি মোবাইল ফোন রিসিভ করেন নি। এমনকি এ প্রতিবেদক নিজের পরিচয় দিয়ে বিষয়টি জানতে চেয়ে এসএমএস পাঠিয়েও কোনো সাড়া পাননি।

তবে এ বিষয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতা’লের সুপারিনটেনডেন্ট (তত্ত্বাবধায়ক) ডা. মো. ওয়াহিদুজ্জামান সাংবাদিকদেরকে জানান, এমন একটি ঘটনা তিনি শুনেছেন। তবে কাগজপত্র না দেখে কিংবা বিস্তারিত না জেনে কিছু বলতে পারবেন না।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  • 23
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    23
    Shares
নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: